বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > কানে হেডফোন দিয়ে যুবতীদের কটূক্তি, মত্ত চালকের বেপরোয়া বাইক পিষে দিল তিন শিশুকে
প্রতীকী ছবি
প্রতীকী ছবি

কানে হেডফোন দিয়ে যুবতীদের কটূক্তি, মত্ত চালকের বেপরোয়া বাইক পিষে দিল তিন শিশুকে

  • পাশোয়ান নাম এক শিশুর একটি পা বাদ দিতে হবে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন চিকিৎসকরা। তার পরিবারকে ১২ ঘণ্টা সময় দিয়েছেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

সরস্বতী পুজোর দিন ভয়াবহ দুর্ঘটনা ঘটল মানিকতলায়। বেপরোয়া গতির বাইক পিষে দিল তিন শিশুকে। সরস্বতী পুজোর হুল্লোড় পরিণত হল বিষাদে। অভিযোগ, বাইক চালাতে চালাতে রাস্তায় তিন যুবতীকে কটূক্তি করছিল তিন যুবক। একটি বাইকেই সওয়ার ছিল তারা। অভিযোগ, তারা প্রত্যেকেই ছিল মত্ত অবস্থায়। কানে হেডফোন। আর তাদের এই বেপরোয়া ভাব তিন শিশুকে মৃত্যু মুখে পাঠিয়ে দিয়েছে। তাদের শারীরিক অবস্থা অত্যন্ত আশঙ্কজনক।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, মত্ত অবস্থায় ওই তিন যুবক কানে হেডফোন নিয়ে বেপরোয়া গতিতে বাইক চালাচ্ছিল। রাস্তায় তিন যুবতীকে কটূক্তিও করছিল তারা। সে সময় ওই রাস্তা দিয়েই স্কুলে যাচ্ছিল তিন শিশু। নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে তাদের সজোরে ধাক্কা মারে বাইকটি। ছিটকে যায় ওই তিন শিশু। স্থানীয়রা ছুটে এসে তাদের উদ্ধার করে আর জি কর হাসপাতাল নিয়ে যান। এখন সেখানেই গুরুতর জখম অবস্থায় চিকিৎসাধীন এই তিন শিশু।

হাসপাতাল সূত্রে খবর, পাশোয়ান নাম এক শিশুর একটি পা বাদ দিতে হবে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন চিকিৎসকরা। তার পরিবারকে ১২ ঘণ্টা সময় দিয়েছেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। আকাশ মাজি নামে এর এক শিশুর অবস্থা আরও ভয়ঙ্কর। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, তাঁর কোমর থেকে পা পর্যন্ত অংশের হাড় ভেঙে চুরমার হয়ে গিয়েছে।

এদিকে, ওই তিন শিশুর পরিবারের অভিযোগ, তাঁদের হাসপাতালে ঢুকতে দেওয়া হচ্ছিল না। হাসপাতালে হয়রানির শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ করেছেন আকাশের মা এবং দিদা। একইসঙ্গে অভিযোগ পেয়ে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। ওই তিন যুবকের খোঁজে শুরু হয়েছে তল্লাশি। খতিয়ে দেখা হচ্ছে এলাকার সিসি টিভি ফুটেজও।

বন্ধ করুন