বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ট্যাবলো বিতর্ক জিইয়ে রেখে নেতাজিকে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন মমতার, জারি রাখলেন ‘দিবস’ তরজা

ট্যাবলো বিতর্ক জিইয়ে রেখে নেতাজিকে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন মমতার, জারি রাখলেন ‘দিবস’ তরজা

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (ছবি সৌজন্যে পিটিআই) (HT_PRINT)

দীর্ঘ টুইটে মমতা এদিন তুলে ধরেন যে নেতাজিকে শ্রদ্ধা জানাতে তাঁর সরকার কী কী পদক্ষেপ করেছে।

ট্যাবলো বিতর্ক জিইয়ে রেখে নেতাজিকে জন্মবার্ষীকির শ্রদ্ধার্ঘ্য অর্পণ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পাশাপাশি এদিন ফের একবার কেন্দ্রের কাছে মমতা আবেদন জানান যাতে নেতাজির জন্মদিনকে জাতীয় ছুটির দিন হিসেবে ঘোষণা করা হোক। দীর্ঘ টুইটে মমতা এদিন তুলে ধরেন যে নেতাজিকে শ্রদ্ধা জানাতে তাঁর সরকার কী কী পদক্ষেপ করেছে।

এদিন টুইট বার্তায মমতা লেখেন, ‘দেশনায়ক নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসুর ১২৫তম জন্মবার্ষিকীতে শ্রদ্ধাঞ্জলি। জাতীয় স্তরে এবং বিশ্বব্যাপী একজন আইকন তিনি। বাংলা থেকে নেতাজির উত্থান ভারতীয় ইতিহাসে অতুলনীয়। তিনি দেশপ্রেম, সাহসিকতা, নেতৃত্ব, ঐক্য ও ভ্রাতৃত্বের প্রতীক। নেতাজি সব প্রজন্মের জন্য অনুপ্রেরণা হয়ে থাকবেন। পশ্চিমবঙ্গ সরকার তাঁর ১২৫তম জন্মবার্ষিকীকে ‘দেশ নায়ক দিবস’ হিসেবে পালন করছে। রাজ্যের প্রোটোকল অনুসরণ করে উপযুক্ত ভাবে এই দিবস পালন করা হচ্ছে।’

মমতা আরও লেখেন, ‘নেতাজিকে সম্মান জানাতে আন্তর্জাতিক সাহায্যে ও রাজ্য সরকারের আর্থিক সাহায্যে জয় হিন্দ বিশ্ববিদ্যালয় তৈরি করা হচ্ছে।’ পাশাপাশি মমতা দাবি করেন, ‘জাতীয় পরিকল্পনা কমিশনের বিষয়ে নেতাজির চিন্তাধারা থেকে অনুপ্রেরণা নিয়ে রাজ্যেও বেঙ্গল প্ল্যানিং কমিশন গঠন করা হবে।’

পাশাপাশি ট্যাবলো বিতর্ক জিইয়ে রেখে মমতা এদিন লেখেন, ‘এই বছর প্রজাতন্ত্র দিবসের কুচকাওয়াজে নেতাজির একটি ট্যাবলো প্রদর্শিত হবে। আমাদের দেশের স্বাধীনতার ৭৫তম বছর স্মরণে বাংলার অন্যান্য বিশিষ্ট স্বাধীনতা সংগ্রামীদেরও ট্যাবলো প্রদর্শিত হবে।’ মমতা টুইটে আরও লেখেন, ‘আমরা আবার কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে আবেদন জানাচ্ছি যাতে নেতাজির জন্মদিনকে জাতীয় ছুটির দিন হিসেবে ঘোষণা করা হয় যাতে সমগ্র জাতি জাতীয় নেতাকে শ্রদ্ধা জানাতে পারে এবং দেশ নায়ক দিবস উদযাপন করতে পারেন।’ উল্লেখ্য, কেন্দ্রের তরফে নেতাজির জন্মদিনকে পরাক্রম দিসব হিসেবে ঘোষণা করা হলেও রাজ্যের তরফে আজকের দিনটিকে দেশ নায়ক দিবস হিসেবে পালন করা হচ্ছে।

 

বন্ধ করুন