বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > কলকাতা পুরভোটের পাপ ধুতে গঙ্গাসাগরে গিয়েছেন, মমতাকে চরম কটাক্ষ দিলীপের
দিলীপ ঘোষ। 

কলকাতা পুরভোটের পাপ ধুতে গঙ্গাসাগরে গিয়েছেন, মমতাকে চরম কটাক্ষ দিলীপের

  • মমতাকে প্রধানমন্ত্রী করার যে স্বপ্ন আছে তৃণমূলের, সেই প্রসঙ্গে দিলীপেক কটাক্ষ, ‘বাবা-মা ছেলেকে বলেন যে শতায়ু হও। কিন্তু কতজন ছেলে আর ১০০ বছর বাঁচে!'

প্রতিটি নির্বাচনের পর প্রায়শ্চিত্ত করতে মন্দিরে পুজো দেন। পুণ্যস্নান করেন। এবার কলকাতা পুরনির্বাচনের পাপ ধুতে গঙ্গাসাগরে গিয়েছেন। এমনই ভাষায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আক্রমণ শানালেন বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

মঙ্গলবার গঙ্গাসাগরের সফরের সময় মমতাকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দেখতে চান কপিল মুনি আশ্রমের মহন্ত। সেই ঘটনার রেশ ধরে বুধবার সকালে নিউ টাউনের ইকোপার্কে দিলীপ বলেন, ‘দেখুন মহন্ত তো। তিনি (কপিল মুনি আশ্রমের মহন্ত) তো রাজনীতি বোঝেন না। স্বাভাবিকভাবে সবাইকে আশীর্বাদ করেন। সেই হিসেবে করেছেন। কিন্তু মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যে কর্পোরেশনের পাপ ধুতে ওখানে স্নান করতে গিয়েছেন, সেটা তো উনি (কপিল মুনি আশ্রমের মহন্ত) জানেন না। প্রতিবার একটা নির্বাচন হয়। যে হিংসা হয়, খুন হয়, তার প্রায়শ্চিত্ত করতে কোথাও না কোথাও মন্দিরে পুজো দেন উনি (মমতা)। স্নান করেন। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এটা নতুন স্ট্র্যাটেজি (কৌশল)। সেটাই হয়েছে।'

দিলীপ দাবি করেন, যে মমতা প্রধানমন্ত্রী হওয়ার স্বপ্ন দেখছেন, সেই মমতার দল তৃণমূল কংগ্রেস পশ্চিমবঙ্গের বাইরেই যেতে পারেনি। ত্রিপুরায় পুরভোটে ধাক্কা খেয়েছে। গোয়ায় মুখ পুড়েছে। দিলীপের কথায়, ‘ত্রিপুরার লোক তাঁকে আয়না দেখিয়েছেন। গোয়ায় লোক বেসুরো হয়ে গিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী কেন! বাংলার বাইরে পার্টি শুরু করুন (আগে), তারপর দেখা যাবে।’ সেইসঙ্গে ২০২৪ সালের মমতাকে প্রধানমন্ত্রী করার জন্য তৃণমূল যে ব্রত নিয়েছে, তা নিয়ে চরম কটাক্ষ করে দিলীপ বলেন, ‘বাবা-মা ছেলেকে বলেন যে শতায়ু হও। কিন্তু কতজন ছেলে আর ১০০ বছর বাঁচে!'

বন্ধ করুন