বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > সকাল থেকে মুখ ভার আকাশের, আজও কি প্রবল বৃষ্টিতে নাজেহাল হবেন কলকাতাবাসী?
জলমগ্ন কলকাতা (ছবি সৌজন্যে এএনআই)
জলমগ্ন কলকাতা (ছবি সৌজন্যে এএনআই)

সকাল থেকে মুখ ভার আকাশের, আজও কি প্রবল বৃষ্টিতে নাজেহাল হবেন কলকাতাবাসী?

  • আজও কলকাতার আকাশ মেঘলা রয়েছে। আলিপুর আবহাওয়া অফিসের পূর্বাভাস অনুযায়ী আজ কলকাতায় বিক্ষিপ্তভাবে দফায় দফায় বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

টানা বৃষ্টিতে জলমগ্ন হয়ে পড়েছে শহর কলকাতা। বঙ্গোপসাগরের উপকূলবর্তী এলাকা ও সংলগ্ন বাংলাদেশের উপর একটি নিম্নচাপ অবস্থান করছে। এর জেরে এই বৃষ্টিপাত জারি থাকতে পারে বলে জানিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া অফিস। কলকাতার পাশাপাশি ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে জেলাগুলিতেও। এই অবস্থায় জমা জল বের না করলে পরিস্থিতি আরও বিগড়ে যেতে পারে। সেই কথা মাথায় রেখে পদক্ষেপ নিয়েছে কলকাতা পুরসভা। সচল রাখা হয়েছে ৭৪টি পাম্পিং স্টেশন। পাশাপাশি অতিরিক্ত পাম্প বসিয়ে জমা জল বের করার ব্যবস্থাও করা হয়েছে শহরের বিভিন্ন এলাকায়।

নিম্নচাপের জেরে লাগাতার বৃষ্টি চলছে কলকাতা থেকে শহরতলিতে। আলিপুর আবহাওয়া অফিস জানাচ্ছে, বঙ্গোপসাগরের উপর একটি সুস্পষ্ট নিম্নচাপ তৈরি হওয়ায় এই পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। সেই সঙ্গে একটি মৌসুমী অক্ষরেখা রয়েছে। এর ফলেই দক্ষিণবঙ্গের একাধিক জেলার ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। এদিকে আজও কলকাতার আকাশ মেঘলা রয়েছে। আলিপুর আবহাওয়া অফিসের পূর্বাভাস অনুযায়ী আজ কলকাতায় বিক্ষিপ্তভাবে দফায় দফায় বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

এদিকে শুক্রবার থেকে পশ্চিমের জেলাগুলোতে বৃষ্টির পরিমাণ বাড়বে এবং গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের জেলাগুলোতে বৃষ্টির পরিমাণ কিছুটা কমবে। পুরুলিয়া, বাঁকুড়া ও পশ্চিম বর্ধমান, এই তিন জেলায় ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। দক্ষিণবঙ্গের অন্যান্য জেলাগুলোতে সেইভাবে অতি ভারী বৃষ্টিপাতের সতর্কতা নেই।

গত ২৪ ঘণ্টায় দুই মেদিনীপুরে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টি হয়েছে। আগামী ২৪ ঘণ্টাতেও দক্ষিণবঙ্গের সব জেলাতেই হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাত হবে। কলকাতা, হাওড়া, হুগলি, পশ্চিম মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম, বীরভূম ও পূর্ব বর্ধমান জেলায় বৃষ্টি জারি থাকার সম্ভাবনা রয়েছে। আগামী ২৪ ঘণ্টা সমুদ্র উত্তাল ও ঝোড়ো হাওয়ার দাপট বেশি থাকায় মৎস্যজীবীদের আজও সমুদ্র যেতে নিষেধ করা হয়েছে। এদিকে আগামী ২৪ ঘণ্টায় নিম্নচাপটি বিহার ও ঝাড়খন্ডের দিকে এগিয়ে যাবে বলে জানিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া অফিস।

বন্ধ করুন