বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > তাঁর তৃণমূলে ফেরা সময়ের অপেক্ষা, তেমনই ইঙ্গিত শুভ্রাংশুর কথায়
বিজেপি বিধায়ক শুভ্রাংশু রায়। ফাইল ছবি
বিজেপি বিধায়ক শুভ্রাংশু রায়। ফাইল ছবি

তাঁর তৃণমূলে ফেরা সময়ের অপেক্ষা, তেমনই ইঙ্গিত শুভ্রাংশুর কথায়

  • বৃহস্পতিবার এই নিয়ে অভিষেক বলেন, ‘ওনাকে আমি ছোটবেলা থেকে চিনি। আমাকে খুব স্নেহ করেন। শরীর খারাপ শুনে হাসপাতালে গিয়েছিলেম।

মুকুল রায়ের স্ত্রীকে দেখতে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় হাসপাতালে যাওয়ার পরই ইঙ্গিতপূর্ণ মন্তব্য তাঁর ছেলে শুভ্রাংশু রায়ের। বৃহস্পতিবার সংবাদমাধ্যমকে তিনি বলেন, সৌজন্য নয়, নিজের কাকিমাকে দেখতে এসেছিলেন অভিষেক। 

বুধবার সন্ধ্যায় মুকুল রায়ের স্ত্রী কৃষ্ণা রায়কে দেখতে কলকাতার বেসরকারি হাসপাতালে যান অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে তখন ছিলেন না মুকুল। মুকুল রায়ের ছেলে শুভ্রাংশু রায়ের সঙ্গে কথা হয় তাঁর। কৃষ্ণাদেবীর শারীরিক অবস্থা নিয়ে সবিস্তারে কথা হয় ২ জনের। এর কিছুক্ষণ পরেই মুকুল রায়ের স্ত্রীকে দেখতে হাসপাতালে পৌঁছন রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ। 

বৃহস্পতিবার এই নিয়ে অভিষেক বলেন, ‘ওনাকে আমি ছোটবেলা থেকে চিনি। আমাকে খুব স্নেহ করেন। শরীর খারাপ শুনে হাসপাতালে গিয়েছিলেম। ওনার পরিবারের সঙ্গে রাজনৈতিক মতবিরোধ থাকতে পারে কিন্তু এসবের মধ্যে রাজনীতি ঢোকানো ঠিক নয়। উনি আমার মায়ের মতো।’ 

এর পর শুভ্রাংশু সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘অভিষেকের পরিবারের সঙ্গে আমাদের পরিবারের দীর্ঘদিনের। ছোটবেলা থেকে অভিষেককে স্নেহ করেন মা। অভিষেকও মাকে খুব সম্মান করে। কোনও সৌজন্যের খাতিরে নয়, কাকিমাকে দেখতে হাসপাতালে এসেছিলেন অভিষেক।’ সঙ্গে তিনি বলেন, ‘শুধু তাই নয়, মুখ্যমন্ত্রীও হাজার ব্যস্ততার মধ্যে মায়ের শারীরিক অবস্থার খোঁজ নিয়েছেন। ওনার অবদানের জন্য আমরা কৃতজ্ঞ।’

তবে কি তিনি বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে ফিরতে চলেছেন? জবাবে শুভ্রাংশু বলেন, মা আগে বাড়ি ফিরুক। তার পর এসব নিয়ে সিদ্ধান্ত নেবো। মা থাকলে সব থাকবে। তবে ফার্স্ট বয়ের সমালোচনা ছেড়ে বিজেপির উচিত ফল কেন খারাপ হল তা পর্যালোচনা করা। 

বন্ধ করুন