বাংলা নিউজ > কর্মখালি > Viral News: লজেন্স খেয়ে বলতে হবে স্বাদ, বাড়িতে বসেই বেতন পাবেন ৬২ লক্ষ টাকা!
ছবি: ক্যান্ডি ফানহাউজ (Candy Funhouse)

Viral News: লজেন্স খেয়ে বলতে হবে স্বাদ, বাড়িতে বসেই বেতন পাবেন ৬২ লক্ষ টাকা!

আপনি কি মিষ্টি খেতে ভালবাসেন? সেক্ষেত্রে এই চাকরিটি আপনার জন্য আদর্শ হতে পারে। ক্যান্ডি খাবেন, আর সেটা কেমন জানাবেন। তার জন্যই মাসে ৫ লক্ষ টাকা করে বেতন পাবেন।

কানাডার সংস্থা ক্যান্ডি ফানহাউস। তাদের চকোলেট বার থেকে গামি বেয়ারের মতো নানা প্রোডাক্ট আছে। অনলাইনেও ভালই বিক্রি সংস্থার। আর তাদের সংস্থাতেই রয়েছে একটি বিশেষ শূন্যপদ। প্রধান ক্যান্ডি অফিসার খুঁজছে সংস্থা।

হয় তো ভাবছেন, 'ক্যান্ডি অফিসার'! এ আবার কেমন চাকরি? সেক্ষেত্রে জানিয়ে রাখি, এর জন্য বছরে ৭৮ হাজার মার্কিন ডলার পর্যন্ত বেতন দেবে সংস্থা। ভারতীয় মুদ্রায় যা প্রায় ৬২ লক্ষ টাকা। কানাডার হিসাবেও যা মন্দ নয়।

তবে এখানেই চমকের শেষ নয়। ওয়ার্ক-ফ্রম-হোমেরও অপশন দেবে সংস্থা।

এ আর এমন কী ব্যাপার! ক্যান্ডি খেয়ে কেমন লাগল তা জানিয়ে দিলেই হল। এমনটা ভাবলে ভুল করবেন। প্রধান ক্যান্ডি অফিসার সংস্থার মূল স্বাদ পরীক্ষক হিসাবে কাজ করবেন। প্রতি মাসে ৩,৫০০-টিরও বেশি প্রোডাক্ট চেখে দেখতে হবে তাঁকে। তারপর প্রতিটা প্রোডাক্টের গঠনমূলক সমালোচনা করতে হবে। কোনটার স্বাদ ভাল, কোনটার খারাপ, কোন ক্যান্ডির স্বাদ আরও ভালa করা যায়- এগুলির মতামত জানাতে হবে। তাঁর সেই পরামর্শের উপর ভিত্তি করেই কোটি কোটি টাকার ব্যবসা চালাবে সংস্থা। ফলে কাজটি শুনতে মজার লাগলেও, বেশ দায়িত্বের।

এই শূন্যপদটি গত মাসে লিঙ্কডইনে পোস্ট করা হয়েছিল। সিইও জামাল হেজাজি জানান, অনেকেই চার্লি অ্যান্ড দ্য চকোলেট ফ্যাক্টরির রূপকথার গল্পের থিমে আবেদন করেছেন। আবার অনেকে নিজে একা নন, পুরো পরিবার মিলে এই কাজ করবেন বলে আবেদন করেছেন। বেতন সেই একজনেরই নিতে রাজি তাঁরা। এখনও পর্যন্ত প্রায় ৬,৫০০ জন এই চাকরির জন্য আবেদন করেছেন। আগামী ৩১ অগস্ট পর্যন্ত আবেদন করা যাবে। কোনও পূর্ব অভিজ্ঞতার প্রয়োজন নেই।

টরন্টোর কাছে ক্যান্ডি ফানহাউসের মূল দফতর। ২০ থেকে ৩০ বছর বয়সী কয়েকজন ভাই-বোন মিলে এই সংস্থা চালান। তাঁদের পারিবারিক ডোনাটের দোকান আছে। একটি স্থানীয় রেস্তোরাঁরও মালিক তাঁরা।

বন্ধ করুন