বাংলা নিউজ > ভোটযুদ্ধ ২০২১ > পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচন 2021 > মধ্যমগ্রাম বিধানসভা কেন্দ্র ২০২১ : ভোটের প্রার্থী, অতীতের ফলাফল -একনজরে সব তথ্য
১৭ এপ্রিল মধ্যমগ্রামে ভোটগ্রহণ। (নিজস্ব ছবি)
১৭ এপ্রিল মধ্যমগ্রামে ভোটগ্রহণ। (নিজস্ব ছবি)

মধ্যমগ্রাম বিধানসভা কেন্দ্র ২০২১ : ভোটের প্রার্থী, অতীতের ফলাফল -একনজরে সব তথ্য

  • ১৭ এপ্রিল মধ্যমগ্রামে ভোটগ্রহণ।

এই কেন্দ্রে এবারের তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী হলেন রথীন ঘোষ। এই আসনে বিজেপির তরফে দাঁড়াচ্ছেন রাজশ্রী রাজবংশী।  অন্যদিকে, বাম-কংগ্রেস-ইন্ডিয়ান সেকুলার ফ্রন্টের (আইএসএফ) তরফে এই কেন্দ্রে দাঁড়াচ্ছেন আইএসএফের বিশ্বজিৎ মাইতি।

মধ্যমগ্রাম কলকাতা লাগোয়া একটি শহর। মধ্যমগ্রামকে কলকাতার ফরচুন শহরও বলা হয়। মধ্যমগ্রাম পুরসভার এক্তিয়ারভুক্ত এই অঞ্চলটি বারাসতের সীমাঘেঁষা। বিমানবন্দর থানার মধ্যে পড়ছে। বারাসত সদর এই এলাকার মহকুমা। কলকাতা মেট্রোপলিটন ডেভেলপমেন্ট অথরিটি আওতায় রয়েছে এলাকার একটি অংশ। মধ্যমগ্রাম একটি বড় ধান চাষ এলাকা ছিল ও লাবণ্যপ্রভা নদীতে পণ্য রফতানির জন্য একটি মাধ্যম ছিল। এছাড়া, মধ্যমগ্রাম ছিল সূক্ষ্ম ও সুন্দর সূচিকর্ম কাজের জন্য বিখ্যাত। অনেক মুসলিম পরিবার এই কাজগুলির মাধ্যমে জীবিকা নির্বাহ করত।

ভারতের সীমানা পুনর্নির্ধারণ কমিশনের নির্দেশিকা অনুসারে, ১১৮ নম্বর মধ্যমগ্রাম বিধানসভা কেন্দ্রটি মধ্যমগ্রাম পুরসভা, চণ্ডীগড়-রোহান্দা ও কেমিয়া খামারপাড়া গ্রাম পঞ্চায়েতগুলি বারাসাত-২ সমষ্টি উন্নয়ন ব্লক এবং ইচ্ছাপুর-নীলগঞ্জ, পশ্চিম খিলকাপুর ও পূর্ব খিলকাপুর গ্রাম পঞ্চায়েতগুলি বারাসাত-১ সমষ্টি উন্নয়ন ব্লকের অন্তর্গত পড়ছে। মধ্যমগ্রাম বিধানসভা কেন্দ্রটি ১৭ নম্বর বারাসত লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত।

২০১৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনে এই কেন্দ্রে তৃণমূল প্রার্থী রথীন ঘোষ জয়ী হয়েছিলেন৷ তাঁর প্রাপ্ত ভোট ছিল ১১০,২৭১৷ দ্বিতীয় স্থানে ছিলেন কংগ্রেস প্রার্থী তাপস মজুমদার। তাঁর প্রাপ্ত ভোট সংখ্যা ৭৪ হাজার ৪৬৭৷ তৃণমূল প্রার্থী রথীন ঘোষ তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী কংগ্রেস প্রার্থী তাপস মজুমদারকে ৩৫,৮০৪ ভোটে পরাজিত করেন। ২০১১ সালের নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেসের রথীন ঘোষ তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ফরওয়ার্ড ব্লকের রঞ্জিত চৌধুরীকে এই আসন থেকে পরাজিত করেন।

বন্ধ করুন