বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > গল্প নয় সত্যি! বক্স অফিস কাঁপানো KGF চ্যাপ্টার ২ সম্পাদনা করেছে ১৯ বছরের এই তরুণ

গল্প নয় সত্যি! বক্স অফিস কাঁপানো KGF চ্যাপ্টার ২ সম্পাদনা করেছে ১৯ বছরের এই তরুণ

অবাক করা কাহিনি

কেজিএফ ছবির একটি ফ্যান মেড ট্রেলার বানিয়েছিলেন উজ্জ্বল কুলকার্নি, এরপর…

সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে কত কিছুই না সম্ভব! একদম ফিল্মের কাহিনির মতোই অবাক করা এই বাস্তব কাহিনি। ‘কেজিএফ চ্যাপ্টার ২’-এর সাফল্য তো কারুর অজানা নয়। প্রথম দিনের আয়ের নিরিখে ‘RRR’ এবং ‘বাহুবলী ২’-এর পর তিন নম্বরে রয়েছে এই ছবি। গত ১৪ই এপ্রিল মুক্তি পাওয়া সুপারস্টার যশের এই কন্নড় ছবির হিন্দি ভার্সন মাত্র দু-দিনে ১০০ কোটির গণ্ডি পার করেছে। এত বাঁধ ভাঙা সাফল্য যে ছবির, জানেন সেই ছবির প্রধান সম্পাদক (এডিটর) মাত্র ১৯ বছরের এক তরুণ।

ছবির অ্যাকশনের দৃশ্য, নিউ এজ এডিট স্টাইলে মুগ্ধ কাশ্মীর থেকে কন্যাকুমারী। ছবিতে যে ধরণের টেকনোলজি ব্যবহার করেছেন পরিচালক প্রশান্ত নীল তা সত্যিই কুর্নিশ যোগ্য। এর মাঝেই যে তথ্য উঠে আসছে তা বেশ চমকে দেওয়ার মতো। এই ছবির এডিটরের নাম উজ্জ্বল কুলকার্ণি। যেভাবে ১৯ বছরের উজ্জ্বলকে এই ছবি সম্পাদনা করবার জন্য বেছে নিয়েছিলেন পরিচালক প্রশান্ত নীল তাও কম চমকপ্রদ নয়।

জনপ্রিয় ছবির ফ্যান মেড ট্রেলার তৈরি করে ভিডিয়ো স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম ইউটিউবে পোস্ট করে উজ্জ্বল। কেজিএফ ১-এর একটি ফ্যান মেড ট্রেলার বানিয়েছিল উজ্জ্বল যা চোখে পড়ে যায় পরিচালকের। আসলে ওই ট্রেলারটি দেখে ১৯ বছরের তরুণে এতটাই মুগ্ধ হয়েছিলেন যে কেজিএফ চ্যাপ্টার ২ সম্পাদনা করবার গুরু দায়িত্ব প্রশান্ত তুলে দেন উজ্জ্বলের কাঁধে। না, কোনও সহকারী হিসাবে নয় এই ছবির ফাইনাল কাট বেরিয়ে এসেছে উজ্জ্বলের হাত দিয়েই। কোন দৃশ্যে কাঁচি চলবে, কোন দৃশ্যের পর কোন দৃশ্য জোড়া হবে- সবটাই সিদ্ধান্ত নিয়েছে সে। আর বলতেই হচ্ছে ভুল ছিল না প্রশান্তের সিদ্ধান্ত। নেটিজেনরা এই সিদ্ধান্তকে প্রশান্তের মাস্টারট্রোক বলে উল্লেখ করছেন। অভিজ্ঞতা নয়, ট্যালেন্টটাই আসল তা ফের একবার বুঝিয়ে দিল উজ্জ্বল।

বন্ধ করুন