বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > সুশান্তের মরদেহের ভিডিয়ো দ্রুত ডিলিট করতে অনুরাগীকে নির্দেশ অঙ্কিতা লোখান্ডের
সুশান্ত ও অঙ্কিতা (ফাইল ছবি)
সুশান্ত ও অঙ্কিতা (ফাইল ছবি)

সুশান্তের মরদেহের ভিডিয়ো দ্রুত ডিলিট করতে অনুরাগীকে নির্দেশ অঙ্কিতা লোখান্ডের

  • ‘এটা কাউকে ভালোবাসা বা কাউকে সমর্থন করবার নিদর্শন হতে পারে না’- মন্তব্য প্রাক্তন প্রেমিকা অঙ্কিতা লোখান্ডের। 

সুশান্ত সিং রাজপুতের প্রাক্তন প্রেমিকা অঙ্কিতা লোখান্ডে এবার সমালোচনা করলেন প্রয়াত অভিনেতার এক অনুরাগীর সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টের। যেখানে সুশান্তের মরদেহের নতুন একটি ভিডিয়ো পোস্ট করে সে। অঙ্কিতা সাফ জানান- ‘এটা কাউকে ভালোবাসা বা কাউকে সমর্থন করবার নিদর্শন হতে পারে না’।

সাত বছর ধরে অঙ্কিতার সঙ্গে প্রেম সম্পর্কে আবদ্ধ ছিলেন সুশান্ত। ২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারিতে ইতি পড়ে এই পবিত্র রিসতার। তবে সুশান্তের মৃত্যুর পর, প্রয়াত অভিনেতার পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছেন অঙ্কিতা। শুরু থেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ‘জাস্টিস অফ সুশান্ত’ আন্দোলনের অন্যতম কাণ্ডারি হয়ে উঠেছেন তিনি। এদিন অঙ্কিতা সাফ লেখেন- ‘তোমার সমস্যাটা কোথায়! এই ধরণের ভিডিয়ো পোস্ট করা দ্রুত বন্ধ কর, এগুলো সকলের জন্য খুব যন্ত্রণাদায়ক। আমরা জানি তুমি ওঁকে ভালোবাসো। তবে এটা কাউকে ভালোবাসা বা কাউকে সমর্থন করবার নিদর্শন হতে পারে না। দয়া করে এই ভিডিয়োটা দ্রুত ডিলিট করে দাও’।

অঙ্কিতার টুইট
অঙ্কিতার টুইট

এর আগে জুলাই মাসের শেষে রিপাবলিক টিভিকে দেওয়া সাক্ষাত্কারে অঙ্কিতা জানিয়েছিলেন ১৪ জুন সুশান্তের মৃত্যুর পর অভিনেতার মরদেহের ভাইরাল ছবি তাঁর কাছেও এসে পৌঁছেছিল। এই সম্পর্কে অঙ্কিতা বলেছিলেন- ‘এটা আমার কাছে সবচেয়ে দুঃখের একটা মুহূর্ত ছিল। কারুর মরদেহের ছবি এইভাবে ভাইরাল হচ্ছে! কী বলব, আমি সত্যি জানি না। আমি জানি না কে এটা করেছে, তবে যেই করে থাকুক বিষয়টা দুর্ভাগ্যজনক। এটা যন্ত্রণাদায়ক। পরিবারের জন্য, সেইসব মানুষের জন্য যাঁরা ওকে ভালোবাসে’। 

অঙ্কিতা এও জানিয়েছিলেন সুশান্তকে চিরনিদ্রায় শায়িত থাকা অবস্থায় দেখার হিম্মত তিনি জোগাড় করে উঠতে পারেননি। সুশান্তের হাসিখুশি মাখা মুখের পরিবর্তে চিরঘুমে শুয়ে থাকা মুখের ছবি দেখে তিনি শান্তিতে বাকি জীবন কাটাতে পারবেন না- সেই কারণেই ১৫ তারিখ সুশান্তের শেষকৃত্যে পৌঁছাননি অঙ্কিতা লোখান্ডে। তবে পরের দিন সুশান্তের ফ্ল্যাটে হাজির হয়েছিলেন অভিনেত্রী। দীর্ঘক্ষণ সুশান্তের বাবা ও দিদিদের সঙ্গে কাটান অঙ্কিতা, ভাগ করে নেন তাঁদের যন্ত্রণা। 

এর আগে জুন মাসেই মহারাষ্ট্র সাইবার সেলের তরফে কড়া নির্দেশিকা জারি করা হয়েছিল সুশান্তের মরদেহের ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করা থেকে বিরত থাকতে সচেতন করা হয়েছিল নেটিজেনদের। 

বন্ধ করুন