বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > সায়নীকে ‘যৌনকর্মী’ বলে কটাক্ষ বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ-র, মোক্ষম জবাব নায়িকার
থামছে না বিজেপি বনাম সায়নী যুদ্ধ! 
থামছে না বিজেপি বনাম সায়নী যুদ্ধ! 

সায়নীকে ‘যৌনকর্মী’ বলে কটাক্ষ বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ-র, মোক্ষম জবাব নায়িকার

  • ‘মহিলাদের সম্মান করা আপনাদের রক্ততে নেই। আপনার ওপর মামলা করাই যায় কিন্তু…’ বিস্ফোরক সায়নী ঘোষ।

বিজেপি-র সঙ্গে ফের ভার্চুয়াল ‘যুদ্ধ’ শুরু হয়ে গেল অভিনেত্রী সায়নী ঘোষের। এবার ঝামেলার কেন্দ্রবিন্দুতে বিজেপি নেতা সৌমিত্র খাঁ ও সায়নী ঘোষ। পরোক্ষে অভিনেত্রীকে ‘যৌনকর্মী’ বলে কটাক্ষ করলেন বিষ্ণুপুরের বিজেপি সাংসদ। যার পালটা জবাবও দিলেন সায়নী।

বুধবার পূর্ব বর্ধমানের খণ্ডঘোষের সভায় ভাষণ দেওয়ার টলিগঞ্জের শাসক ঘনিষ্ঠদের দিকে আঙুল তোলেন রাজ্য বিজেপির যুব মোর্চার সভাপতি সৌমিত্র খাঁ। তিনি বলেন, ‘কিছু ফিল্ম আর্টিস্ট আছে যারা শুধু দক্ষিণ কলকাতায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে ২ লক্ষ টাকা করে স্যালারি পায়, তাঁরা কি বলছে জানেন? এই বর্ধমানের শিব মন্দিরে, এই বুয়াইচণ্ডী কালী মন্দিরে, শিব মন্দিরে যে শিবলিঙ্গ থাকে সেই শিবলিঙ্গতে কন্ডোম পরিয়ে শিব পুজো করা হোক।… দেবী সরস্বতীকে যৌনকর্মী বলেছেন সায়নী ঘোষ। যারা শিবলিঙ্গকে বা মা মনসাকে অপমান করে, তারাই আসলে যৌনকর্মী'।

এই বিষয়ে বৃহস্পতিবার রাতে ফেসবুকে দীর্ঘ পোস্ট লেখেন, সায়নী ঘোষ। তাঁর সাফ বক্তব্য, ‘আমি কে বা কি সেই সার্টিফিকেট টি আপনার কাছ থেকে আমি নেব না এবং আমি সব পেশাকেই সম্মান করি। ফলত, আপনি আমাকে বিশেষ ছোট করতে পারলেন না। তবে আপনি নিজে অনেকটা ছোট হলেন’।  

পাশাপাশি সায়নী এও জানান, এই মন্তব্যের জন্য তিনি চাইলেই সৌমিত্র খাঁর নামে মামলা ঠুকে দিতে পারেন। ‘আপনার ওপর মামলা করাই যায় কিন্তু বেফাঁস বা বোকা কথা বলার জন্য আপনার পার্টির লোকই আপনাকে নিতে পারে না..তাহলে, মোটামুটি সব বিষয়ই আপনার ক্রেডিবিলিটি (বিশ্বাসযোগ্যতা) = জিরো, তাই পাত্তা দিলাম না’। তিনি সাফ করেন, ‘যা বুঝলাম মহিলাদের সম্মান করা আপনাদের রক্ততে নেই। এমনকি আপনার পরিবারের প্রাক্তন একজন কয়েকদিন আগেই এই অভিযোগটি করেছিলেন। আর আপনি এই কথাগুলো বলে সেটা আরো পরিস্কার করে দিচ্ছেন। যা বাংলার মা বোনেদের জন্য যথেষ্ট চিন্তার কারণ’।

সায়নীর ফেসবুক পোস্ট
সায়নীর ফেসবুক পোস্ট

ঠিক কী লিখেছেন সায়নী? দেখুন-

সৌমিত্র বাবু, আপনার কষ্ট টা আমি বুঝি..

রাগে, শোকে আপনার ভারসাম্য হারানোটা খুবই স্বাভাবিক। আমি কে বা কি সেই সার্টিফিকেট টি আপনার কাছ থেকে আমি নেব না এবং আমি সব পেশাকেই সম্মান করি। ফলত, আপনি আমাকে বিশেষ ছোট করতে পারলেন না। তবে আপনি নিজে অনেকটা ছোট হলেন। এবার কাজের কথা বলুন, মন্দির, মসজিদ, গির্জা যা ইচ্ছে বানান, কিন্ত তার সাথে কয়েকটি স্কুল,কলেজ ,হাসপাতাল,কর্মক্ষেত্র তৈরি করতে পারলে, বাত বন যায়ে..ও ও হো বাত বন যায়ে।

কিন্তু না, আপনি সে নিয়ে কিছু বলতে পারবেন না.. কারণ আপনার কোন ভিসন নেই, মানুষ কে সবসময় ভুল বোঝানো এবং ভাষণ পলিটিকসের বাদশা আপনি। তা স্কুটি দেবেন খুব ভাল কথা, কিন্তু সেটা চলবে না তো, পেট্রোল, ডিজেলের যা দাম... আপনি হয়ত ফ্রি তে পান তাই মাথা ঘামান না।

যা বুঝলাম মহিলাদের সম্মান করা আপনাদের রক্ততে নেই। এমনকি আপনার পরিবারের প্রাক্তন একজন কয়েকদিন আগেই এই অভিযোগটি করেছিলেন। আর আপনি এই কথাগুলো বলে সেটা আরো পরিস্কার করে দিচ্ছেন। যা বাংলার মা বোনেদের জন্য যথেষ্ট চিন্তার কারণ। আপনার ওপর মামলা করাই যায় কিন্তু বেফাস বা বোকা কথা বলার জন্য আপনার পার্টির লোক ই আপনাকে নিতে পারে না..তাহলে, মোটামুটি সব বিষয়ই আপনার ক্রেডিবিলিটি (বিশ্বাসযোগ্যতা) = জিরো, তাই পাত্তা দিলাম না।

ঈশ্বরের কাছে প্রার্থনা করি আপনি তাড়াতাড়ি সুস্থ হয়ে উঠুন। আর যারা আপনাকে ভোট দিয়ে জিতিয়েছেন তাদের পাশে একটু দাঁড়ান ও দায়িত্ববান হোন।

পুনশ্চ: আপনি সভাস্থল থেকে যেভাবে পুজো করার নিদান দিয়েছেন সেটা কেউ এই বাংলাতে কোনোদিনও বলেনি। আর ভবিষ্যতেও বলবে না। কিন্তু এই প্রথম আপনার মুখ থেকে সেগুলো উচ্চারিত হলো। সত্যিকারের ঈশ্বর বিশ্বাসী হলে এই কথা গুলো বানিয়ে বলতেও আপনি অনেকবার ভাবতেন।

এর আগেও টুইটারে বিজেপি নেতা তথাগত রায়ের সঙ্গে যুদ্ধ বাঁধে সায়নীর। বিতর্কের জল গড়ায় আদালত পর্যন্ত। 

 

 

বন্ধ করুন