বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > The Kashmir Files Controversy in IFFI: ‘দ্য কাশ্মীর ফাইলস একটি অশ্লীল, অযোগ্য, প্রোপাগান্ডা ছবি': ইফির জুরি চেয়ারম্যান

The Kashmir Files Controversy in IFFI: ‘দ্য কাশ্মীর ফাইলস একটি অশ্লীল, অযোগ্য, প্রোপাগান্ডা ছবি': ইফির জুরি চেয়ারম্যান

বিবেক অগ্নিহোত্রীর ছবি নিয়ে তোপ ইফির চেয়ারম্যানের

The Kashmir Files: ইফির মতো ঐতিহ্যশালী ফিল্ম ফেস্টিভালের প্রতিযোগিতামূলক বিভাগে ‘দ্য কাশ্মীর ফাইলস’-এর মতো প্রোপাগান্ডা ছবির জায়গা নেই- জানালেন ইজরায়েলি পরিচালক নাদাভ লাপিডে। 

৫৩তম ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল অফ ইন্ডিয়া (ইফি)-র শেষদিন চরম বিতর্ক সমাপ্তি অনুষ্ঠানের মঞ্চে। বিতর্কের কেন্দ্রবিন্দুতে বিবেক অগ্নিহোত্রীর ‘দ্য কাশ্মীর ফাইলস’। দেশের সবচেয়ে চর্চিত আন্তর্জাতিক ফিল্ম ফেস্টিভ্যালের প্রতিযোগিতামূলক বিভাগে এই ছবির নির্বাচন নিয়ে শুরু থেকেই বিতর্ক দানা বেঁধেছিল। শেষদিন ইফির জুরি চেয়ারম্যান নাদাভ লাপিড সোচ্চার কন্ঠে জানালেন, ‘দ্য কাশ্মীর ফাইলস একটি অশ্লীল,প্রোপাগান্ডা ছবি। ইফির মতো ঐতিহ্যশালী ফিল্ম ফেস্টিভালের প্রতিযোগিতামূলক বিভাগে, যেখানে শৈল্পিক ভাবনাই শেষ কথা, সেখানে এই ছবির কোনও জায়গা নেই।’

কান চলচ্চিত্র উৎসবে সেরার পুরস্কার জয়ী খ্যাতনামা ইজরায়েলি পরিচালক নাদাভ লাপিডে জানান, ‘আমারা সাতটি ছবি দেখেছি ডেবিউ কম্পিটিশনে, এবং আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতামূলক বিভাগে ১৫টি ছবি দেখেছি-যা এই ফেস্টিভ্যালের মূল আকর্ষন। ১৫টির মধ্য়ে ১৪টি ছবির মধ্যে সিনেম্যাটিক কোয়ালিটি ছিল, ত্রুটিও ছিল এবং সেই নিয়ে একটা গঠনমূলক আলোচনাও হয়েছে’। কিন্তু তাল কাটে বিবেক অগ্নিহোত্রীর ছবি ঘিরেই। অকুতোভয় পরিচালক জোর গলায় বলেন, ‘আমরা প্রত্যেকে খুব অস্বস্তিবোধ করেছি, হতবাক হয়েছি ১৫ নম্ব ছবি কাশ্মীর ফাইলস দেখে। সকলের কাছেই এটা একটা অশ্লীল প্রোপাগান্ডা ছবি বলে বিবেচ্য হয়েছে…. . আমি প্রকাশ্যেই নিজের অনুভূতি ভাগ করে নিতে স্বচ্ছন্দ, আর আমার মনে হয় এই সমালোচনামূলক আলোচনাকে গ্রহণ করাই এই চলচ্চিত্র উৎসবের আসল স্পিরিট'।

কেন্দ্রীয় তথ্য সম্প্রচার মন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুর এবং কেন্দ্রীয় তথ্য়-সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী এল মুরুগানের উপস্থিতিতেই ‘দ্যা কাশ্মীর ফাইলস’ নিয়ে তোপ দাগেন ইফির জুরি চেয়ারম্যান।

কাশ্মীরি পণ্ডিতদের স্বভূমিচ্যুত হওয়ার করুণ কাহিনি তুলে ধরা হয়েছে এই ছবিতে। জঙ্গি অধ্যুষিত কাশ্মীর বা পাক-হামলায় পর্যুদস্ত কাশ্মীরের যে ছবি বারবার বলিউডের ছবিতে উঠে এসেছে তার চেয়ে একদম আলাদা অনুপম খের-মিঠুন অভিনীত এই ছবি। কাশ্মীরি পণ্ডিতদের উপর ঘটা অমানুষিক নির্যাতন এবং গণহত্যাকে তুলে ধরেছেন পরিচালক। ‘ধর্ম পরিবর্তন করো, নয়তো মরো’- এই স্লোগান দিয়ে শুরু হয় জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার জয়ী এই ছবি, শেষ হয় ভারতীয় সেনার ছদ্মবেশে জঙ্গিদের গণহত্যা দিয়ে। বক্স অফিসে বিরাট সাফল্য হাঁকানো এই ছবি ‘সম্প্রদায়িক উস্কানিমূলক’, 'ইসলামোফোবিক'- এমন অভিযোগ আগেও উঠেছে। বিপুল ঘৃণা এবং প্রতিহিংসাপরায়ণতায় সুড়সুড়ি দেয় এই ছবি এমন অভিযোগ সত্ত্বেও রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষণা পেয়েছে এই ছবি। কেন্দ্রের বিজেপি সরকার ছবিটিকে করমুক্ত বলে ঘোষণা করেছিল।

ইফি-তে 'দ্য কাশ্মীর ফাইলসের স্ক্রিনিংয়ের দিন উপস্থিত ছিলেন অভিনেতা অনুপম খের এবং পরিচালক বিবেক অগ্নিহোত্রী। ফেস্টিভ্যালের সর্বোচ্চ পুরস্কার গোল্ডেন পিককের জন্য লড়াই করেছে এই ছবি।

ইফির জুরি চেয়ারম্যান নাদাভ লাপিডের বিস্ফোরক এবং বিতর্কিত মন্তব্য নিয়ে এখনও মুখ খোলেননি বিবেক অগ্নিহোত্রী, তবে প্রেস ইনফরমেশন ব্যুরোর ডিরেক্টর জেনারেল জানান, ‘জুরি চেয়ারম্যানের নিজ মতামত জাহির করবার স্বাধীনতা রয়েছে’।

 

 

বন্ধ করুন