বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > রবীন্দ্র সংগীত ভেবে গাইলেন ‘ধন ধান্য পুষ্প ভরা’, নেটদুনিয়ায় তুলোধনা ইন্দ্রানীকে
মঞ্চে যা ঘটল

রবীন্দ্র সংগীত ভেবে গাইলেন ‘ধন ধান্য পুষ্প ভরা’, নেটদুনিয়ায় তুলোধনা ইন্দ্রানীকে

  • রবীন্দ্র সংগীত গাওয়ার অনুরোধ আসতেই রেগে লাল ইন্দ্রানী হালদার, তারপর যা ঘটল…

মঞ্চে গান গেয়ে হামেশাই সমালোচনার মুখে পড়তে হয় বেশিরভাগ টলি নায়িকাদের। কেউ বেসুরো গান করে নেটপাড়ার রোষের মুখে পড়েন তো কেউ আবার গানের লিরিক্স গণ্ডগোল করে দেন। এবার সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রোলড হলেন ‘শ্রীময়ী’ ইন্দ্রানী হালদার। ব্যাপারটা কী? আসলে অনুষ্ঠানের শুরুতেই দর্শক আসন থেকে একজন অভিনেত্রীর কাছে রবীন্দ্র সংগীত গাওয়ার আবদার জানান। এতেই খানিক মেজাজ বিগড়ে যায় অভিনেত্রীর। 

সদ্যই শেষ হয়েছে ‘শ্রীময়ী’, আপতত অভিনেত্রীর হাতে বিস্তর সময়। চলতি মাসেই ৫১ পূর্ণ করেছেন এই টেলি নায়িকা। এখন বিভিন্নস্থানে শো করে বেড়চ্ছান ইন্দ্রাণী হালদার। তেমনই এক শো-এর মাঝে ঘটল বিপত্তি, সেই ভিডিয়ো এখন ভাইরাল ফেসবুকে। এক ব্যক্তি রবীন্দ্র সংগীত গাওয়ার অনুরোধ জানাতেই তাঁকে স্টেজে ডাকেন ইন্দ্রানী হালদার। শ্রীময়ীর সাফ কথা, ‘আমরা অভিনেত্রী, পেশাদার গায়িকা নই’। এরপর নানাভাবে অভিনেত্রী বুঝিয়ে দেন দর্শকদের তরফে তাঁদের কাছে কখনও পপ, কখনও রবীন্দ্র সংগীত গাওয়ার যে অনুরোধ আসে তা অন্যায় আবদার। এরপর বয়স নিয়েও চলে হাসি-ঠাট্টা। রঞ্জন নামের ওই ব্যক্তির চেয়ে নিজেকে বয়সে বড় বলে দাবি করে ইন্দ্রানী হালদার বলেন, ‘হিরোইনদের বয়স বাড়ে না, সবসময়ই ২৫ থাকে’। 

এরপর রঞ্জনবাবুর অনুরোধ রাখবার কথা প্রকাশ্যেই জানান তিনি, বলেন ‘ভাই, আমার সঙ্গে আপনিও রবীন্দ্রসংগীতের এককলি গাইবেন। অন্তত জনগণ হলেও গাইবেন’। এরপর রবীন্দ্র সংগীত গাওয়ার অনুরোধ রাখতে গিয়ে দ্বিজেন্দ্রগীতি গেয়ে বসেন ইন্দ্রানী হালদার। ‘ধন ধান্য পুষ্পে ভরা’ গাইলেন অভিনেত্রী। এতেই ট্রোলড হলেন অভিনেত্রী।

ট্রোলিংয়ের শিকার ইন্দ্রানী হালদার
ট্রোলিংয়ের শিকার ইন্দ্রানী হালদার

একজন লিখেছেন, ‘দ্বিজেন্দ্র লাল রায়ের লেখা গানটিকে রবীন্দ্র সঙ্গীত বলে গান গেয়ে বাংলার সংস্কৃতিকে অপমান করলেন এই সবজান্তা অভিনেত্রী'। অপর একজন লেখেন, ‘রবীন্দ্রনাথের মাসতুতো কাকার জেঠতুত দাদার লেখা রবীন্দ্র সংগীত…'। এক নেটিজেন কড়া বার্তা দিয়ে লিখেছেন, ‘ধন ধান্য পুষ্পে ভরা এটা কি রবীন্দ্র সংগীত? আপনার ব্যক্তিত্ব হারিয়ে অতিরিক্ত বাজে বকতে গিয়ে সব ঘেঁটে ঘ করে দিচ্ছেন’। প্রিয় শ্রীময়ীর কাছে এহেন ‘দায়িত্বজ্ঞানহীনতা’ আশা করেনি দর্শক, কমেন্ট বক্সে মন্তব্যে ভরিয়ে দিচ্ছেন তাঁরা। সকলের মুখে এক কথা শুধু রবীন্দ্র সংগীত নয় দ্বিজেন্দ্রগীতিরও অপমান করেছেন ইন্দ্রানী হালদার। 

 

 

 

বন্ধ করুন