বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > মিঠুন চক্রবর্তীর ছেলে হওয়ার যোগ্যতা আছে তাঁর? এতদিনে মুখ খুললেন মিঠুন-পুত্র মিমো

মিঠুন চক্রবর্তীর ছেলে হওয়ার যোগ্যতা আছে তাঁর? এতদিনে মুখ খুললেন মিঠুন-পুত্র মিমো

মিঠুন-মিমো।

২০০৮ সালে 'জিম্মি' ছবির মাশয়মে বলিপাড়ায় অভিনেতা হিসেবে ডেবিউ করেছিলেন মিমো।

অভিনয়ের জগতে পা রাখার পর বহু নিন্দা ও সমালোচনার মুখোমুখি হতে হয়েছেন মিঠুন-পুত্র মিমো চক্রবর্তীকে। এমনও শুনতে হয়েছিল, মিঠুনের ছেলে হওয়ার কোনও যোগ্যতাই তাঁর নেই। একথা আর কেউ নয়, ফাঁস করেছেন মিমো নিজেই।

২০০৮ সালে 'জিম্মি' ছবির মাশয়মে বলিপাড়ায় অভিনেতা হিসেবে ডেবিউ করেছিলেন মিমো। তবে অভিনেতা হিসেবে বক্স অফিসে তাঁর কোনও ছবিই সাফল্যের মুখ সেভাবে দেখেনি। সম্প্রতি, 'অব মাঝে উড়না হ্যায়' নামের একটি ছোট ছবিতে। প্রভাত খবর-কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে মিমো বলেছেন, 'প্রতিনিয়ত নিন্দার শিকার হয়েছি। বার সঙ্গে তুলনা টানা হয়েছে। এই বয়সেও সমানে কাজ করেছেন উনি। একদিকে যেমন ছোটপর্দায় হুনারবাজ নামের রিয়েলিটি শো-এর বিচারকের দায়িত্ব সামলাচ্ছেন অন্যদিকে অ্যামাজন প্রাইম ভিডিয়োতে মুক্তি পেয়েছে ওঁর অভিনীত ওয়েব সিরিজ বেস্টসেলার। এদিকে আবার বড়পর্দায়ও রমরমিয়ে চলছে দ্য কাশ্মীর ফাইলস! সত্যি বলছি, চারবার জন্মালেও মিঠুন চক্রবর্তীর মত হতে পারব না।'

সামান্য থেমে আক্ষেপের সুরে মিঠুন-পুত্রের সংযোজন, 'লোকজন তো মনে করেন মিঠুনের ছেলে হওয়ার কোনও যোগ্যতাই নেই আমার। আমার কথা হল, যদি আমাকে জঘন্য পারফর্মার মনেই করেন আমি আপত্তি করব না। কিন্তু অন্তত আমার কাজ দেখে তার উপর ভিত্তি করে সেসব বলুন। দেখুন না, মিমো কী করতে পারে আর পারে না।' বক্তব্য শেষে তিনি আরও বলেন, 'আমি আজও এসব কথা শুনি। এবার ছোট ভাই নমস্বী ডেবিউ করতে চলেছে। সেও ইতিমধ্যেই ট্রোলিংয়ের মুখোমুখি হচ্ছে। আসলে মিঠুন চক্রবর্তীর মতো এত বড় মাপের অভিনেতার জুতোয় পা গলানো প্রচণ্ড শক্ত কাজ।'

উল্লেখ্য, এই মুহূর্তের মিমো অভিনীত দু'টি ছবি রয়েছে মুক্তির অপেক্ষায়। 'রোষ' এবং 'যোগীরা সারা রা রা।'

বন্ধ করুন