বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > বিয়ের পর কি স্ত্রী' রত্না পাঠকের ধর্ম বদলাতে চেয়েছিলেন নাসিরুদ্দিন?
স্ত্রী রত্নার সঙ্গে নাসিরুদ্দিন শাহ। 
স্ত্রী রত্নার সঙ্গে নাসিরুদ্দিন শাহ। 

বিয়ের পর কি স্ত্রী' রত্না পাঠকের ধর্ম বদলাতে চেয়েছিলেন নাসিরুদ্দিন?

  • রত্না পাঠকের সঙ্গে বিয়ের পর স্ত্রী'র ধর্ম পরিবর্তন করতে চান কি না, সে বিষয়ে অভিনেতার মা জিজ্ঞাসা করেন তাঁকে। মায়ের প্রশ্নের উত্তরে স্পষ্ট না করে দেন নাসিরুদ্দিন।

‘লাভ জিহাদ’ নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন প্রবীন অভিনেতা নাসিরুদ্দিন শাহ। দেশে হিন্দু-মুসলিমদের মধ্যে যে ভেদাভেদ সৃষ্টি হয়েছে এই ‘লাভ জিহাদ’ নিয়ে তা নিয়েই মূলত উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন অভিনেতা। কারওয়ান-ই-মহব্বত ইন্ডিয়ার (Karwan-e-Mohabbat India) সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে ৭০বছর বয়সি প্রবীন অভিনেতা বলেন, ‘উত্তরপ্রদেশে 'লাভ জিহাদ' নামে দুই ধর্মের মানুষের মধ্যে যে বিভেদ করার চেষ্টা চলছে, এতে আমি ক্ষুব্ধ’। 

বিয়ের সময় ধর্মান্তকরণ প্রসঙ্গে অভিনেতা বলেছেন, ‘যারা এই শব্দবন্ধটার সৃষ্টি করেছিল, আমার ধারণা তারা ‘জিহাদ’ কথাটার মানেই জানে না’।  নিজের বিয়ের প্রসঙ্গ টেনে অভিনেতা বলেন, হিন্দু মেয়ের (রত্না পাঠক)সঙ্গে তিনি যখন বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নেন, সেই সময় স্ত্রীর ধর্ম পরিবর্তনের কথা একবারের জন্যও ভাবেননি তিনি। 

অভিনেতার কাছে জানতে চাওয়া হয়েছিল, পাত্রীর ধর্ম পরিবর্তন করা হবে কি না। সঙ্গে সঙ্গে ‘না’ বলে দিয়েছিলেন অভিনেতা। এমনকী, তাঁর মা একজন গোঁড়া মনের মানুষ সত্ত্বেও, রত্নার ধর্ম পরিবর্তনের বিষয়ে একেবারেই রাজি ছিলেন না।  অভিনেতা আরো জানিয়েছেন, ‘আমাদের সন্তানরা সব ধর্মের প্রতি সমানভাবে শ্রদ্ধাশীল। তাদের কখনও কোনও ধর্মের প্রতি বেশি আগ্রহ দেখানো হয়নি। তাই আমার মতে, ধর্ম নিয়ে যে দূরত্ব তৈরি হচ্ছে সমাজে, তা আমাদের এই সম্পর্কের মধ্যে দিয়ে অদৃশ্য হবে’। 

অভিনেতা নাসিরুদ্দিন শাহ আরো জানিয়েছেন, ‘আমার মা, যিনি শিক্ষিত ছিলেন না, খুব রক্ষণশীল পরিবারে বিয়ে করেছিলেন। তিনি পাঁচবার নামাজ পড়তেন, রামজানে উপোস করতেন, হজযাত্রাও করেছিলেন। তবে তিনিও কখনও ধর্মান্তরের কথা বিশ্বাস করতেন না। তিনিও রত্নার ধর্ম পরিবর্তনের বিপক্ষে ছিলেন’। 

পাশাপাশি লাভের মধ্যে জিহাদ কীভাবে এসে হাজির হচ্ছে? প্রশ্ন অভিনেতার। যারা এটা করছেন, তারা নিজেরাও জানেন না জিহাদ মানে কী, বলে মন্তব্য অভিনেতার। 

বন্ধ করুন