বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ‘শাহিনবাগের দাদিকে ১০০ টাকায় ভাড়া পাওয়া যায়’, কঙ্গনার ভুয়ো দাবি ঘিরে শোরগোল
কঙ্গনার ভুয়ো দাবি
কঙ্গনার ভুয়ো দাবি

‘শাহিনবাগের দাদিকে ১০০ টাকায় ভাড়া পাওয়া যায়’, কঙ্গনার ভুয়ো দাবি ঘিরে শোরগোল

  • #DaadiSeMaafiMangKangana-এখন টুইটারে টপ ট্রেন্ড। বক্তব্য ফিরিয়ে নেওয়ার দাবি তুলে সরব নেটনাগরিকরা। 

সোশ্যাল মিডিয়ায় সব বিষয় নিয়ে মন্তব্য করতে পিছপা হন না কঙ্গনা রানাওয়াত। লভ জেহাদ থেকে কৃষকদের প্রতিবাদ- ফিল্মি দুনিয়ার বাইরেও দেশের সব জ্বলন্ত বিষয় নিয়ে নিজের বয়ান দিয়ে থাকেন ‘কুইন’ তারকা। আর এর জেরে হামেশাই বিতর্কের কেন্দ্রবিন্দুতেও উঠে আসেন নায়িকা। এবার কঙ্গনার এক ভুয়ো টুইট ঘিরে শোরগোল টুইটারে। মাইক্রোব্লগিং সাইটে এখন ট্রেন্ডিংয়ে '#DaadiSeMaafiMangKangana', কারণ কৃষক বিলের প্রতিবাদে মাঠে নেমেছেন ৮২ বছরের বৃদ্ধা বিলকিস বানো, যিনি শাহিনবাগের দাদি হিসাবে পরিচিত। এমনই এখন ভুয়ো খবর টুইটারে শেয়ার করেন কঙ্গনা। যেখানে আরও দাবি করা হয় তিনি নাকি দৈনিক হিসেবে ভাড়া দিলেই আজকাল যে কোনও বিক্ষোভে শামিল হচ্ছেন। 

 নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে কঙ্গনা শাহিনবাগের দাদিকে নিয়ে এই ভুয়ো খবর শেয়ার করে লেখেন- ‘হা হা হা, তিনি সেই দাদি যিনি সবচেয়ে শক্তিশালী ভারতীয় মহিলা হিসেবে টাইম ম্যাগাজিনে জায়গা করে নিয়েছিলেন। আর তাঁকে ১০০ টাকাতেই পাওয়া যাচ্ছে। পাকিস্তানি সাংবাদিকরা ভারতের আন্তর্জাতিক জনসংযোগ আধিকারিককে খুব দুঃখজনকভাবে হাইজ্যাক করেছেন। আমরা চাই আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে আমাদের হয়ে আমাদের লোকেরাই কথা বলুন’।

যদিও নিজের ভুল বুঝতে পেরে দ্রুত সেই টুইট মুছে ফেলেন কঙ্গনা। তবে নেটিজেনদের তরফে কঙ্গনাকে ক্ষমা চাইতে বলা হয়।তিনি এমন টুইট করে শাহিনবাগের দাদি ও আন্দোলনরত কৃষকদের অপমান করেছেন,দাবি তাঁদের। ‘অন্নদাতা’ কৃষকদের জন্য কঙ্গনার মনে এতটুকুও শ্রদ্ধা নেই অভিযোগ নেটনাগরিকদের। দেখে নিন টুইটারের বাসিন্দাদের প্রতিক্রিয়া-

বলিউডের পরিবারতন্ত্র নিয়ে সরব কঙ্গনা সম্প্রতি সঞ্জয় দত্তের সঙ্গে ছবি পোস্ট করাতেও টুইটারে ট্রোলড হতে হয়েছে নায়িকাকে। কঙ্গনার দ্বিচারিতায় হতবাক অনেকেই।তবে থেমে নেই অভিনেত্রী। প্রয়াত সংগীত পরিচালক ওয়াজিদ খানের স্ত্রী কমলরুখ খান সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় বিস্ফোরক মন্তব্য করে জানান, ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেননি। সেজন্য বরাবর শ্বশুরবাড়ির তরফে চাপ দেওয়া হয়েছে। স্বামীর মৃত্যুর পরও হেনস্থা অব্যাহত আছে।

সেই সংক্রান্ত খবরও নিজের টুইটারের দেওয়ালে শেয়ার করে ফের একবার ধর্মান্তকরণ-বিরোধী বিলের স্বপক্ষে মুখ খুলেছেন কঙ্গনা।

বন্ধ করুন