বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > বিয়ের দু-মাস পরেই উদ্ধার স্ত্রীর ঝুলন্ত দেহ, গ্রেফতার জনপ্রিয় ইউটিউবার
গ্রেফতার জিতু জান (ছবি-ফেসবুক) 
গ্রেফতার জিতু জান (ছবি-ফেসবুক) 

বিয়ের দু-মাস পরেই উদ্ধার স্ত্রীর ঝুলন্ত দেহ, গ্রেফতার জনপ্রিয় ইউটিউবার

  • মৃত কোমল আগারওয়ালের মা ও বোনের অভিযোগের ভিত্তিতে গ্রেফতার করা হয়েছে জিতু জানকে। 

স্ত্রীকে খুনের অভিযোগে মুম্বই পুলিশের হাতে গ্রেফতার জনপ্রিয় ইউটিউবার। রবিবার গভীর রাতে ভান্দুপ পুলিশ গ্রেফতার করে জিতেন্দ্র ওরফে জিতু জান-কে। তাঁর স্ত্রীর পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে গ্রেফতার করা হয়েছে ইউটিউবারকে। 

পুলিশ জানিয়েছে, মৃত কোমল আগারওয়ালের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে তাঁর বাড়ি থেকেই। ওই বাড়িতে স্বামীর সঙ্গে থাকতেন কোমল। শুরুতে অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু করে তদন্ত শুরু করেছিল পুলিশ। কিন্তু কোমলের মা ও বোনের অভিযোগের ভিত্তিতে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়া, অনিচ্ছাকৃত খুনের মতো ধারায় গ্রেফতার করা হয়েছে জিতু জানকে। ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩০৪,৩২৩,৩০৬ এবং ৫০৬ ধারায় গ্রেফতার হয়েছেন অভিযুক্ত। 

মাস দুয়েকের পরিচয়ের পর চলতি বছর মার্চের ৪ তারিখ জিতু জানের সঙ্গে পালিয়ে যান কোমল। এরপর বিয়ে করেন দুজনে। জিতুর সঙ্গে কোমলের বিয়েতে সায় ছিল না পরিবারের। বিয়ের পর থেকে প্রতিদিনই ঘরের কাজকর্ম করা নিয়ে জিতেন্দ্র অত্যাচার করত স্ত্রীর উপর অভিযোগ কোমলের মা শিলা পাঠকের।

কোমলের মা ও বোনের অভিযোগ, জিতেন্দ্রর নির্যাতনের কথা বোন প্রিয়াকে জানানোয় কোমলের সঙ্গে বাড়ির লোকের যোগাযোগ বন্ধ করে দিয়েছিল অভিযুক্ত। প্রিয়া বলেন, ‘জিতেন্দ্র ওর উপর অনেক অত্যচার করেছে, এটা একেবারেই অসম্ভব নয় যে কোমলকে ও মেরে ফেলেছে’। 

কোমলের মা শিলা পাঠকজানান, গত ২৭ শে মে কোমলের মৃত্যুর কথা জানতে পারেন তিনি। ভান্দুপ পুলিশের তরফে তাঁদের ফোন করে জানানো হয় গলায় 'ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা' করেছেন কোমল। 

পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে আপাতত এই মামলার তদন্ত চলছে। ময়নাতদন্তের চূড়ান্ত রিপোর্টের অপেক্ষায় রয়েছে মুম্বই পুলিশ। তারপরই স্পষ্ট হবে কোমল আত্মহত্যা করেছেন নাকি এই মামলার মধ্যে কোনও ফাউল প্লে জড়িত রয়েছে। 

বন্ধ করুন