বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Prosenjit-Piyali: ‘তোমার কাছে আসা,মেয়ের কাছে আসা একই তো', এভারেস্টজয়ী পিয়ালির বাড়িতে প্রসেনজিৎ
আপ্লুত পিয়ালি

Prosenjit-Piyali: ‘তোমার কাছে আসা,মেয়ের কাছে আসা একই তো', এভারেস্টজয়ী পিয়ালির বাড়িতে প্রসেনজিৎ

  • ‘তুমি হচ্ছো বাংলার সবচেয়ে বড় খুকু’, পিয়ালিকে বললেন প্রসেনজিৎ। প্রিয় নায়ককে আচমকা দেখে আপ্লুত পিয়ালি। 

গত মাসেই অসাধ্য সাধন করেছেন হুগলির চন্দননগরের মেয়ে পিয়ালি বসাক। প্রায় কোনওরকম কৃত্রিম অক্সিজেন ছাড়া বিশ্বের সর্বোচ্চ শৃঙ্গ জয় করে নজির গড়েছেন বাংলার এই মেয়ে। তাঁকে নিয়ে গর্বিত ভারত, গর্বিত বাংলা। মঙ্গলবার এই ধন্যি মেয়ের বাড়িতে আচমকা পা দিলেন ‘ইন্ডাস্ট্রি’ প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়। হাজারো ব্যস্ততার মাঝে পিয়ালির চন্দননগরের বাড়িতে হাজির বুম্বাদা। 

খবর ছড়িয়ে পড়তেই পিয়ালির বাড়ির সামনে জনসমুদ্র। পিয়ালির জানা নেই পর্দার নায়ক তাঁর বাড়িতে আসবেন, তিনি তো হতবাক চোখের সামনে প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়কে দেখে। এদিন পিয়ালিকে দেখে রুপোলি পর্দার নায়ক বললেন, ‘তোমার কাছে আসা মানেই তো মেয়ের কাছে আসা’। এখানেই কোথাউ গিয়ে মিলে গেল রিল আর রিয়েল। সামনেই মুক্তি পেতে চলেছে প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় অভিনীত ‘আয় খুকু আয়’। সেই ছবির প্রচারের ব্যস্ততার ফাঁকেই এভারেস্টজয়ী পিয়ালির বাড়িতে হাজির প্রসেনজিৎ। তিনি আরও জানান, 'পিয়ালি বাস্তবের একজন যোদ্ধা। আমাদের ছবি রিলিজ করছে বাবা মেয়েকে নিয়ে। তুমি হচ্ছো বাংলার সবচেয়ে বড় খুকু। সেজন্য ভাবলাম ছবি রিলিজের আগে তোমার সঙ্গে দেখা করব।'

প্রসেনজিৎ-কে ছবির জন্য পালটা শুভেচ্ছা জানাতে ভোলেননি পিয়ালি। পিয়ালির লড়াই, তাঁর জীবনযুদ্ধ বাংলার মেয়েদের অনুপ্রেরণা জোগাবে বিশ্বাসী বুম্বাদা। বছর ৩১-এর পিয়ালি চন্দননগর কানাইলাল প্রাথমিক বিদ্যামন্দিরের প্যারা টিচার হিসাবে কাজ করেন। তিনি ভারতের সম্ভাব্য প্রথম মহিলা যিনি কৃত্রিম অক্সিজেন ছাড়া এভারেস্ট জয় করেছেন। বাবা-মা অসুস্থ, সবরকম আর্থিক প্রতিকূলতাকে পেরিয়ে এভারেস্টের চূড়ায় উঠেছে সে। 

শৌভিক কুণ্ডু পরিচালিত ‘আয় খুকু আয়’ ছবিতে মুখ্য চরিত্রে প্রসেনজিৎ ছাড়াও দেখা মিলবে দিতিপ্রিয়া রায়ের। ছবিতে প্রসেনজিৎ-পত্নীর ভূমিকায় ক্যামিও রোলে রয়েছেন মিথিলা। ১৭ জুন বড় পর্দায় মুক্তি পেতে চলেছে বাবা-মেয়ের গল্প নিয়ে ছবি 'আয় খুকু আয়'।

 

বন্ধ করুন