৮৮ বছর বয়সে প্রয়াত মরাঠি অভিনেতা জয়ারাম কুলকার্নি
৮৮ বছর বয়সে প্রয়াত মরাঠি অভিনেতা জয়ারাম কুলকার্নি

চলে গেলেন মরাঠি অভিনেতা জয়রাম কুলকার্নি

  • করোনা প্রকোপে কার্যত থমকে গিয়েছে মহারাষ্ট্র। বন্ধ শ্যুটিং থেকে সিনেমা হল। এর মাঝে মঙ্গলবার সকালে এল দুঃসংবাদ। চলে গেলেন মরাঠি ছবির বর্ষীয়ান অভিনেতা জয়রাম কুলকার্নি।

প্রয়াত জনপ্রিয় মরাঠি অভিনেতা জয়রাম কুলকার্নি। মঙ্গলবার সকালে পুণেতে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন অভিনেতা। বয়স হয়েছিল ৮৮ বছর। দীর্ঘদিন ধরেই বার্ধক্যজনিত সমস্যায় ভুগছিলেন কুলকার্নি। তিনি রেখে গেলেন পত্নী হেমা, পুত্র রুচির এবং পুত্রবধূ অভিনেত্রী ম্রুনাল কুলকার্নিকে।

সোলাপুরের বারশিতে জন্ম এই অভিনেতার। স্কুলজীবন থেকেই অভিনয়ের প্রতি গভীর আগ্রহ ছিল জয়রাম কুলকার্নির। পুনের এস পি কলেজে পড়বার সময় অভিনেতা শ্রীকান্ত মোঘে এবং শারাদ তালওয়ালকারের নজরে আসেন তিনি। এরপর কলেজ জীবনেই নিয়মিত মঞ্চ অভিনয় শুরু করেন।

১৯৫৬ সালে অল ইন্ডিয়া রেডিওয় কাজ করা শুরু করেন। চলচ্চিত্রের দুনিয়ায় জয়রাম কুলকার্নির প্রবেশ সত্তরের দশকে। ছবিতে কাজ করবার জন্য AIR-এর মোটা মাইনের চাকরি ছাড়তেও কুন্ঠবোধ করেননি ছবি পাগল এই মানুষটি। 'গম্মত জাম্মত', 'দে দনাদন', 'নভরি মিলে নভ্যাল্যা', 'ঝাপাটালে', 'আমচে সারাখে আমিচ'-এর মতো একাধিক ছবিতে নিজের অভিনয় দক্ষতার ছাপ রেখে গিয়েছেন তিনি।

তাঁর মৃত্যু শুধু মরাঠি নয় ভারতীয় চলচ্চিত্রে এক অপূরণীয় ক্ষতি। ১৫০টির বেশি ছবিতে অভিনয় করেছেন জয়রাম কুলকার্নি। তাঁর মৃত্যুতে শোকের ছায়া মরাঠি ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে।




বন্ধ করুন