বাড়ি > বায়োস্কোপ > Sushant Death Case: দিদি প্রিয়াঙ্কাকে ‘পুরো শয়তান’ বলেছিলেন সুশান্ত, নয়া স্ক্রিনশটে দাবি রিয়ার
যত প্যাঁচে পড়ছেন, তত 'প্রমাণ' দেখাতে মরিয়া হয়ে উঠছেন রিয়া (ছবি সৌজন্য ইনস্টাগ্রাম ও হিন্দুস্তান টাইমস)
যত প্যাঁচে পড়ছেন, তত 'প্রমাণ' দেখাতে মরিয়া হয়ে উঠছেন রিয়া (ছবি সৌজন্য ইনস্টাগ্রাম ও হিন্দুস্তান টাইমস)

Sushant Death Case: দিদি প্রিয়াঙ্কাকে ‘পুরো শয়তান’ বলেছিলেন সুশান্ত, নয়া স্ক্রিনশটে দাবি রিয়ার

  • রিয়ার দাবি, সুশান্ত নাকি মেসেজে বলেছিলেন যে দিদি প্রিয়াঙ্কা মায়ের শিক্ষা মেনে এগোননি।

যত প্যাঁচে পড়ছেন, তত 'প্রমাণ' দেখাতে মরিয়া হয়ে উঠছেন। ইতিমধ্যে ডায়েরি দেখিয়ে দাবি করছেন, সুশান্ত সিং রাজপুত তাঁকে 'কৃতজ্ঞতা' জানিয়েছিলেন। এবার আবার হোয়্যাটসঅ্যাপে কথোপকথনের স্ক্রিনশট শেয়ার করে রিয়া চক্রবর্তী দাবি করলেন, অভিযুক্ত অভিনেত্রীর সঙ্গে নিজের দিদি প্রিয়াঙ্কার ‘ব্যবহার’ নিয়ে নাকি ‘উদ্বেগ’ প্রকাশ করেছিলেন সুশান্ত।

একটি সর্বভারতীয় সংবামাধ্যমে সেই কথোপকথনের স্ক্রিনশট দিয়ে রিয়া দাবি করেছেন, সুশান্ত মনে করতেন যে তাঁর ‘বন্ধু’ ও ফ্ল্যাটমেট সিদ্ধার্থ পিঠানিকে ভুল বোঝাচ্ছেন প্রিয়াঙ্কা। অভিযুক্ত অভিনেত্রীর শেয়ার করা স্ক্রিনশট অনুযায়ী, আগেরবারের মতোই কথোপকথনের শুরুতেই রিয়ার পরিবারের ‘প্রশংসা’ করেছেন সুশান্ত। সেই স্ক্রিনশট অনুযায়ী সুশান্ত বলেছেন, ‘তোমার পরিবার অসাধারণ। শৌভিক (রিয়ার ভাই) দয়াশীল এবং তুমিও, যে আমার, বিশ্বে অনিবার্য পরিবর্তন ও অবকাশের (বড়) কারণ তুমি। তোমাদের আশপাশে থাকতে পারাটা আমার কাছে অত্যন্ত আনন্দের। রকস্টার হওয়ার জন্য চিয়ার্স, আমার বন্ধু। তুমি দয়া করে এবার হেসে দাও। সেভাবে তোমায় দুর্দান্ত লাগে। আমি এখন ঘুমানোর চেষ্টা করব। আমি যদি জামিলার মতো স্বপ্ন দেখতাম। সেটা দারুণ হত না? বাই।’

রিয়ার দাবি, নিজের দিদিকে নাকি ‘পুরো শয়তান’ বলেছিলেন সুশান্ত। তাঁর দিদি ‘সিড ভাই’-কে ভুল বোঝাচ্ছেন বলেও নাকি সুশান্ত জানিয়েছিলেন বলে দাবি রিয়ার। অভিযুক্ত অভিনেত্রীর স্ক্রিনশট অনুযায়ী, (যে স্ক্রিনশটের সত্যতা যাচাই করেনি ‘হিন্দুস্তান টাইমস বাংলা’) সুশান্ত লিখেছেন, ('দিদি প্রিয়াঙ্কা'-কে ) ‘একটা লজ্জাজনক কাণ্ডের পর তুমি এটা কর, মদ্যপান করে হেনস্থার মতো একেবারে অমার্জনীয় কাজ করে বিষয়টি ধামাচাপা দিতে ভিক্টিম কার্ড খেলে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা কর।’ 

রিয়ার দাবি, সুশান্ত নাকি মেসেজে বলেছিলেন যে দিদি প্রিয়াঙ্কা মায়ের শিক্ষা মেনে এগোননি। সুশান্ত লিখেছিলেন (রিয়ার দেখানো স্ক্রিনশট অনুযায়ী), ‘তুমি যদি নিজের ইগোর জন্য অন্ধ হয়ে যাও, ভগবান তোমার মঙ্গল করুক, কারণ আমি ভীত নই এবং বিশ্বে প্রয়োজনীয় পরিবর্তন আনার ক্ষেত্রে এখনও পর্যন্ত যে কাজ করেছি, তা করতে থাকব। এখনও কোন কাজ ঠিক, তা ভগবান এবং প্রকৃতির উপর ছেড়ে দেওয়া হোক।’ পরে ‘সিড ভাই’-কে একটি মেসেজে সুশান্ত নাকি লিখেছিলেন, ‘আমি দেখেছি, ও (রিয়ার দাবি মতো প্রিয়াঙ্কা) তোমায় আমার চোখের সামনে মেরেছিল।’ ‘সিড ভাই’ বলতে খুব সম্ভবত সিদ্ধার্থ পিঠানিকে বোঝানো হয়েছে। সুশান্তের মৃত্যুর পর থেকে যাঁর ভূমিকা নিয়ে একাধিক প্রশ্ন উঠেছে।

যদিও ইতিমধ্যে এটি বিনোদনমূলক সাইটে সুশান্তের আইনজীবী পালটা জানিয়েছেন, দিদি-ভাইয়ের মধ্যে সম্পর্ক নষ্ট করতে প্রিয়াঙ্কার বিরুদ্ধে হেনস্থার অভিযোগ তুলেছিলেন রিয়া। তার জেরে প্রাথমিকভাবে সুশান্ত ও প্রিয়াঙ্কার মধ্য়ে সম্পর্কে কিছুটা প্রভাব পড়েছিল। কয়েকদিন পর অবশ্য বিষয়টি মিটিয়ে নেয় দিদি ও ভাই এবং পুরোটাই রিয়ার ‘মাইন্ড গেম’ ছিল। সুশান্তের তরফে আইনজীবী বলেন, ‘উনি (সুশান্ত) নিজের ভুল বুঝতে পারেন যে দিদি ও ভাইকে আলাদা করে দেওয়ার জন্য কিছু সময়ের মধ্যেই রিয়া মাইন্ড গেম শুরু করেছিলেন। যাঁরা অবিচ্ছেদ্য ছিলেন এবং একে অপরকে সবথেকে বেশি মানসিক জোগাতেন।’

বন্ধ করুন