বাড়ি > বায়োস্কোপ > 'সুশান্তের কোনও জীবনবিমা ছিল না, মিথ্যা প্রচার বন্ধ করুন', জানালেন বিকাশ সিং
সুশান্ত সিং রাজপুত 
সুশান্ত সিং রাজপুত 

'সুশান্তের কোনও জীবনবিমা ছিল না, মিথ্যা প্রচার বন্ধ করুন', জানালেন বিকাশ সিং

  • জীবন বিমার টাকা পাওয়ার জন্য পরিবারের তরফে সুশান্তের আত্মহত্যাকে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার মামলা বা খুনের ঘটনা প্রমাণের চেষ্টা করা হচ্ছে, টিম রিয়ার তরফে উঠা এই অভিযোগের জবাব দিলেন কেকে সিংয়ের আইনজীবী। 

সুশান্ত সিং রাজপুতের পরিবারের বিরুদ্ধে ভুয়ো ক্যাম্পেন চালানো হচ্ছে, তাঁদের মানহানির চেষ্টা চলছে- বুধবার সন্ধ্যায় সাংবাদিক বৈঠকে এমনই বিস্ফোরক মন্তব্য করেছেন সুশান্তের বাবার আইনজীবী বিকাশ সিং। বুধবার সকালেই সুশান্তের তিন দিদি, কেকে সিংয়ের আইনজীবী বিকাশ সিংয়ের সঙ্গে দেখা করেন। এরপর সন্ধ্যায় পরিবারের বিরুদ্ধে উঠা নানা অভিযোগের জবাব দিলেন বিকাশ সিং। 

সুপ্রিম কোর্টের এই সিনিয়র আইনজীবী জানান, জীবন বিমার টাকা পাওয়ার জন্য পরিবারের তরফে সুশান্তের আত্মহত্যার মামলাকে পরিবার আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়া বা খুনের মামলা বলে প্রমাণের চেষ্টা চালাচ্ছে, এমন দাবি যাঁরা করছে বা যেসব মিডিয়ায় এগুলি প্রচার করা হচ্ছে তা নিয়ে হতবাক পরিবার। বিকাশ সিং বলেন,সুশান্তের কোনও জীবন বিমা ছিল না, এটা সেই সব সংবাদমাধ্যমকে জানিয়ে দিতে চান তিনি।

দু-দিন আগেই রিয়া চক্রবর্তীর আইনজীবী সতীশ মানেসিন্ধে সিএনএন নিউজএইটিনকে জানান, ‘যদি একজন ব্যক্তির একটা বিশাল অঙ্কের জীবন বিমা থাকে, তাহলে কি তাঁর মৃত্যুকে আত্মহত্যা বলা যায় ? নাকি পলিসির লাভ উঠবার অন্য কোনও রাস্তা রয়েছে? ওই বাড়িতে যাঁরা থাকছিল তাঁরা বলেছে পরিবারকে সবটা জানানো হয়েছিল। দরজা ভাঙার আগে থেকে যখন ভেঙে ভিতরে ঢোকা হয়েছে, আইপিএস ওপি সিং নিজে সমস্ত নির্দেশ দিচ্ছিলেন। ওঁনার পরিবার সব জানত’।

সুশান্তের বাবার আইনজীবী আরও বলেন, গোটা পরিবার মারাত্মকভাবে মর্মাহত যেরকমভাবে মিথ্যা ক্যাম্পেনের দ্বারা সুশান্তের পরিবারের বিরুদ্ধে প্রচার চালাচ্ছে মিডিয়ার একটা নির্দিষ্ট অংশ। সুশান্তের মানসিক স্বাস্থ্য নিয়েও যেভাবে কাঁটা ছেড়া চলছে তাতে সদ্য ছেলে বা ভাইকে হারানো পরিবারের যন্ত্রণা আরও বেড়ে যাচ্ছে। সুশান্তের পরিবারের বিরুদ্ধে মিথ্যা প্রচার করছে যে সব সংবাদমাধ্যম তাঁদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার বার্তাও এদিন দিয়ে রাখলেন বিকাশ সিং।

সুশান্তের মৃত্যুর জন্য রিয়ার দিকে অভিযোগের আঙুল তুলে গত ২৫ জুলাই বিহারের রাজীব নগর থানায় এফআইআর দায়ের করেছিলেন সুশান্তের বাবা কেকে সিং। সুশান্তকে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়া, তাঁর সঙ্গে আর্থিক ও মানসিক প্রতারণা করার অভিযোগ আনা হয়েছে রিয়া ও তাঁর পরিবার এবং ম্যানেজার শ্রুতি মোদী এবং সুশান্তের হাউজ ম্যানেজার স্যামুয়েল মিরান্ডার বিরুদ্ধে।

আপতত সিবিআই, ইডি, এবং নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো সুশান্তের মৃত্যু মামলার তদন্ত চালাচ্ছে।

বন্ধ করুন