করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে জিতে গেলেন অভিনেতা টম হ্যাঙ্কস (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)
করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে জিতে গেলেন অভিনেতা টম হ্যাঙ্কস (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)

পুরোপুরি সুস্থ 'করোনাভাইরাস আক্রান্ত' হলিউড তারকা টম হ্যাঙ্কস ও পত্নী রীটা উইলসন

  • হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হল টম হ্যাঙ্কস ও রীটা উইলসনকে। তবে আগামী দু সপ্তাহ গৃহবন্দী থাকতে হবে দুজনকে।

করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে জিতে গেলেন অভিনেতা টম হ্যাঙ্কস। হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হল এই তারকা ও তাঁর পত্নী রীটা উইলসনকে । করোনাভাইরাস সংক্রমণের জন্য অস্ট্রেলিয়ার একটি হাসপাতালে গত সপ্তাহ থেকে আইসোলেশনে রাখা হয়েছিল টম হ্যাঙ্কস ও তাঁর স্ত্রী রীটা উইলসনকে।

এলভিস প্রিসলির বায়োপিকের শ্যুটিংয়ে ব্রিসব্রেনে হাজির হয়েছিলেন অস্কারজয়ী এই অভিনেতা। কিন্তু অস্ট্রেলিয়ায় পৌঁছানোর পরেই করোনার উপসর্গ দেখা যায় ৬৩ বছর বসয়ী এই অভিনেতা ও তাঁর স্ত্রীর শরীরে। এরপর তাঁদের শরীরে মেলে COVID-19 ভাইরাস।

গত বৃহস্পতিবার ইনস্টাগ্রামে নিজেই করোনাভাইরাসের শিকার হওয়ার কথা জানিয়েছিলেন হলিউড অভিনেতা।

টম হ্যাঙ্কস ও তাঁর পত্নীর সুস্থ হয়ে ঘরে ফেরার খবর নিশ্চিত করেছেন তাঁদের পুত্র শেট হ্যাঙ্কস। তিনি লেখেন, 'আমার বাবা-মাকে নিয়ে আপটেড আপনাদের জানিয়েদি, তাঁদের হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। অবশ্যই তাঁরা সেলফ কোয়ারান্টাইনে থাকবেন কিন্তু এখন তাঁরা অনেক ভালো আছেন'।

হ্যাঁ, হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেলেও আগামী দুসপ্তাহ গৃহবন্দী থাকতে হবে টম হ্যাঙ্কস ও তাঁর পত্নী রীটা উইলসনকে।


মনে করা হচ্ছে কুইন্সল্যান্ডের গোল্ড কোস্টের পেন্ট হাউসেই আপতত গৃহবন্দী থাকবেন টম হ্যাঙ্কস ও রীট উইলসন। এলভিস প্রিসলির বায়োপিকে, এলভিসের দীর্ঘদিনের ম্যানেজার কোলোনেল টম পার্কারের চরিত্রে অভিনয় করছেন ফরেস্ট গাম্প অভিনেতা।

টম হ্যাঙ্কস সুস্থ হয়ে ফিরলেও সোমবার হলিউড অভিনেত্রী ওলগা কুরলেনকো এবং ব্রিটিশ অভিনেতা ইদ্রিস এলবার নোভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার খবর প্রকাশ্যে এসেছে।


বন্ধ করুন