বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > বিয়ের পর শ্বশুরবাড়িতে তৃণার প্রথম পুজো, কেমন কাটলো ‘গুনগুন’-এর বাণীবন্দনা?
তৃনীলের বাণীবন্দনা
তৃনীলের বাণীবন্দনা

বিয়ের পর শ্বশুরবাড়িতে তৃণার প্রথম পুজো, কেমন কাটলো ‘গুনগুন’-এর বাণীবন্দনা?

  • বাড়ির পুজোর দায়িত্ব সামলে শ্যুটিং-এর কলটাইম। বাস্তবেও লক্ষ্মীমন্ত বউমা তৃণা। 

সদ্যই বিয়ের পর্ব মিটেছে। এখনও ঘোর কাটিয়ে উঠতে পারেননি নীল-তৃণা। তবে কাজ বড়ো বালাই, তাই বিয়ের দু-দিন পরেই শ্যুটিংয়ে ফিরেছেন এই তারকা দম্পতি। ভ্যালেন্টাইনস ডে-র দিন বসেছিল তৃনীলের রাজকীয় রিসেপশনের আসর। আর ঠিক তার দু-দিন পরেই বাঙালির ভ্যালেন্টাইনস ডে মানে সরস্বতী পুজো। বিয়ের পর শ্বশুরবাড়িতে তৃণার পুজো, নীলের বাড়ি প্রতি বছরই পূজিত হন বিদ্যারদেবী। এবারও ছেদ পরেনি সেই নিয়মে। তবে শ্যুটিং থেকে আজ ছুটি পাননি নতুন বউ। অগত্যা সকাল সকাল দায়িত্বশীল বউমার কর্তব্য পালন করে কলটাইম মেনে দৌড়েছেন ‘খড়কুটো’র শ্যুটিংয়ে। 

অভিনেত্রীর কথায়, এদিন সকালে উঠে হাতে হাতে পুজোর জোগাড়ে সাহায্য করেছেন, বাড়িতে খিচুড়ি ভোগ রান্না হয়েছে। সেই কাজেও অল্প সাহায্য করেছেন তিনি, কিন্তু শাশুড়িমা এখনই নতুন বউকে আগুনের ধারেকাছে ঘেঁসতে দেননা। পুজোর অঞ্জলি দিয়ে শ্যুটিংয়ে গিয়েছেন তৃণা। 

এদিন নীলের সঙ্গে একটি মিষ্টি ছবি ইনস্টাগ্রামের দেওয়ালে পোস্ট করেন অভিনেত্রী। লেখেন, 'সকলকে সরস্বতী পুজোর অনেক শুভেচ্ছা। বাঙালির ভ্যালেন্টাইনস ডে-র দিন সবার কী প্ল্যান রয়েছে?

স্টুডিও পাড়ায় সরস্বতী পুজোর আবহেই শ্যুটিং সেরে সন্ধ্যায় ফের একসঙ্গে সময় কাটালেন নীল-তৃণা। খড়কুটো পরিবারের কাণ্ডারী লীনা গঙ্গোপাধ্যায়ের বাড়িতে পুজো রয়েছে, নীলের পাড়াতেও ঘটা করে সরস্বতী পুজো সেলিব্রেট করা হয়। এছাড়াও বেশ কিছু বন্ধুদের বাড়িতে সরস্বতী পুজোর নিমন্ত্রণ রয়েছে। সব জায়গাতেই যাওয়ার চেষ্টা করবেন তৃণা। পর্দার মতো বাস্তব জীবনেও লক্ষ্মী বউমা তৃণা। 

বন্ধ করুন