বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > মিথ্যের মাঝেও যে সত্যি লুকিয়ে থাকে! সম্পর্কের সেই গল্পই বলবে ‘অল্প হলেও সত্যি’
‘অল্প হলেও সত্যি’ (ছবি ফেসবুক)
‘অল্প হলেও সত্যি’ (ছবি ফেসবুক)

মিথ্যের মাঝেও যে সত্যি লুকিয়ে থাকে! সম্পর্কের সেই গল্পই বলবে ‘অল্প হলেও সত্যি’

  • প্রথমবার রুপোলি পর্দায় জুটিতে দেখা যাবে সৌরভ দাস ও দর্শনা বনিককে। পুজোর পরই প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাবে এই ছবি। 

ওটিটির পরিবর্তে বড় পর্দায় আসছে সৌরভ-দর্শনার ‘অল্প হলেও সত্যি’। প্রথমবার রুপোলি পর্দায় জুটিতে দেখা যাবে সৌরভ দাস ও দর্শনা বনিককে। কিছুদিন আগেই প্রযোজনা সংস্থার তরফ থেকে চমক দেওয়া হয়। ওটিটির পরিবর্তে সিনেমা হলে মুক্তি পাবে পরিচালক হিসেবে সৌমজিৎ আদকের ছবি। 

এই ছবির মাধ্যমেই পরিচালক হিসেবে বড় পর্দায় ডেবিউ করতে চলেছেন সৌম্যজিৎ। কিছুদিন আগেই মুক্তি পেয়েছিল ছবির লোগো পোস্টার। পুজোর পরই রুপোলি পর্দায় মুক্তি পেতে চলেছে ‘অল্প হলেও সত্যি’। ছবি সম্পর্কে কথা বলতে গিয়ে পরিচালক সৌম্যজিৎ আদক হিন্দুস্তান টাইমস বাংলাকে জানিয়েছেন, ‘শ্যুটিংয়ের আগে মূলত মে মাসে প্ল্যানিং শুরু হয় প্রোজেক্টের। করোনার দ্বিতীয় ঢেউ, তখন সিনেমা হল বন্ধ ছিল। ফলে প্রযোজকদের মাথায় চিন্তাভাবনা আসে। কাজটা তো মুক্তি দিতে হবে। সেই কারণে তখন ওটিটিতে মুক্তির পরিকল্পনা করা হয়’। 

এরপরই ছবির শ্যুটিং শুরু হয়। পরিচালকের কথায়, ‘শ্যুটিং চলাকালীন বারবারই সকলের মনে হতে থাকে এটা ওটিটি নয়, সিনেমা হলে দর্শকদের দেখানো উচিত। শ্যুটিং চলাকালীনও সিনেমা হল বন্ধ ছিল। ছবি শ্যুটিং শেষে যখন পোস্ট প্রোডাকশনের কাজ শুরু হয়, তখন সরকার থেকে সিনমা হল খোলার অনুমতি পেতেই প্রযোজকরা সাহস করে সিনেমা হলে মুক্তির পরিকল্পনা করেন। এরপর টিভি এবং ওটিটিতে তো দর্শক অবশ্যই দেখতে পাবে’।

অভিনেতা সৌরভ দাস, পরিচালক সৌম্য়জিৎ আদক এবং প্রযোজক অঙ্কিত দাস এবং সুরেশ তোলানি
অভিনেতা সৌরভ দাস, পরিচালক সৌম্য়জিৎ আদক এবং প্রযোজক অঙ্কিত দাস এবং সুরেশ তোলানি

ছবির গল্প সম্পর্কে বলতে গিয়ে তিনি জানিয়েছেন, ‘এটা একটা সম্পর্কের ড্রামা। ছবির নাম 'অল্প হলেও সত্যি'র নামের মতোই, আমরা জীবনে অনেক মিথ্যে কথা বলি। নিজের ঘনিষ্ঠ মা-বাবা, গার্লফ্রেন্ড বা স্ত্রীকে হোক; যেই মিথ্যেগুলো বলি, সেগুলো কোনও একটা সত্যিকে বাঁচিয়ে রাখার জন্য বলি। আমার কাউকে ভালোবাসি, তাঁকে যেন না হারাই তাইজন্য মিথ্যে কথা বলছি। অতগুলো মিথ্যের পিছনে ভালোবাসাটা কিন্তু সত্যি। সেই সত্যির গল্প নিয়েই এই ছবি। অতগুলো মিথ্যের মাঝেও যে সত্যি লুকিয়ে থাকে, সেই গল্পগুলোই উঠে আসবে ছবিতে'।

পরিচালকের কথায়, ‘এখানে চারজন চরিত্র সৌরভ, ঋষভ, দর্শনা, সৃজনী তাঁরা নিজেদের জীবনে একটা সময় পর একে অপরের সঙ্গী কীভাবে সংযোগ হয়, কীভাবে একে অপরকে আরও সাহয্য় করে নিজের জীবনটাকে এগিয়ে নিয়ে যেতে; সবাই সবার পাশে কীভাবে দাঁড়ায় সেই গল্পই হচ্ছে- অল্প হলেও সত্যি। জীবনের ইতিবাচক দিকগুলো নিয়েই ছবির গল্প। ছবির কাজও সকলের সঙ্গে খুব মসৃণ ভাবে হয়েছে'। আগামী ৬ অক্টোবর রুপ প্রোডাকশন এবং এন্টারটেইনমেন্টের ব্যানারে মুক্তি পাবে ছবির টিজার। পুজোর আগেই ছবি মুক্তির দিনক্ষণ ঘোষণার কথা রয়েছে।

‘অল্প হলেও সত্যি’র লোগো
‘অল্প হলেও সত্যি’র লোগো

এই গল্পের কেন্দ্রে রয়েছে চারটি চরিত্র- অর্জুন (সৌরভ), সিদ্ধার্থ (ঋষভ), অমৃতা (দর্শনা) ও গুঞ্জন (সৃজনী)। সিদ্ধার্থর সঙ্গে বিয়ের পাকা কথা হয়ে গিয়েছে গুঞ্জনের সঙ্গে। কিন্তু পাত্রকে যাচাই করতে দু'তিন মাস সিদ্ধার্থর সঙ্গে লিভ-ইন করতে চায় গুঞ্জন । ওদিকে একসময়ের দাপুটে ছাত্রনেতা অর্জুন এখন ক্যানসার আক্রান্ত। আর্থিক অনটনের মধ্যে দিয়ে যেতে হচ্ছে এই দুরারোগ্য ব্যাধির সঙ্গে লড়াই করা অর্জুনকে। তাঁর ভাড়াটে শুভেন্দুবাবুর মেয়ে অমৃতা পেশায় নার্স। মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়া অর্জুনের দেখভালের দায়িত্ব নেয় সে। 

কিন্তু গল্পের সবচেয়ে বড় টুইস্ট হল গুঞ্জনের একসময়ের ক্রাশ ছিল অর্জুন, অন্যদিকে সিদ্ধার্থের প্রাক্তন ভালোবাসা অমৃতা। পুরোনো প্রেমের সঙ্গে দেখা হওয়ার পর কী ঘটবে, পালটে যাবে সম্পর্কের সমীকরণ? তা উঠে আসবে 'অল্প হলেও সত্যি'-তে।

 

 

বন্ধ করুন