বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > June-Mamata: প্রিয় পাত্রী জুনকে পুজোর উপহার দিলেন ‘দিদি’, মমতার ভালোবাসায় আপ্লুত তারকা বিধায়ক

June-Mamata: প্রিয় পাত্রী জুনকে পুজোর উপহার দিলেন ‘দিদি’, মমতার ভালোবাসায় আপ্লুত তারকা বিধায়ক

উপহার পেলেন জুন

June Maliah-Mamata Banerjee: দুর্গাপুজোর প্রথম উপহার এল মুখ্যমন্ত্রীর তরফে, খুশিতে ডগমগ অভিনেত্রী-বিধায়ক জুন মালিয়া। 

সামনেই দুর্গাপুজো। কাউন্টডাউন শুরু হয়ে গিয়েছে। আর মেয়েদের কাছে পুজো মানেই তো দেদার শপিং। পছন্দের শাড়িটা সবার আগে কিনে ফেলা, তা সেলেব হোক আর আম জনতা- ছবিটা সব বাড়িতেই এক। পুজোর প্রস্তুতির রেশ জমিয়ে চোখে পড়ছে টলিপাড়ায়। এই সময়ে হাতে গরম গরম উপহার পেয়ে গেলেন অভিনেত্রী তথা তৃণমূলের মেদিনীপুরের বিধায়ক জুন মালিয়া। আর এই দামী উপহার এল স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছ থেকে।

মেদিনীপুরের বিধায়ক জুন বরাবরই দিদির প্রিয় পাত্রী। পুজোর আগে নিজের কাছের মানুষদের উপহারে ভরিয়ে দেন মমতা। সেইমতো জুনের কাছে পৌঁছে গিয়েছে পুজোর গিফট। এই বছর এটাই অভিনেত্রীর পাওয়া প্রথম পুজোর উপহার। আপ্লুত হয়ে মমতার দেওয়া উপহারের ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছেন জুন মালিয়া।

জুনকে দুটি শাড়ি উপহার দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রথমটি তুঁতে রঙা হ্যান্ডলুম শাড়ি, অন্যটি ভারী সিল্কের সাবেকি শাড়ি। স্লেট রঙের শাড়িতে লাল পাড় আর সোনালি জরির কাজ, ছোটপর্দার ঋদ্ধিমানের মা-কে এই শাড়িতে দুর্দান্ত মানাবে তা বলাই বাহুল্য, সঙ্গে রয়েছে একটি কুর্তাও। সেটি খুব সম্ভবত জুনের স্বামীর জন্য পাঠিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। জুনের পছন্দের খেয়াল রেখেই এই শাড়ি নির্বাচন হয়েছে তা বলাই বাহুল্য।

এই ছবি শেয়ার করে জুন লিখেছেন, ‘এই বারের পুজোর প্রথম উপহার। জানান দিচ্ছে কৈলাশ থেকে মা আসছেন! দুগ্গা দুগ্গা! ধন্যবাদ দিদিকে সবসময় এতটা আপন করে নেওয়ার জন্য! ’

মুখ্যমন্ত্রীর কাছ থেকে এমন উপহার পেয়ে যারপরনাই খুশি জুন, তা স্পষ্ট এই টুইটে। গত বছরও জুন ও তাঁর স্বামীকে পুজোর উপহার পাঠিয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। 

২০১৯ সালের ডিসেম্বর মাসে সৌরভ চট্টোপাধ্যায়কে বিয়ে করেছেন জুন। দুই ছেলেমেয়ের সব দায়িত্ব পালন করে নতুন করে সংসার পেতেছেন। সেই দায়িত্বের পাশাপাশি বর্তমানে রাজনীতিতেও জুনের ব্যস্ততা তুঙ্গে। আপতত অভিনয়টা একটু ব্যাকফুটে, তবে ‘গাঁটছড়া’য় মঞ্জিরা সিংহ রায়ের ভূমিকায় বেজায় সাবলীল তিনি। 

 

বন্ধ করুন