বাংলা নিউজ > টুকিটাকি > Uganda declares end of Ebola outbreak: ইবোলা ভাইরাস থেকে মুক্ত উগান্ডা, ৪২ দিন সংক্রমণের খবর না পেয়ে ঘোষণা প্রশাসনের

Uganda declares end of Ebola outbreak: ইবোলা ভাইরাস থেকে মুক্ত উগান্ডা, ৪২ দিন সংক্রমণের খবর না পেয়ে ঘোষণা প্রশাসনের

গত দেড় মাসে আর কোনও নতুন সংক্রমণের খোঁজ মেলেনি। (REUTERS)

Uganda declares end of Ebola outbreak after 42 days with no cases: দীর্ঘ চারমাস ধরে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়েছিল দেশের নানা অংশে। কঠোরভাবে পরিস্থিতি সামলেতে এগিয়ে আসে প্রশাসন। গত ৪২ দিন মেলেনি নতুন কোনও সংক্রমণের খবর।

দীর্ঘ চারমাস ধরে উগান্ডাকে কাবু করে ফেলেছিল ইবোলা সংক্রমণ। অবশেষে গত দেড় মাসে আর কোনও নতুন সংক্রমণের খোঁজ মেলেনি। এই বারের মতো ইবোলা মহামারি সংক্রমণে ইতি টেনেছে বলেই জানাল সে দেশের সরকার। গত বুধবার উগান্ডা প্রশাসনের তরফে এমন ঘোষণা করা হয়। প্রথমদিকে ভাইরাসের দ্রুত সংক্রমণের হার রীতিমত ঘোল খাইয়েছিল দেশের স্বাস্থ্য প্রশাসনকে। শেষ পর্যন্ত সরকারের দক্ষতাতেই পরিস্থিতি আয়ত্তে আনা সম্ভব হয়। তবে ভাইরাসটি প্রতিরোধে কোনও টীকা না থাকায় এই সংক্রমণ কতদিন পর্যন্ত আটকে রাখা সম্ভব তা নিয়ে ধন্দ থেকেই যাচ্ছে।

এই উপলক্ষ্যে সে দেশে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সেখানে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জেন রুথ এসেঙ বলেন, ‘আমরা সফলভাবে ইবোলা সংক্রমণের মোকাবিলা করতে পেরেছি। দক্ষতার সঙ্গেই ভাইরাসটির ছড়িয়ে পড়া আটকানো সম্ভব হয়েছে।’ এসেঙের কথায়, ২০০০ সাল থেকেই দফায় দফায় ইবোল ভাইরাসের সংক্রমণ ছড়িয়েছে উগান্ডায়। গত বছর অষ্টমবার এই ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব হয়। তাঁর কথায়, প্রথমবার সবচেয়ে মারাত্মকভাবে ছড়িয়েছিল এই ভাইরাস। মোট ৪২৫ জন ব্যক্তি আক্রান্ত হন। প্রায় অর্ধেক সংখ্যক মানুষই সংক্রমণে মারা গিয়েছিলেন। শেষ সংক্রমণের দফা শুরু হয়েছিল সেপ্টেম্বর মাসের গোড়া থেকে। তখন থেকে গত চার মাসে মোট ১৪৫ জন ব্যক্তি ভাইরাসে আক্রান্ত হন। সে দেশের স্বাস্থ্যমন্ত্রক সূত্র অনুযায়ী, মোট ৫৫ জন রোগী এই সংক্রমণে মারা গিয়েছেন। গত বুধবার দিনটি ধরে মোট ৪২ দিন পূর্ণ হল। এই দেড় মাসে আর কোনও নতুন সংক্রমণের ঘটনা ঘটেনি সারা দেশে। সেই কারণেই এমন ঘোষণা, জানাচ্ছে উগান্ডা প্রশাসন। আরেক অর্থে এই ৪২ দিন বেশ গুরুত্বপূর্ণ। এই সময়ে ভাইরাসটির দুটি ইনকিউবেশন পিরিয়ড শেষ হয়েছে। তার মধ্যেও সংক্রমণ না ছড়ানোতেই স্বস্তির নিশ্বাস ফেলছে সরকার।

ভাইরাসটির এপিসেন্টার ছিল মাবেন্দে। রাজধানী কামপালা থেকে পশ্চিমের একটি জেলা হল মাবেন্দ। সেখান থেকেই অন্যান্য জেলায় ধীরে ধীরে ছড়িয়ে পড়ে সংক্রমণ। ক্রমে রাজধানীতেই ভাইরাস থাবা ফেলেছিল।

সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণ করতে সক্ষম হওয়ায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তরফেও অভিনন্দন জানানো হয়েছে সে দেশের প্রশাসনকে। হু-এর ডাইরেক্টর জেনারেল টেড্রস অ্যাডহ্যানম ঘেব্রেয়েসুস উগান্ডা সরকারের ভূমিকাকে অভিবাদন জানান। তাঁর কথায়, সারা দেশের প্রশাসন জোটবদ্ধ হয়ে কাজ করে দেখিয়ে দিয়েছে ইবোলাকে প্রতিরোধ করা সম্ভব।

 

 

বন্ধ করুন