বাংলা নিউজ > টুকিটাকি > এই দোকানে পাওয়া যায় সোনার আইসক্রিম! দামও পকেটসই
ছবি সৌজন্য: ইনস্টাগ্রাম/অভিনব জেসওয়ানি (Instagram/abhinavjeswani)
ছবি সৌজন্য: ইনস্টাগ্রাম/অভিনব জেসওয়ানি (Instagram/abhinavjeswani)

এই দোকানে পাওয়া যায় সোনার আইসক্রিম! দামও পকেটসই

  • ভারতে হাতে গোনা কয়েকটি রেস্টুরেন্ট ও আইসক্রিম পার্লারেই পাওয়া যায়। আর তার মধ্যে একটি হল চেইন আইসক্রিম পার্লার 'হাবার অ্যান্ড হলি'। 

আচ্ছা, আপনি কতরকমের আইসক্রিম খেয়েছেন? চকোলেট, ভ্যানিলা, স্ট্রবেরি, পেস্তা, ব্ল্যাক কারেন্ট... এগুলোর উত্তর নিশ্চই হ্যাঁ বলছেন? সেটা হতেই পারে। কিন্তু যদি বলি ২৪ ক্যারাট গোল্ড আইসক্রিম খেয়েছেন? শুনেই নিশ্চই অবাক হলেন। ভাবছেন সোনা কি আবার কোনও খাবার জিনিস নাকি! আর নিশ্চয় দামও অনেক হবে। সেক্ষেত্রে জানিয়ে রাখি, হ্যাঁ, সামান্য পরিমাণে সোনা খাওয়াই যায়। স্বাদ নেই যদিও আলাদা। আর দাম? মোটমুটি সবার সাধ্যের মধ্যেই।

কোথায় পাওয়া যায়?

বিভিন্ন দেশে তো গোল্ড আইসক্রিম বেশ জনপ্রিয়। কিন্তু ভারতে হাতে গোনা কয়েকটি রেস্টুরেন্ট ও আইসক্রিম পার্লারেই পাওয়া যায়। আর তার মধ্যে একটি হল চেইন আইসক্রিম পার্লার 'হাবার অ্যান্ড হলি'(Huber & Holly)। মুম্বই, হায়দরাবাদ সহ একাধিক বড় শহরে রয়েছে। আর সেখানেই মেনুতে আছে ২৪ ক্যারাট গোল্ট আইসক্রিম। নাম ‘মিনি মিডাস’।

কিন্তু কীভাবে গোল্ড আইসক্রিম বানানো হয়?

সত্যি বলতে, এটি আসলে চকোলেট আইসক্রিমই। কোনের মধ্যে ডার্ক চকোলেট আইসক্রিম, টুটি-ফ্রুটি, চকোলেট সস, চকো চিপস থাকে। চকোলেটের চামচও দেওয়া হয়। আর আইসক্রিমের উপর সবার শেষে জড়িয়ে দেওয়া হয় ২৪ ক্যারাট সোনার তবক।

অর্থাত্ ব্যাপারটা অনেকটা লাড্ডু বা কাজু বরফির উপরের রূপোর তবকের মতোই। পুরোটাই ভিজ্যুয়াল। তবে প্রিয় মানুষটির হাতে এমন একটা সুন্দর আইসক্রিম দিলে, তিনি যে কুপোকাত হবেন, তা বলাই বাহুল্য। তাছাড়া সোশ্যাল মিডিয়া পোস্ট হিসাবেও মন্দ নয়!

হায়দরাবাদের হাবার অ্যান্ড হলি-র এই ভিডিয়োটি পোস্ট করেছেন ফুড ভ্লগার অভিনব জেসওয়ানি

দেখুন ভিডিয়ো :

দাম তো অনেক হবে?

দাম সাধারণ আইসক্রিমের তুলনায় হয় তো বেশি। কিন্তু টপিংস এবং অন্যান্য বিষয় ও সোনা যদি ধরা হয়, তা বেশ কমই। ৫০০ টাকা(কর প্রযোজ্য)। একদিন শখ করে খাওয়াই যায়।
 

বন্ধ করুন