বাংলা নিউজ > টুকিটাকি > World Suicide Prevention Day 2023: মহিলাদের আত্মহননের নেপথ্যে কি সমাজের নানা ফতোয়া? আলোচনায় মনোবিদ শ্রীময়ী তরফদার

World Suicide Prevention Day 2023: মহিলাদের আত্মহননের নেপথ্যে কি সমাজের নানা ফতোয়া? আলোচনায় মনোবিদ শ্রীময়ী তরফদার

মহিলাদের আত্মহননের নেপথ্যে কি সমাজের নানা ফতোয়া? (প্রতীকী ছবি, সৌজন্যে ফ্রিপিক)

নানা বয়সের মহিলাদের আত্মহত্যার পিছনে রয়েছে নানারকম কারণ। আত্মহননের মনস্তাত্ত্বিক দিক নিয়ে আলোচনা করলেন বিশিষ্ট মনোবিদ শ্রীময়ী তরফদার। হিন্দুস্তান টাইমস বাংলার সঙ্গে আলোচনায় উঠে এল নানা প্রসঙ্গ।

১২ শতাংশ। ২০২১ সালে ভারতের এই ১২ শতাংশ মনে করেছিলেন জীবনটা অর্থহীন হয়ে পড়েছে। তাই নিজেকে শেষ করার পথটাই যেন শুধু খোলা। সব মিলিয়ে ১৬৪০৩৩ জন ওই বছর বেছে নেন আত্মহননের পথ। এর মধ্যে মহিলাদের সংখ্যা ৪৫ হাজার। পরিসংখ্যানটি ২০২০ সালের থেকে বেশি বৈ কম নয়!

বিশিষ্ট মনোবিদ শ্রীময়ী তরফদারের সঙ্গে আলোচনা চলছিল এই বিষয়েই। আত্মহত্যার পিছনে সম্পর্কের টানাপোড়েন কতটা দায়ী? হিন্দুস্তান টাইমস বাংলাকে তিনি জানালেন সম্পর্কের নানা সমীকরণ নিয়ে। ‘এই জাতীয় টানাপোড়েন অনেকটাই দায়ী। প্রেমে অবিশ্বাস বা ব্যর্থতা, সম্পর্কে ভাঙন এলে আত্মহননের পথ বেছে নেন কেউ কেউ। পরিবারে অন্য সদস্যের সঙ্গে টানাপোড়েন থাকলেও এ ঘটনা ঘটে। কর্মক্ষেত্র বা অর্থনৈতিক সমস্যাও কখনও কখনও দায়ী।’ সম্পর্কের আরেকটি দিক বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক। যা জানাজানি হয়ে গেলে লজ্জা ও পাপবোধ কাজ করে। তখন আত্মহননের সিদ্ধান্ত নেন‌ অনেকে।

মনোবিদ শ্রীময়ীর কথায়, ‘আত্মহত্যার প্রধান কারণ অবসাদ। অবসাদের কারণে অনেক মহিলাই নিজের রোজকার দায়িত্ব পালন করতে পারেন না। মা হয়ে বাচ্চাকে টিফিন করে দিতে না পারলে, স্কুলের জন্য তৈরি করে দিতে না পারলে খারাপ লাগা জন্মায়। এ প্রসঙ্গে উঠে আসে বিবাহিত নারীদের কথা। বিয়ের পর অনেকে স্বামীর থেকে প্রত্যাশামাফিক সমর্থন পান না। তাতে কি আত্মহননের ঝুঁকি বাড়ে? শ্রীময়ী এমন তত্ত্ব মানতে নারাজ। ‘স্বামী বা শ্বশুর বাড়ির তরফে সমর্থন না থাকলে নারীরা আত্মহত্যার পথেই যান, তা কিন্তু নয়। মন যথেষ্ট শক্ত করে পরিস্থিতির সঙ্গে লড়াই করেন অনেক মহিলাই।’

তবে সমর্থন না থাকলে প্রচণ্ড মানসিক যন্ত্রণা হতে পারে। দেখা দিতে পারে অবসাদ। অনেকের আবার হঠকারী সিদ্ধান্ত নেওয়ার প্রবণতাও থাকে। তেমনটা হলে আত্মহনন করতে পারেন ভুক্তভোগী।’ হঠকারী সিদ্ধান্তের পিছনে রয়েছে এক মানসিক সমস্যা। তার কথাও উল্লেখ করলেন মনোবিদ। ‘বর্ডারলাইন পার্সোনালিটি ডিসঅর্ডার থাকলে হঠকারী সিদ্ধান্ত নেওয়ার ঝুঁকি বাড়ে। ফলে আত্মহত্যার চেষ্টা বা ‘ননসুইসাইডাল সেলফ ইনজুরি’র মতো ঘটনা ঘটে। ‘ননসুইসাইডাল সেলফ ইনজুরি’ মানে নিজেকে নানাভাবে আঘাত করার প্রবণতা।

কথা বলতে বলতে আলোচনায় আসে আত্মহননকারীর মানসিক দিকগুলি। প্রধান কারণ অবসাদের পাশাপাশি আরও তিন দিক তুলে ধরলেন শ্রীময়ী। ‘আত্মহত্যার অন্যতম কারণ প্রচণ্ড মানসিক যন্ত্রণা। মনোবিজ্ঞানের পরিভাষায় যা ‘সাইকেক (psychache)’। এই যন্ত্রণা কমাতে কেউ কেউ মুক্তির পথ হিসেবে আত্মহনন বেছে নেন। অন্যান্য কারণের মধ্যে রয়েছে ‘এনট্র্যাপমেন্ট (Entrapment)’-এর অনুভূতি। এই সময় একজন কোনও এক সমস্যার ফাঁদে পড়েছেন বলে মনে করেন। সেখান থেকে আর বেরনোর পথ নেই, এমন ধারণা হয় তাঁর। আরেকটি দিক হল ‘রুমিনেশন (Rumination)’। একটা কোনও বিষয় (যেমন আত্মহত্যা) নিয়ে মাথায় নানা চিন্তা ঘুরপাক খেতে থাকে। সেক্ষেত্রে ভুক্তভোগী মনে করেন— তিনি না থাকলেই তাঁর কাছের মানুষগুলো অনেক ভালো থাকবে।’

কীভাবে এড়ানো যায় আত্মহননের মতো মর্মান্তিক পরিনতি? এই প্রসঙ্গে এর লক্ষণগুলি জানালেন শ্রীময়ী। ‘যারা আত্মহত্যা করতে চান, তাদের মধ্যে কিছু লক্ষণ আগে থেকেই দেখা যায়। ‘আমি চলে গেলেই ভালো’, ‘আমি পৃথিবীতে না থাকলেই তোমাদের মঙ্গল’—এমন কথা বলতে শোনা যায়। দু-একবারও একথা বললে সতর্ক হতে হবে সঙ্গে সঙ্গে। তাঁর পাশে থাকতে হবে। মানসিক শক্তি জোগাতে হবে। অনেকে অন্যের সঙ্গে তুলনা করে নিবৃত্ত করতে চান। ‘ও তো এত সমস্যায় থেকেও আত্মহননের কথা ভাবছে না। তুমি কেন ভাবছ? হেরে যাচ্ছ?’ —এমন কথা একেবারেই বলা যাবে না। এতে ভুক্তভোগী মনে করে, তাঁর সমস্যাগুলো ছোট করে দেখা হচ্ছে। এমন উপদেশ দেওয়া থেকে বিরত থাকতে হবে। বরং বোঝাতে হবে তাঁকে পরিবারে ও সমাজে কতটা দরকার। ঠান্ডা মাথায় তাঁর ভালো লাগার জিনিসগুলোকে বেশি গুরুত্ব দিতে হবে। যাতে সে বেঁচে থাকার কারণ খুঁজে পায়।’

একইসঙ্গে শ্রীময়ী জানান কাজকর্ম করতে উৎসাহ দেওয়ার কথা। ‘অবসাদ থেকে কাজকর্ম অনেকটাই কমে যায়। তাই ভুক্তভোগীকে কাজ করতে উৎসাহ দিতে হবে।’ উৎসাহ দিতে কী কথা বলা জরুরি তার একটা রূপরেখা দিলেন মনোবিদ। ‘কাজটা করলে ভালো লাগবে। ভালো লাগলে করবে, এরকম ভেবো না। বরং করে দেখো, ভালো লাগবে।— এ কথা বলে উৎসাহ জোগাতে হবে অবসাদে ডুবে থাকা মানুষটিকে। ভু্ক্তভোগী মানুষটি যত কাজ নিয়ে ব্যস্ত থাকবেন, তত আত্মহননের চিন্তা কম আসবে।’

সম্পর্কের টানাপোড়েন নিয়ে কথা হচ্ছিল আলোচনায় গোড়ায়। বাড়ির সদস্যই যদি আত্মহননের কারণ হয়ে দাঁড়ায়? তাহলে তাঁদের কথায় কি কাজ হবে? সেক্ষেত্রে শ্রীময়ী বলেন, ‘এমনটা হলে মানসিক স্বাস্থ্যকর্মীর কাছেই সরাসরি নিয়ে যাওয়া উচিত। এছাড়াও রয়েছে বিনামূল্যে সুইসাইডের হেল্পলাইনের পরিষেবা। আর্থিক সমস্যা থাকলে সেখানেও যোগাযোগ করা যেতে পারে। আত্মহননের ইঙ্গিত পেলে সঙ্গে সঙ্গে এটা করতে হবে।’

সুইসাইড প্রিভেনশনস ইন্ডিয়া ফাউন্ডেশন: 8047096367

লাইফলাইন ফাউন্ডেশন: 9088030303

আইকল: 9152987821

ওয়ানলাইফ ফাউন্ডেশন: 7893078930

স্যামারিটানস: 8422984528

শুশ্রূষা কাউন্সেলিং: 9422627571

মন টকস: 8686139139

স্নেহ ফাউন্ডেশন: +9144-24640050

টুকিটাকি খবর

Latest News

রাহুলের সঙ্গে ফোনে কথা হয়নি কমলার! সব জল্পনা খারিজ করে দেওয়া হল আমেরিকা থেকেই 'ভয়ের জাল ছিঁড়ে যাচ্ছে…'উপনির্বাচনে ইন্ডিয়া জোটের ফল ভালো হতেই লিখলেন রাহুল শাহরুখ-গৌরীর সংসারের রিমোট কন্ট্রোল রয়েছে এঁর হাতে, সুহানার পাশে উনি কে? ধোনির মুখপানে চেয়ে চুপটি করে দাঁড়িয়ে বচ্চন, অমিতাভের ব্যবহারে মুগ্ধ নেটপাড়া Los Angeles Knight Riders বনাম San Francisco Unicorns ম্যাচ শুরু হতে চলেছে, পাল্লা ভারি কোন দিকে? চাকরিতে কোটা নয়, ছাত্র আন্দোলনে উত্তাল ঢাকার রাজপথ পড়াশোনা না করে মোবাইলেই মেতে মেয়ে, মা বকাবকি করতেই চরম পদক্ষেপ কিশোরীর স্মৃতি ইরানির প্রতি অবমাননাকর ভাষা নয়, রাহুলের বার্তাকে সমর্থন কিশোরীলালের রাধিকার অনন্ত প্রেম, হাতে আঁকা লেহেঙ্গা পরে রাজরানি আম্বানির বউমা বড়মার ঘরের তালা ভাঙা হল ঠাকুরবাড়িতে, মধুপর্ণার জয়ে শুরু নতুন অধ্য়ায়

T20 WC 2024

ক্রিকেটে অত ফিটনেস লাগে না, মত সাইনার, শুনতে হল ‘১৫০ কিমি বল খেলা এতই সহজ?’ T20 WC 2024-এ রোহিত শর্মার কাছে মার খাওয়া নিয়ে মুখ খুললেন মিচেল স্টার্ক ওরা কেন কম টাকা পাবে- সাপোর্ট স্টাফদের জন্য প্রশ্ন তুলে বোনাস নিতে চাননি রোহিত T20 WC 2024: প্রকাশ্যে অজিদের অন্তর্দ্বন্দ্ব, একাদশে সুযোগ না পাওয়ায় সরব স্টার্ক পা কি দড়িতে লেগেছিল? ডেভিড মিলারের ক্যাচ নিয়ে অবশেষে মুখ খুললেন সূর্যকুমার যাদব ভিডিয়ো: আমি ভুল করেছিলাম… হরভজনের সঙ্গে আড়ালে কী কথা হচ্ছিল? মুখ খুললেন কামরান কিছুতেই ছবি তুলবেন না রোহিত, জোর করে টেনে নিয়ে গেলেন বিরাট, সামনে এল নয়া ভিডিয়ো T20 WC-এ পাকিস্তানের ব্যর্থতার জের,চাকরি হারালেন নির্বাচক কমিটির ২ সদস্য-রিপোর্ট টিম ইন্ডিয়ার সাফল্যের জন্য রাহুল দ্রাবিড়কে কৃতিত্ব দিলেন BCCI সচিব জয় শাহ ট্রাফিকে ফেঁসে গিয়ে পায়ে হেঁটেই স্টেডিয়ামে পৌঁছান উপস্থাপক গৌরব কাপুর

Copyright © 2024 HT Digital Streams Limited. All RightsReserved.