বাড়ি > ঘরে বাইরে > ‘অক্সফোর্ডের করোনা টিকা হারাম’, ক্যাথলিক আর্চবিশপের পর তীব্র আপত্তি ইমামের
অ্যাস্ট্রোজেনেকার সঙ্গে টিকা উৎপাদনের চুক্তি করেছে অস্ট্রেলিয়া (ছবি সৌজন্য রয়টার্স)
অ্যাস্ট্রোজেনেকার সঙ্গে টিকা উৎপাদনের চুক্তি করেছে অস্ট্রেলিয়া (ছবি সৌজন্য রয়টার্স)

‘অক্সফোর্ডের করোনা টিকা হারাম’, ক্যাথলিক আর্চবিশপের পর তীব্র আপত্তি ইমামের

  • ওই ইমাম বলেন, ‘ক্যাথলিকরা এটার (করোনার সম্ভাব্য টিকার) বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়েছেন, কারণ তাঁরা স্পষ্টত জানেন যে এটা হারাম, এটা আইনবিরোধী।'

অক্সফোর্ডের করোনাভাইরাসের সম্ভাব্য টিকা নিয়ে ইতিমধ্যে আপত্তি জানিয়েছেন এক ক্যাথলিক আর্চবিশপ। এবার সেই তালিকায় যুক্ত হলেন অস্ট্রেলিয়ার ইমাম সুফায়ান খলিফা। তিনি জানালেন, অক্সফোর্ডের করোনা টিকা 'হারাম'। সেজন্য মুসলিমদের সেই টিকার না নেওয়ার নির্দেশ দেন তিনি।

নিজের ইউটিউব চ্যানেলে ভিডিয়ো পোস্ট করে সুফায়ান দাবি করেন, সত্তরের দশকে গবেষণাগারে গর্ভপাত হওয়া একটি শিশুর ভ্রূণ কোষ নিয়ে করোনার সম্ভাব্য টিকা তৈরি করেছে অক্সফোর্ড ও ব্রিটিশ-সুইডিশ সংস্থা অ্যাস্ট্রোজেনেকা। তিনি বলেন, ‘যে মুসলিম সংগঠনগুলি এই টিকার ব্যবহারকে সমর্থন করছে, তাদের লজ্জা (হওয়া উচিত)। এই ফতোয়ায় যে ইমামরা সই করছেন, তাঁদেরও ধিক্কার।' 

তার আগে এক উচ্চপদস্থ ক্যাথলিক আর্চবিশপ জানান, অ্যাস্ট্রোজেনেকার সঙ্গে অস্ট্রেলিয়া যে টিকা উৎপাদনের চুক্তি করেছে, তাতে তিনি ‘অত্যন্ত উদ্বিগ্ন’। শিশুর ভ্রূণ কোষ ব্যবহার করে সেই ‘ভ্যাকসিন ক্যান্ডিডেট’ তৈরি করা হয়েছে। যা খ্রিশ্চানদের ক্ষেত্রে ‘নৈতিক সংকট’ তৈরি করবে। ‘ভ্রূণ কোষ ব্যবহার করে টিকা উৎপাদনের’ বিষয়টি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসনকে চিঠিও লিখেছেন সিডনির আর্চবিশপ অ্যান্থনি ফিশার। চিঠিতে সই করেছেন অ্যাঙ্গলিকান এবং গ্রিক অর্থডক্স চার্চের যাজকরাও।

আর ক্যাথলিক সংগঠনের আপত্তির প্রসঙ্গ উত্থাপন করে ইমাম খলিফা বলেন, ‘ক্যাথলিকরা এটার (করোনার সম্ভাব্য টিকার) বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়েছেন, কারণ তাঁরা স্পষ্টত জানেন যে এটা হারাম, এটা আইনবিরোধী। তার পরিবর্তে আপনারা (অস্ট্রেলিয়ার মুসলিম সংগঠনগুলির সদস্য) সরকারের পাশে দাঁড়িয়েছেন।’

কয়েকজন সরকারি আধিকারিক জানিয়েছেন, তাঁরা ধর্মীয় ভাবাবেগকে শ্রদ্ধা করেন। সরকারের এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, এমন গবেষণা এবং প্রযুক্তিতে টাকা ঢালা হচ্ছে, যেখান থেকে অধিক সংখ্যায় করোনার টিকা তৈরি করা যাবে। তা যত বেশি সম্ভব অস্ট্রেলিয়াবাসীর জন্য উপযুক্ত হবে।

বন্ধ করুন