বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Agnipath Scheme: ‘শীঘ্রই নিয়োগ শুরু হবে’, ‘অগ্নিপথ’ নিয়ে আগুনের মধ্যেই ঘুরপথে আশ্বাস রাজনাথের
অগ্নিপথ প্রকল্প চালুর সাংবাদিক বৈঠকে প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং। (ছবি সৌজন্যে পিটিআই)

Agnipath Scheme: ‘শীঘ্রই নিয়োগ শুরু হবে’, ‘অগ্নিপথ’ নিয়ে আগুনের মধ্যেই ঘুরপথে আশ্বাস রাজনাথের

  • Agnipath Scheme: ‘অগ্নিপথ’-এর আওতায় অগ্নিবীরদের নিয়োগ নিয়ে দেশের একাংশে হিংসাত্মক বিক্ষোভ চলছে। তারইমধ্যে প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং বলেন, ‘কয়েকদিনের মধ্যে সামরিক বাহিনীতে ভরতির প্রক্রিয়া শুরু হতে চলেছে। সেজন্য প্রস্তুতি শুরু করে দেওয়ার আর্জি জানাচ্ছি।’

‘অগ্নিপথ' প্রকল্প নিয়ে দেশের একাংশে ছড়িয়ে পড়েছে হিংসা। ক্রমশ খারাপ হচ্ছে পরিস্থিতি। সেই অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সরাসরি কোনও বার্তা না দিলেও ঘুরিয়ে বিক্ষোভকারীদের আশ্বস্ত করার চেষ্টা করলেন প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং। সঙ্গে জানালেন, দিনকয়েকের মধ্যে নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু হবে।

শুক্রবার রাজনাথ বলেন, 'অগ্নিপথ প্রকল্পের মাধ্যমে দেশের প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার সঙ্গে যুক্ত হওয়া এবং দেশসেবার দারুণ সুযোগ পাচ্ছে যুব সম্প্রদায়। গত দু'বছর নিয়োগ প্রক্রিয়া না হওয়ায় দেশের প্রচুর যুবক-যুবতি সামরিক বাহিনীতে যোগ দেওয়ার সুযোগ পাননি। সেজন্য যুব সম্প্রদায়ের ভবিষ্যতের দিকে তাকিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নির্দেশে এবার সরকার অগ্নিবীরদের নিয়োগের ক্ষেত্রে বয়সের সর্বোচ্চসীমা ২১ থেকে বাড়িয়ে ২৩ করেছে। একবারের জন্যই সেই ছাড় দেওয়া হয়েছে। তার ফলে প্রচুর যুবক-যুবতি অগ্নিবীর হওয়ার সুযোগ পাবেন।' সঙ্গে রাজনাথ বলেন, ‘কয়েকদিনের মধ্যে সামরিক বাহিনীতে ভরতির প্রক্রিয়া শুরু হতে চলেছে। সেজন্য প্রস্তুতি শুরু করে দেওয়ার আর্জি জানাচ্ছি।’

আরও পড়ুন: Agniveer Recruitment: বিক্ষোভের মধ্যে ‘অগ্নিবীর’ নিয়োগে ২ বছরের ছাড়, প্রথমবার কতদিন আবেদন করা যাবে?

উল্লেখ্য, চলতি সপ্তাহে ‘অগ্নিপথ’ মডেলের ঘোষণা করেছে কেন্দ্র। সেই মডেলের আওতায় চার বছরের জন্য দেশের তিন সামরিক বাহিনীতে যুবক-যুবতীদের নিয়োগ করা হবে। চার বছরের চাকরির শেষে ৭৫ শতাংশ ‘অগ্নিবীর’-দের অব্যাহতি দেওয়া হবে। সেইসময় তাঁরা মোটা অঙ্কের প্যাকেজ পাবেন। সেইসঙ্গে কেন্দ্র জানিয়েছে, বিভিন্ন সরকারি চাকরিতে ‘অগ্নিবীর’-দের অগ্রাধিকার দেওয়া হবে।

যদিও সামরিক বাহিনীতে চাকরির জন্য যাঁরা প্রস্তুতি নিচ্ছেন, তাঁদের দাবি, ‘অগ্নিপথ’ প্রকল্পের ফলে তাঁদের ভবিষ্যৎ অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। তা নিয়ে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে বিক্ষোভ শুরু হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিহার, উত্তরপ্রদেশ, মধ্যপ্রদেশ, হরিয়ানার মতো রাজ্যে আগুন জ্বলেছে। লাগামছাড়া হিংসাত্মক ঘটনার সাক্ষী থেকেছে বিহার। ছাপরা, ভাভুয়া রোডের মতো স্টেশনে জ্বালিয়ে দেওয়া হয় ট্রেন। শুক্রবার তাণ্ডব চলেছে তেলাঙ্গানার সেকেন্দ্রাবাদে। সেখানে গুলিও চলেছে। মৃত্যু হয়েছে একজনের।

বন্ধ করুন