বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ভারতীয় সীমান্ত লাগোয়া বাংলাদেশে একের পর এক মন্দিরে উদ্ধার হল প্রাণীর দেহাংশ
প্রাণীর দেহাংশ উদ্ধারের পর মন্দিরে বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন স্থানীয়রা। 

ভারতীয় সীমান্ত লাগোয়া বাংলাদেশে একের পর এক মন্দিরে উদ্ধার হল প্রাণীর দেহাংশ

  • শুক্রবার সকালে বিষয়টি জানাজানি হলে উত্তেজনা ছড়ায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে হাজির হয় হাতিবান্ধা থানার পুলিশ।

ফের সংখ্যালঘু হিন্দু সম্প্রদায়ের আস্থার ওপর আক্রমণের অভিযোগ উঠল বাংলাদেশে। কোচবিহার সীমান্ত থেকে ঢিলছোড়া দূরত্বে বাংলাদেশের লালমনিরহাট জেলার হাতিবান্ধা উপজেলায় টংভাঙা ইউনিয়নের গেন্দুকুড়ি গ্রামে ৩টি হিন্দু মন্দিরে পাওয়া গেল প্রাণীর দেহাংশ। গত ৩১ ডিসেম্বর এই ঘটনায় স্থানীয় থানায় অভিযোগ দায়ের হয়েছে। এই ঘটনায় কড়া পদক্ষেপের আশ্বাস দিয়েছেন স্থানীয় পুলিশ আধিকারিক।

গেন্দুকুড়ি গ্রামের বাসিন্দা হিন্দুদের দাবি, শুক্রবার এলাকার ৩টি মন্দিরে পলিথিনে করে প্রাণীর দেহাংশ ঝুলিয়ে দিয়ে যায় কেউ বা কারা। বৃহস্পতিবার রাতে গেন্দুকুড়ি কুঠিপাড়া কালী মন্দির, বটতলা কালী মন্দির ও ক্যাম্পপাড়া এলাকায় এক ব্যক্তির বাড়িতে প্যাকেটবন্দি অবস্থায় গরুর পা ও নাড়িভুড়ি পাওয়া যায়। শুক্রবার সকালে বিষয়টি জানাজানি হলে উত্তেজনা ছড়ায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে হাজির হয় হাতিবান্ধা থানার পুলিশ। ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছে তারা। বাংলাদেশের টংভাঙা এলাকাটি কোচবিহারের শীতলকুচির সীমান্ত লাগোয়া।

এর পর পুলিশে অভিযোগ দায়ের করে স্থানীয় হিন্দুদের সংগঠন। ঘটনায় মোট ৪টি অভিযোগ জমা পড়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। অভিযুক্তদের গ্রেফতারির দাবিতে বিক্ষোভ দেখান স্থানীয়রা। হাতিবান্ধা থানার ওসি জানিয়েছেন, অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

বন্ধ করুন