বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Boris Visits India: ভারতে এসে গান্ধীতে মুগ্ধ বরিস, সবরমতী আশ্রমে চরকা কাটলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী
সবরমতী আশ্রমে চরকা কাটছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী (AFP)

Boris Visits India: ভারতে এসে গান্ধীতে মুগ্ধ বরিস, সবরমতী আশ্রমে চরকা কাটলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী

  • Boris Johnson Visits India: দুই দিনের ভারত সফরে এসে আজকে সবরমতী আশ্রমে যান ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। সবরমতী আশ্রমে চরকা কাটেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী। আজ দিনভর আরও বেশ কয়েকটি কর্মসূচি রয়েছে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর। গুজরাতি ব্যবসায়ীদের সঙ্গে একটি বৈঠকও হওয়ার কথা তাঁর।

দুই দিনের সফরে ভারতে এসেছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। ভারত সফরের প্রথম দিনে গুজরাতে এসেছেন বরিস। গান্ধীর জন্মভূমিতে পা রেখেই ভারতের জাতির জনকের প্রতি নিজের শ্রদ্ধার কথা ব্যক্ত করলেন বরিস। তিনি মহাত্মা গান্ধীর স্মৃতি বিজড়িত সবরমতী আশ্রমে গিয়ে চরকা কাটলেন। পাশাপাশি ‘ভিসিটরস বুকে’ বিশেষ বার্তাও লিখলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী।

বরিস জনসন এদিন ভিসিটরস বুকে লেখেন, ‘এই অসাধারণ মানুষটির আশ্রমে আসা একটা বিশাল বড় সৌভাগ্যের বিষয়। পাশাপাশি তিনি কীভাবে বিশ্বকে উন্নত করার জন্য সত্য ও অহিংসার এত সহজ নীতিগুলিকে সংগঠিত করেছিলেন তা বুঝতে পারার জন্য এই আশ্রমে আসা উচিত।’

উল্লেখ্য, বরিস জনসন আজ সকালে আহমেদাবাদে এসে পৌঁছান। তাঁকে সেখানে স্বাগত জানান গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রী ভূপেন্দ্র প্যাটেল এবং রাজ্যপাল আচার্য দেবব্রত। তাঁকে স্বাগত জানাতে রাজ্যের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও মন্ত্রীরাও উপস্থিত ছিলেন। ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর সম্মানে বিমানবন্দরে ঐতিহ্যবাহী গুজরাতি নৃত্য ও সঙ্গীত পরিবেশন করা হয়। এরপর বিমানবন্দর থেকে শহরের একটি হোটেলে যান তিনি। যাওয়ার পথে চার কিলোমিটার পথের দুই ধারে তাঁকে স্বাগত জানাতে উপস্থিত ছিলেন অনেক মানুষ। সেখানেও রাস্তার ধারে ৪০ মঞ্চ করে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল।

আজ গুজরাতে দিনব্যাপী কর্মূচি রয়েছে বরিস জনসনের। সূত্রের খবর, রাজ্যের বিশিষ্ট ব্যবসায়ীদের সঙ্গে একটি রুদ্ধদ্বার বৈঠক করার কথা ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর। এরপর তিনি পঞ্চমহল জেলার হালোলের কাছে ব্রিটিশ নির্মাণ সরঞ্জাম উত্পাদনকারী সংস্থা জেসিবি-র একটি কারখানায় যাবেন। ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী তারপর গান্ধীনগরে নির্মীমান গুজরাত বায়োটেকনোলজি ইউনিভার্সিটির ক্যাম্পাস পরিদর্শন করবেন। এই বিশ্ববিদ্যালয়টি যুক্তরাজ্যের এডিনবার্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের সহযোগিতায় গড়ে উঠছে।

বন্ধ করুন