বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > প্রজাতন্ত্র দিবসের কুচকাওয়াজ হবে সেন্ট্রাল ভিস্তায়, প্রস্তুতি নিচ্ছে কেন্দ্র
প্রধানমন্ত্রী, উপরাষ্ট্রপতির বাসভবন সহ বিশাল কর্মকান্ড সেন্ট্রাল ভিস্তা প্রকল্পে। ফাইল ছবি। (HT_PRINT)
প্রধানমন্ত্রী, উপরাষ্ট্রপতির বাসভবন সহ বিশাল কর্মকান্ড সেন্ট্রাল ভিস্তা প্রকল্পে। ফাইল ছবি। (HT_PRINT)

প্রজাতন্ত্র দিবসের কুচকাওয়াজ হবে সেন্ট্রাল ভিস্তায়, প্রস্তুতি নিচ্ছে কেন্দ্র

  • সেন্ট্রাল ভিস্তার যে জায়গায় এই কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠিত হবে তার কাজ প্রায় সম্পন্ন হয়ে গিয়েছে বলে আবাসন এবং নগর উন্নয়ন মন্ত্রক সূত্রে জানা গিয়েছে।

প্রজাতন্ত্র দিবস আর মাত্র তিন সপ্তাহ বাকি। তার আগেই তোড়জোড় শুরু করে দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। সেন্ট্রাল ভিস্তাতেই প্রজাতন্ত্র দিবসের কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠিত হবে বলে জানা যাচ্ছে। সেন্ট্রাল ভিস্তার যে জায়গায় এই কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠিত হবে তার কাজ প্রায় সম্পন্ন হয়ে গিয়েছে বলে আবাসন এবং নগর উন্নয়ন মন্ত্রক সূত্রে জানা গিয়েছে।

মন্ত্রক সূত্রের খবর, প্রজাতন্ত্র দিবসের কুচকাওয়াজের লক্ষ্যে ইতিমধ্যেই সেখানে রাজপথ, খাল, লন,পার্কিং লট তৈরীর কাজ সম্পন্ন হয়েছে। বাকি কাজগুলি কুচকাওয়াজের পর সম্পন্ন করা হবে। যার মধ্যে রয়েছে রাজপথ বরাবর চারটি আন্ডারপাস এবং আটটি ব্লক তৈরির কাজ।

সেন্ট্রাল ভিস্তা পুননির্মাণের জন্য ১৩৫০০ কোটির মধ্যে ইতিমধ্যে ৬০৮ কোটি টাকা খরচ করে গুরুত্বপূর্ণ কাজগুলো সম্পন্ন হয়েছে। যদিও গত ফেব্রুয়ারিতে শুরু হওয়া এই প্রকল্পের কাজ গত বছরের ডিসেম্বরেই শেষ হওয়ার কথা ছিল। তবে কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তের পরে সমালোচনার ঝড় ওঠে। সুপ্রিম কোর্টেও এ নিয়ে মামলা চলছে।

সেন্ট্রাল ভিস্তা উন্নয়ন প্রকল্পের দায়িত্বে থাকা পরামর্শ দাতা সংস্থা এইচসিপি'র এক আধিকারিক জানিয়েছেন, 'শুধুমাত্র প্রজাতন্ত্র দিবসের প্যারেডের জন্য প্রয়োজনীয় জায়গাগুলির কাজ সম্পন্ন হয়েছে। কুচকাওয়াজের সময় সেগুলি জন সাধারণের জন্য খুলে দেওয়া হবে। বাকি কাজগুলি ফেব্রুয়ারির মধ্যে সম্পন্ন করা হবে।'

এইচসিপি মুখপাত্র জানিয়েছেন, রাজপথ এবং লন গ্রানাইট পাথর দিয়ে তৈরি করা হয়েছে। পাশাপশি সংলগ্ন রাস্তাগুলোও সংস্কার করা হয়েছে। এছাড়াও, রাজপথ বরাবর থাকা ঐতিহ্যবাহি আলোর খুঁটিগুলো সংস্কার করা হয়েছে। সেইসঙ্গে নতুন করে আলোর ব্যবস্থা করা হয়েছে লন ও খালের কাছে।' তিনি জানিয়েছেন, 'খালের দু পাশে থাকা লনে ভিআইপিরা যাতে যাতায়াত করতে পারেন তার জন্য ১৬ টি সেতুর ব্যবস্থা করা হয়েছে। '

এছাড়াও পাবলিক অ্যানাউন্সমেন্ট সিস্টেম, প্যারেড কন্ট্রোল সিস্টেম এবং দূরদর্শন, অল ইন্ডিয়া রেডিও এবং এমটিএনএল-এর জন্যও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা থাকছে।

অন্যদিকে, প্রতিবারের মত এবারও প্রজাতন্ত্র দিবসের কুচকাওয়াজে আয়োজন করছে প্রতিরক্ষামন্ত্রক এবং কেন্দ্রীয় পাবলিক ওয়ার্ক ডিপার্টমেন্ট। আগামীকাল থেকে কুচকাওয়াজের মহড়া শুরু হবে বলে প্রতিরক্ষা মন্ত্রক সূত্রে জানা গিয়েছে। এর জন্য প্রস্তুত থাকছে দিল্লি ট্রাফিক পুলিশ। দিল্লি ট্র্যাফিক পুলিশের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, ' কুচকাওয়াজের মহড়ার জন্য ১৭,১৮,২০ এবং ২১ তারিখে জন্য প্রয়োজনীয় ট্র্যাফিক ব্যবস্থা করা হবে।'

অন্যদিকে, কোভিড পরিস্থিতি থাকার কারণে কুচকাওয়াজের সময় কতগুলি দর্শক থাকবে তা নিয়ে এখনও সিদ্ধান্ত নেয়নি মন্ত্রক। তবে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে সেখানে দর্শকের ব্যবস্থা করা হবে বলে মন্তব্য করে খবর।

বন্ধ করুন