বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Wheat Export Ban: ‘ভারতের সমালোচনা করবেন না...’, অপ্রত্যাশিত ভাবে নয়াদিল্লির ‘ঢাল’ হল বেজিং!
গম রফতানির উপর নিষেধাজ্ঞা ইস্যুতে ভারতের পাশে চিন। (REUTERS)

Wheat Export Ban: ‘ভারতের সমালোচনা করবেন না...’, অপ্রত্যাশিত ভাবে নয়াদিল্লির ‘ঢাল’ হল বেজিং!

  • Wheat Export Ban: গম রফতানির উপর নিষেধাজ্ঞা ইস্যুতে ভারতের পাশে চিন। গ্লোবাল টাইমস একটি প্রতিবেদনে লিখেছে, ‘ভারতকে দোষারোপ করলে খাদ্য সংকট মিটে যাবে না।’ পাশাপাশি পশ্চিম দেশগুলির দিকে উল্ট আঙুল তুলেছে চিন।

গালওয়ান উপত্যকার সংঘর্ষের পর থেকেই ভারত ও চিনের সম্পর্কে চিড় ধরেছিল। সেই ফাটল ক্রমেই চওড়া হয়েছে। দুই দেশের বাণিজ্যিক সম্পর্কে ক্ষত দেখা গিয়েছে। কূটনৈতিক মলমে সেই ক্ষত ঠিক হয়নি। পালা করে সীমান্তে বৈঠকে বসা হলেও সমস্যার সমাধানসূত্র এখনও মেলেনি। এই আবহে রাশিয়া-চিন সখ্যতা বে়ড়েছে। পাকিস্তানের সঙ্গে চিনের সুসম্পর্ক মাথার ব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে নয়াদিল্লির। সব মিলিয়ে দক্ষিণ এশিয়ার ভূ-রাজনীতিতে ভারতকে কোণঠাসা করার ছক কষেছে চিন। তবে এরই মাঝে এবার ভারতের সমর্থনে গলা ফাটাল চিন। উল্লেখ্য, সম্প্রতি ভারত গম রফতানির উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। মার্চ ও এপ্রিলের দাবদাহের কারণে দেশে গমের ফলন কম হওয়ায় বাজারে দাম বেড়েছে গমের। এই আবহে গম রফতানির বড় পরিকল্পনা থাকা সত্ত্বেও দেশের জনগণের স্বার্থে পিছু হটতে বাধ্য হয়েছে মোদী সরকার। এই আবহে ভারতের বিরুদ্ধে ‘রুষ্ট’ হয়েছে জি-৭-ভুক্ত পশ্চিমা দেশগুলি। আর চিন এবার ভারতের সিদ্ধান্তকে সমর্থন জানিয়ে পালটা তোপ দাগল পশ্চিমা দেশগুলিকে।

এর আগে ভারত গম রফতানি বন্ধের ঘোষণা করতেই জার্মানির তরফে বিবৃতি দিয়ে বলা হয়, ‘জি-৭ ভারতের এই সিদ্ধান্তের নিন্দা করছে।’ এই আবহে অপ্রত্যাশিত ভাবে এবার চিন ভারতের সমর্থনে এগিয়ে এসেছে। চিনা সরকারি দলের মুখপাত্র গ্লোবাল টাইমস একটি প্রতিবেদনে লিখেছে, ‘ভারতকে দোষারোপ করলে খাদ্য সংকট মিটে যাবে না।’ গ্লোবাল টাইমস পশ্চিমা দেশগুলির দিকে আঙুল তুলে প্রশ্ন করেছে, ‘আজকে জি-৭ দেশগুলি ভারতের কাছে আবেদন করছে যাতে গম রফতানির উপর নিষেধাজ্ঞা জারি না করা হয়, তাহলে এই দেশগুলি খাদ্য সরবরাহ স্থিতিশীল রাখতে নিজেরা কেন নিজেদের গম রফতানি বাড়াচ্ছে না?’

চিন ভারতের অবস্থানকে সমর্থন করে বলেছে, ভারত নিজেরাই খাদ্য সংকটে থাকে। তবে যদি ভারতের মতো কোনও পশ্চিমা দেশ বৈশ্বিক খাদ্য সংকটের মুখে গম রফতানির উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করত, তাহলে সেই দেশের উপর কি প্রশ্ন উঠত? চিনা কমিউনিস্ট পার্টির মুখপাত্রে জি-৭ দেশগুলিকে ‘পরামর্শ’ দেওয়া হয়েছে, ভারতের সমালোচনা না করে নিজেরা খাদ্য সংকট মেটাতে এগিয়ে আসুক। এদিকে ভারত ইতিমধ্যেই জানিয়েছে, যেসকল রফতানির ‘লেটার অফ ক্রেডিট’ ইস্যু হয়ে গিয়েছে, সেই চুক্তিকে সম্মান জানিয়ে ভারত গম সরবরাহ করবে। তবে দেশের বর্তমান খাদ্য সংকটের আবহে আপাতত অন্য ক্ষেত্রে গম রফতানি বন্ধ থাকবে।

বন্ধ করুন