বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > China-Bangladesh: জ্বালানি সংকটে ভুগছে বাংলাদেশ, চিন বাড়াচ্ছে সহযোগিতার হাত
চিনের সহযোগিতায় বাংলাদেশে তৈরি হচ্ছে বায়ু বিদ্যুৎ কারখানা

China-Bangladesh: জ্বালানি সংকটে ভুগছে বাংলাদেশ, চিন বাড়াচ্ছে সহযোগিতার হাত

  • বাংলাদেশ প্রবল জ্বালানি সংকটে ভুগছে। এমতাবস্থায় চিনের সহযোগিতায় বাংলাদেশের কক্সবাজারে তৈরি হচ্ছে বায়ু বিদ্যুৎ কারখানা।

বাংলাদেশে জ্বালানির সংকট ক্রমে প্রবল আকার ধারণ করেছে। প্রত্যেক দিন লোডশেডিং হচ্ছে পড়শি দেশে। এমন সময় ওপার বাংলার জন্য এল সুখবর! বাংলাদেশে এসে পৌঁছেছে বায়ু বিদ্যুৎ কারখানার প্রধান দুটি সরঞ্জাম। চিনের সহযোগিতায় বাংলাদেশের কক্সবাজারের বিদ্যুৎ কারখানার এই দুটি সরঞ্জাম পৌঁছানো হয়েছে চট্টগ্রামে। চিন এবং বাংলাদেশের সহযোগিতায় কক্সবাজারে তৈরি হয়েছে দক্ষিণ এশিয়ার প্রথম বায়ু বিদ্যুৎ কারখানা। মনে করা হচ্ছে এই বিদ্যুৎ কারখানা চালু হলে বাংলাদেশের জ্বালানির ঘাটতি অনেকটাই মিটবে।

এই প্রকল্পটি চালু হলে তাতে বার্ষিক ১৪ কোটি ৫৬ লাখ কিলোওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন সম্ভব হবে।

চিনের আন্তর্জাতিক বেতার অথবা সিআরআই-এর তরফে বৃহস্পতিবার, ৪ আগস্ট জানানো হয়েছে বাংলাদেশের পদ্মা সেতুতেও চিন সাহায্য করেছে। এবার তারা বাংলাদেশকে সহযোগিতা করতে চলেছে তাদের আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ প্রকল্পে। এই প্রকল্পের ফলে চিনের কাঠামোগত প্রতিষ্ঠার ক্ষমতাকে বাংলাদেশের স্বীকৃতির সঙ্গেই নতুন ধরনের জ্বালানি উৎপাদনে এই দুই দেশের একই ভাবনার প্রতিফলন দেখা যাবে।

এই বিষয়ে উল্লেখযোগ্য, কদিন আগেই বাংলাদেশ সরকার ৫টি পুনঃব্যবহারযোগ্য জ্বালানির সাহায্যে বিদ্যুৎ উৎপাদনের অনুমতি দিয়েছে। এই পাঁচটি মধ্যে দুটি প্রকল্পে বর্জ্য পুড়িয়ে বিদ্যুৎ উৎপাদন করা হবে। আর বাকি তিনটিতে সৌর শক্তিকে কাজে লাগানো হবে। এই পাঁচটি প্রকল্পেই চিনের সহযোগিতা থাকবে। চিনা কোম্পানির সহযোগিতায় নির্মিত হবে এই প্রকল্পগুলো। এর ফলে পরিবেশবান্ধব বিদ্যুৎ উৎপন্ন হবে যা এক দিকে জ্বালানি তেলের ব্যবহার কমাবে অন্যদিকে পরিবেশ সংরক্ষণে সাহায্য করবে।

গত বছরই বাংলাদেশ পিছিয়ে পড়া দেশের তালিকা থেকে উন্নয়নশীল দেশের তালিকার আওতায় এসেছে। ২০২১ সালে অনুষ্ঠিত কপ ২৬ শীর্ষ সম্মেলনে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জানিয়েছেন ২০৪০ সালের মধ্যে বাংলাদেশের মোট বিদ্যুতের ৪০ শতাংশ বিদ্যুৎ উৎপাদিত হবে পুনঃব্যবহারযোগ্য জ্বালানি থেকে। সেই দিকেই ওপার বাংলা আরও এক ধাপ এগিয়ে গেল চিনের সাহায্য নিয়ে।

বন্ধ করুন