বাড়ি > ঘরে বাইরে > LAC নিয়ে ভারত অবস্থানে অনড় থাকলে বিবাদ হতে পারে, হুঁশিয়ারি চিনের রাষ্ট্রদূতের
লাদাখের ছবি 
লাদাখের ছবি 

LAC নিয়ে ভারত অবস্থানে অনড় থাকলে বিবাদ হতে পারে, হুঁশিয়ারি চিনের রাষ্ট্রদূতের

  • এদিন বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব বলেন যে কিছুটা পরিস্থিতির উন্নতি হয়েছে কিন্তু সেনা সরানোর প্রক্রিয়া এখনও শেষ হয়নি

চিন বলছে প্রকৃত সীমান্ত রেখার অধিকাংশ স্থানে ডিসএনগেজমেন্ট হয়ে গিয়েছে অর্থাৎ দুই পক্ষ সেনা সরিয়ে দিয়েছে। কিন্তু এই দাবি যে ভুল এদিন স্পষ্ট করে জানিয়ে দিল ভারত। একই সঙ্গে ভারতের পক্ষ থেকে বলা হল চিনের আন্তরিক ভাবে চেষ্টা করা উচিত পরিস্থিতি স্বাভাবিক করার ও যাতে ফের এলএসি-তে আগের পরিস্থিতি ফিরে আসে। LAC নিয়ে ভারত অবস্থানে অনড় থাকলে বিবাদ হতে পারে, হুঁশিয়ারি দিলেন চিনের রাষ্ট্রদূত। 

এদিন বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব বলেন যে কিছুটা পরিস্থিতির উন্নতি হয়েছে কিন্তু সেনা সরানোর প্রক্রিয়া এখনও শেষ হয়নি। বাকিটা করার জন্য দুই দেশের কম্যান্ডাররা ফের বসবেন বলে জানান অনুরাগ। 

সূত্রের খবর এখনও প্যাংগং লেক ও ডেপসাংয়ে প্রচুর সংখ্যক চিনা সেনা গেঁড়ে বসে আছে। তাই পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার আপাতত কোনও সম্ভাবনা দেখা যাচ্ছে না। অন্যদিকে বেজিংয়ে চিনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের মুখপাত্র রেন গুয়োকিয়াং বলেন যে ধীরে ধীরে সেনা সরাচ্ছে দুই দেশ, পরিস্থিতি স্বাভাবিক হচ্ছে।

ভারতে স্থিত চিনের দূত সুন ওয়েডং অবশ্য পুরো সমস্যার মূলে ভারত বলে দাবি করেছেন। তিনি বলেন যে ভারতই এলএসি পেরিয়েছে বলে সংঘর্ষ হয়। ভারত উস্কানিমূলক কাজ করায় গালওয়ানে সংঘর্ষ হয় বলেও অভিযোগ করে রাষ্ট্রদূত। 

সুন বলেন যে ভারত যেভাবে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখাকে ব্যাখ্যা করছে তাতে ফের বিবাদ হতে পারে। তিনি বলেন এলএসি নির্ণয় করার সবচেয়ে বড় কারণ হল শান্তি বজায় রাখা। কিন্তু একটি দিক যদি একা একা এলএসি কী সেটা ঠিক করে নেয়, তাহলে তো কোনও মানেই থাকে না। 

ওয়েবিনারে গালওয়ান নিয়ে সোজাসাপটা প্রশ্ন করলে সুন উত্তর না দিয়ে কেবল গালভরা জ্ঞান দেন ভারত-চিন সম্পর্ক নিয়ে। 

বন্ধ করুন