পরীক্ষাগারে চলছে নমুনা পরীক্ষা (ছবি সৌজন্য এপি)
পরীক্ষাগারে চলছে নমুনা পরীক্ষা (ছবি সৌজন্য এপি)

COVID-19 Updates: কিটের মান ভালো, তাপমাত্রার জন্য সমস্যা হতে পারে, রাজ্যের অভিযোগে জানাল ICMR

  • তবে আইসিএমআরের কিটের সমস্যার কথা স্বীকার করেছিলেন নাইসেডের অধিকর্তা শান্তা দত্ত।

আইসিএমআর-নাইসেডের বিরুদ্ধে নিম্নমানের কিট সরবরাহের অভিযোগ তুলেছিল রাজ্য। তবে নমুনার রিপোর্ট অসম্পূর্ণ আসার দায় কার্যত রাজ্যের ঘাড়ে চাপাল ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ মেডিক্যাল রিসার্চ (আইসিএমআর)।

আরও পড়ুন : ITR form revised- করোনার জেরে পিছিয়েছে সময়সীমা, নয়া আইটিআর ফর্ম দেবে CBDT

সোমবার ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ মেডিক্যাল রিসার্চের (আইসিএমআর) মহামারীবিদ্যা ও সংক্রামক রোগের প্রধান রমন আর গঙ্গাখেদকর জানান, বিশ্বের কোথাও ব্যক্তিগত রোগ নির্ণয়ের ক্ষেত্রে র‌্যাপিড টেস্ট ব্যবহার করা হয় না। শুধুমাত্র নজরদারি কারণের জন্য এটার ব্যবহার করা হয়।

আরও পড়ুন : Lockdown 2.0: পথ দেখালেন বিজয়ন? দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দ্বিগুণ হচ্ছে ৭.৫ দিনে, কেরালায় লাগছে ৭২.২ দিন

পরে গঙ্গাখেদকর জানান, পশ্চিমবঙ্গে থেকে অভিযোগ আসছে যে বিজিআই কিট ঠিকঠাকভাবে কাজ করছে না। তাঁর দাবি, কিটগুলির মান ভালো। তিনি বলেন, 'এক্ষেত্রে আমাদের দু'তিনটি জিনিস খেয়াল রাখতে হবে। এই বিজিআই কিটগুলি আমেরিকা এফডির ছাড়পত্র পেয়েছে। মান বেশ ভালোই।'

আরও পড়ুন : ভারত FDI নীতি বদল করায় জব্দ চিন, সংশোধনের আর্জি বেজিংয়ের

তবে সেই কিটে তাপমাত্রাজনিত কিছু সমস্যা আছে বলে জানান আইসিএমআর বিজ্ঞানী। তিনি বলেন, 'এখানে শুধু একটাই সমস্যা আছে। এই কিট যখন রাখতে হবে, তখন ২০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নীচে রাখতে হবে। ২০ ডিগ্রির উপর গেলে টেস্টের ফলাফল ঠিকঠাক আসবে না।'

আরও পড়ুন : সংখ্যালঘু অধ্যুষিত বেঙ্গালুরুর হটস্পটে কোয়ারেন্টাইন করতে গিয়ে বেধড়ক মার খেল স্বাস্থ্যকর্মীরা

তারপরই ঘুরিয়ে রাজ্যের দিকেই আঙুল তোলেন তিনি। বলেন, 'কয়েকজনের (নমুনা) পুনরায় পরীক্ষা করতে হচ্ছে বলে অভিযোগ এসেছে। কারণ কন্ট্রোলে যেগুলি থাকে সেগুলি লাইট আপ হয়নি। যখন টেকনিশিয়ান কাজ করেন ও বেশি নমুনা না থাকে, তাহলে ওটার স্ট্রিপ বাইরে বের করে আরও একবার রান করান, দ্বিতীয় নমুনা পরীক্ষা করার জন্য। সেরকম যখন করবেন, তখন ঘরের তাপমাত্রায় রেখে পরীক্ষার চেষ্টা করেছিলেন কিনা, সেটা দেখতে হবে।'

আরও পড়ুন : পালঘরে সাধু হত্যা- উদ্ধবকে ফোন অমিত শাহর, গ্রেফতার ১০১

যদিও আপাতত রাজ্যের জন্য নাইসেডে রাখা কিটের বন্দোবস্ত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন গঙ্গাখেদকর। তিনি বলেন, 'বাংলা সরকারকে আমরা বলেছি, এনআইবিতে যে কিটে টেস্ট করি, তা কলকাতার নাইসেডে আছে। সংকটের সময়ে সেগুলি সাময়িকভাবে রাজ্যকে দেওয়া হচ্ছে।' সেই কিটে প্রায় ১০,০০০ নমুনা পরীক্ষা করা যাবে বলে জানিয়েছে আইসিএমআর।

বন্ধ করুন