বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > কোভিশিল্ডের ২ ডোজের পরও ডেল্টার বিরুদ্ধে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়নি ১৬ শতাংশের শরীরে!
ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য সঞ্চিত খান্না/হিন্দুস্তান টাইমস
ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য সঞ্চিত খান্না/হিন্দুস্তান টাইমস

কোভিশিল্ডের ২ ডোজের পরও ডেল্টার বিরুদ্ধে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়নি ১৬ শতাংশের শরীরে!

  • দেশে সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউয়ের নেপথ্যে এই ডেল্টা স্ট্রেন রয়েছে বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা।

করোনা অতিমারীর আবহে ডেল্টা স্ট্রেন (B1.617.2) চিন্তার বড় কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। দেশে সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউয়ের নেপথ্যে এই ডেল্টা স্ট্রেন রয়েছে বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা। এই পরিস্থিতিতে কোন টিকা ডেল্টা স্ট্রেনের বিরুদ্ধে বেশি কার্যকর। তা জানতে সবাই আগ্রহী। এই সময়ে সেরামের তৈরি কোভিশিল্ড নিয়ে একটি সমীক্ষা করল আইসিএমআর। আর সেই সমীক্ষাতেই বেরিয়ে এল যে কোভিশিল্ডের দুই ডোজ নেওয়া বহু ব্যক্তির শরীরেই করোনার ডেল্টা স্ট্রেনের বিরুদ্ধে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়নি।

সমীক্ষায় আইসিএমআর জানতে পেরেছে যে কোভিশিল্ডের একটি ডোজ নেওয়াব্যক্তিদের মধ্যে ৫৮.১ শতাংশের শরীরেই ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের বিরুদ্ধে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়নি। এদিকে কোভিশিল্ডের টিকার দুটি ডোজের পরও ১৬ শতাংশের শরীরে ডেল্টার বিরুদ্ধে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়নি বলে জানা গিয়েছে সমীক্ষায়।

ভারতে প্রথম করোনা সংক্রমণের ঢেউয়ের নেপথ্যে ছিল বি১ স্ট্রেন। সেই স্ট্রেনের উপর এক ডোজ কোভিশিল্ড যতটা কার্যকর, তার থেকে ডেল্টার উপর টিকার কার্যকারিতা ৭৮ শতাংশ কম। দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার পর এই হার ৬৯ শতাংশ। এদিকে ইতিমধ্যেই করোনা আক্রান্ত হয়ে থাকলে বি১-এর তুলনায় ডেল্টার উপর কোভিশিল্ডের কার্যকারিতা ৬৬ (এক ডোজ), ৩৮ (দুই ডোজ) শতাংশ কম।

এদিকে ভারত বায়োটেকের করোনার টিকা কোভ্যাক্সিনের চূড়ান্ত পর্বের ট্রায়াল শেষ হয়েছে শনিবার। সংস্থার তরফে দাবি করা হয়, কোভিডের ডেল্টা প্রজাতির ক্ষেত্রে কোভ্যাক্সিন ৬৫.২ শতাংশ কার্যকরী। উপসর্গহীন করোনা রোগীর ক্ষেত্রে এই টিকা কার্যকরী ৬৩.৬ শতাংশ। তীব্র উপসর্গযুক্ত রোগীর ক্ষেত্রে ৯৩.৪ শতাংশ কার্যকরী।

 

বন্ধ করুন