বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ২০২২-এর মধ্যে দেশে বন্ধ করা হবে 'সিঙ্গল ইউজ' প্লাস্টিকের ব্যবহার
এককব্যবহারযোগ্য প্লাস্টিকের ব্যবহার বন্ধের জন্য সচেতনামূলক প্রচার চালানো হবে (ছবি সৌজন্যে রয়টার্স) (REUTERS)
এককব্যবহারযোগ্য প্লাস্টিকের ব্যবহার বন্ধের জন্য সচেতনামূলক প্রচার চালানো হবে (ছবি সৌজন্যে রয়টার্স) (REUTERS)

২০২২-এর মধ্যে দেশে বন্ধ করা হবে 'সিঙ্গল ইউজ' প্লাস্টিকের ব্যবহার

  • সিঙ্গল ইউজ প্লাস্টিকের ব্যবহার বন্ধ করতে মানুষকে সচেতন করতে চায় কেন্দ্র।

সিঙ্গল ইউজ প্লাস্টিকের ব্যবহার বন্ধ করতে মানুষকে সচেতন করার কাজে হাত লাগিয়েছে কেন্দ্র। এর জন্য দুই মাসব্যাপী প্রচার চালানো হবে কেন্দ্রের তরফে। সেই প্রচারের সূচনা হল মঙ্গলবার। এর আগে চলতি বছরের মার্চেই কেন্দ্র একটি বিজ্ঞপ্তি ড্রাফ্ট করেছিল। সেই বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী ২০২২ সালের মধ্যে দেশে সিঙ্গল ইউজ প্লাস্টিকের ব্যবহার বন্ধ করা হবে। তার জন্য বর্জ্য ব্যবস্থাপনার নিয়মেও রদবদল আনা হবে।

এই বিষয়ে এদিন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রকাশ জাভড়েকর বলেন, 'অনেক রাজ্যই আইন করে এককব্যবহারযোগ্য প্লাস্টিকের প্রয়োগের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। ৪০ মাইক্রনের মোটা প্লাস্টিক ব্যাগের ব্যবহারের উপর আমরাও নিষেধাজ্ঞার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। প্রতিটি রাজ্যকে এই বিষয়ে নজরদারি চালাতে বলা হয়েছে।'

প্লাস্টিক বর্তমানে আমাদের জীবনের একটি অবিচ্ছেদ্য অঙ্গে পরিণত হয়েছে। তবে এর ক্ষতিকারক প্রভাবগুলি সম্পর্কে বিশেষজ্ঞরা বারবার সতর্ক করা সত্ত্বেও প্লাস্টিকের ব্যবহার বেড়েই চলেছে। এই পরিস্থিতিতে স্বচ্ছ ভারত অভিযানের দ্বিতীয় পর্বের অঙ্গ হিসাবে কেন্দ্র প্লাস্টিক বর্জ্যের নিয়ন্ত্রণে বিশেষভাবে গুরুত্ব দিয়েছে।

কেন্দ্রীয় সরকার ২০২২ সালের মধ্যে এককব্যবহারযোগ্য প্লাস্টিকের ব্যবহার দফায় দফায় নিয়ন্ত্রণ করার নির্দেশ জারি করেছে। অধিকাংশ রাজ্য ইতিমধ্যেই ডিসপোজেবল প্লাস্টিকের ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। প্লাস্টিকের ব্যাগ, কাপ, প্লেট, ছোটো বোতল এবং স্ট্র আর তৈরিও করা যাবে না এবং ব্যবহারও করা যাবে না। যদিও ভারতের প্লাস্টিক নিয়ন্ত্রণ সংক্রান্ত বিধি কয়েক বছর ধরেই লাগু আছে তবুও তাদের বাস্তবায়নে সেই উদ্যম নেই। তবে এই বিষয়ে প্রচার চালিয়ে মানুষকে সচেতন করতে চাইছে কেন্দ্র।

বন্ধ করুন