বাড়ি > ঘরে বাইরে > ভিডিয়ো প্রকাশ করে JNU হামলার দায় নিল হিন্দু রক্ষা দল
হিন্দু রক্ষা দলের প্রকাশিত ভিডিয়োর একটি স্থিরচিত্র
হিন্দু রক্ষা দলের প্রকাশিত ভিডিয়োর একটি স্থিরচিত্র

ভিডিয়ো প্রকাশ করে JNU হামলার দায় নিল হিন্দু রক্ষা দল

দেশ বিরোধী কাজ হলে অন্য বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতেও হামলা হবে, হুঁশিয়ারি অতি দক্ষিণপন্থী সংগঠনটির

রবিবার দিল্লির জওহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়ে হামলার দায় স্বীকার করল হিন্দু রক্ষা দল নামে একটি অতি দক্ষিণপন্থী সংগঠন। সোমবার গভীর রাতে এক ভিডিয়ো প্রকাশ করে ঘটনার দায় তাদের বলে দাবি করেছে সংগঠনটি। ভিডিয়োয় দাবি করা হয়েছে, দেশবিরোধী কাজে যারা যুক্ত থাকবে তাদের বিরুদ্ধে এভাবেই ব্যবস্থা নেবে তারা।


ভিডিয়োর বয়ান অনুসারে, 'আমাদের দেশে থাকে, খায়। আমাদের দেশেই শিক্ষালাভ করে। দেশে থেকে দেশবিরোধী কাজ করবে তাদের বিরুদ্ধে এমন ব্যবস্থাই নেবে হিন্দু রক্ষা দল। ঘটনার দায় আমরা নিচ্ছি। আমাদের ধর্মের বিরুদ্ধে বললে, দুর্ব্যবহার করলে আমরাও প্রাণ বাজি রাখতে রাজি।'

'দীর্ঘদিন ধরে JNU কমিউনিস্টদের ঘাঁটি। এসব বরদাস্ত হবে না। ভবিষ্যতেও কোথাও দেশবিরোধী কাজ হলে আমরা এভাবেই তার জবাব দেব। দরকার হলে ফের বিশ্ববিদ্যালয়ে হামলা চালাবে হিন্দু রক্ষা দল।', বলা হয়েছে সেই ভিডিয়োয়।

হামলাকারীদের নাম করে ভিডিয়োয় জানানো হয়েছে, 'ভূপেন্দ্র তোমর, পিঙ্কি চৌধুরি-সহ হিন্দু রক্ষা দলের অন্যান্য সদস্যরা এই হামলা চালিয়েছে।

ভারত মায়ের জন্য যারা এসব করতে না পারবে তাদের ভারতে থাকার অধিকার নেই। দরকার হলে ভবিষ্যতে আবার আমরা হামলা চালাবো।'

রবিবার সন্ধে ৭টা নাগাদ JNU-র সবরমতী মহিলা হস্টেলে হামলা চালায় মুখে কাপড় বাঁধা একদল দুষ্কৃতী। ব্যাপক ভাঙচুর করা হয় হস্টেলে। মারধর করা হয় পড়ুয়াদের। বাদ যাননি সেখানে হাজির শিক্ষকরাও। গুন্ডাদের মারে গুরুতর আহত হন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সংসদের সাধারণ সম্পাদক ঐশী ঘোষ। এইমসের ট্রমা কেয়ার সেন্টারে ভর্তি করতে হয় তাঁকে। ঘটনায় নিন্দার ঝড় ওঠে দেশজুড়ে। গোটা ঘটনার তদন্তভার দিল্লি পুলিসের ক্রাইম ব্রাঞ্চকে দিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।

বন্ধ করুন