বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > চব্বিশ ঘণ্টায় ভারতে দৈনিক আক্রান্ত ৩৮,০০০, সক্রিয় আক্রান্ত কমল ২০,০০০-এর বেশি
মাস্ক পরেই চলছে কালীপুজোর কেনাকাটি (ছবি সৌজন্য পিটিআই)
মাস্ক পরেই চলছে কালীপুজোর কেনাকাটি (ছবি সৌজন্য পিটিআই)

চব্বিশ ঘণ্টায় ভারতে দৈনিক আক্রান্ত ৩৮,০০০, সক্রিয় আক্রান্ত কমল ২০,০০০-এর বেশি

  •  গত ২৪ ঘণ্টায় সক্রিয় আক্রান্তের সংখ্যা একধাক্কায় ২০,৫০৩ কমে গিয়েছে।

মঙ্গলবার সকালেই ভারতে করোনাভাইরাসের সুস্থতার সংখ্যা ৭৬ লাখ পার করেছে। তার ফলে বিশ্বের মধ্যে ভারতেই সবথেকে বেশি সংখ্যক মানুষ করোনা-যুদ্ধে জয়ী হয়েছেন। এমনই দাবি করল কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক।

গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে ৫৮,৩২৩ জন করোনা-মুক্ত হয়েছেন। তার ফলে দেশে করোনাজয়ীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭,৬০৩,১২১। বিকেলের সাংবাদিক বৈঠকে স্বাস্থ্য মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে, বিশ্বে সবথেকে বেশি সেরে উঠেছেন ভারতেই। একইসঙ্গে সুস্থতার হার বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৯১.৯৬ শতাংশ। সেই হার ক্রমশ বাড়ছে বলে জানানো হয়েছে।

পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনায় আক্রান্ত হয়েছে ৩৮,৩১০। অর্থাৎ গত মঙ্গলবারের পর সবথেকে কম নয়া আক্রান্তের হদিশ মিলেছে। যা সুস্থ রোগীর থেকে ঢের কম। তার ফলে সক্রিয় আক্রান্তের সংখ্যা একধাক্কায় ২০,৫০৩ কমে গিয়েছে। আপাতত দেশে সক্রিয় আক্রান্তের সংখ্যা ৫৪১,৪০৫। যা মোট আক্রান্তের মাত্র ৬.৫৫ শতাংশ। আর মঙ্গলবার সকাল আটটা পর্যন্ত মোট করোনা সংক্রমিতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৮,২৬৭,৬২৩। অন্যদিকে, মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১২৩,০৯৭। তাঁদের মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় ৪৯০ জনের মৃত্যু হয়েছে।

পরে কেন্দ্র জানিয়েছে, গত সাত সপ্তাহে টানা গড় দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা কমেছে। পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত ১৬ সেপ্টেম্বর থেকে ২২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত গড় দৈনিক ৯০,৩৪৬ জন নয়া আক্রান্তের হদিশ মিলেছে। সেভাবে ২৮ অক্টোবর থেকে ৩ নভেম্বর পর্যন্ত গড় দৈনিক সংক্রমিতের সংখ্যা ৪৫,৮৮৪-তে নেমে এসেছে। একইভাবে একটানা সাত সপ্তাহে গড় দৈনিক মৃতের সংখ্যা কমেছে। ১৬ সেপ্টেম্বর শুরু হওয়া সপ্তাহে যেখানে গড়ে দৈনিক ১,১৬৫ জনের মৃত্যু হয়েছিল, সেখানে ৩ নভেম্বর শেষ হওয়া সপ্তাহে সেই সংখ্যাটা কমে দাঁড়িয়েছে ৫১৩। তা অত্যন্ত আশাপ্রদ বলে জানিয়েছে কেন্দ্র।

বন্ধ করুন