বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > জেরুসালেমের আল-আকসা মসজিদে সংঘর্ষ, জখম অন্তত ৬০ প্যালেস্তিনীয়

জেরুসালেমের আল-আকসা মসজিদে সংঘর্ষ, জখম অন্তত ৬০ প্যালেস্তিনীয়

১৫ এপ্রিল বিকাল ৪টা থেকে ১৭ এপ্রিল পর্যন্ত লকডাউন জারি করা হবে পশ্চিম তীরে। (ছবি - পিটিআই)

১৫ এপ্রিল বিকাল ৪টা থেকে ১৭ এপ্রিল পর্যন্ত লকডাউন জারি করা হবে পশ্চিম তীরে। 

আবারও ইজরায়েল ও প্যালেস্তাইনের মধ্যে সংঘর্ষ বাড়তে শুরু করেছে। জানা গিয়েছে, ১৫ এপ্রিল জেরুসালেমেপ টেম্পল মাউন্ট কমপ্লেক্সে আল-আকসা মসজিদে প্যালেস্তিনীয় ভক্তদের সাথে ইজরায়েলি পুলিশ বাহিনীর সংঘর্ষ বাঁধে। সংঘর্ষে অন্তত ৬০ জন জখম হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। হারেৎজের রিপোর্ট অনুযায়ী, কয়েকজন মুখোশধারী প্রার্থনার পরে পাথর এবং আতশবাজি ছুঁড়তে শুরু করেছিল। যার পরে পুলিশ টেম্পল মাউন্ট প্রাঙ্গণে প্রবেশ করে। হারেৎজের রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে, অন্তত ৬০ জন এই সংঘর্ষে জখম হয়েছেন।

পরিস্থিতির অবনতি হওয়ার প্রেক্ষিতে ইজরায়েলি প্রশাসন ঘোষণা করেছে যে পশ্চিম তীরে ১৫ এপ্রিল বিকাল ৪টা থেকে ১৭ এপ্রিল পর্যন্ত লকডাউন জারি করা হবে। তবে ১৫ এপ্রিল টেম্পল মাউন্টে প্রার্থনায় অংশ নেওয়ার অনুমতি দেওয়া হয়েছে প্যালেস্তাইনের নাগরিকদের। তবে প্রার্থনা শেষেই প্যালেস্তিনীয়দের পশ্চিম তীরে ফিরে যেতে হবে। উল্লেখ্য, গত কয়েক সপ্তাহে প্যালেস্তাইনের হামলায় ১৪ জন ইজরায়েলির মৃত্যু হয়েছে। এর জেরে জেরুসালেম এবং পশ্চিম তীরে উত্তেজনার পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে।

জানা যায়, জেরুসালেমের সংঘর্ষ নিয়্ন্ত্রণে আনতে ইজরায়েলি নিরাপত্তা বাহিনী কাঁদানে গ্যাস ব্যবহার করেছে। আর্মি রেডিয়োকে অফিসার ইলিয়াহু লেভি বলেন যে দাঙ্গাকারীরা হামাসের পতাকা উত্তোলন করে এবং পুলিশকে লক্ষ্য করে পাথর ছুঁড়েছে। তিনি আরও বলেন, ‘উপাসনার স্বাধীনতা যাতে লঙ্ঘন না হয়, তাই আমরা প্রার্থনা শেষ হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করেছিলাম এবং তারপরে দাঙ্গাকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে ভিতরে গিয়েছিলাম। আমরা মসজিদে প্রবেশ করতে চাইনি। কিন্তু পশ্চিম দেয়ালে পাথর ছুড়লে আমরা তা মানব না।’

বন্ধ করুন