বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Hindi Controversy: ‘হিন্দি না বলতে পারলে ছাড়তে হবে দেশ’, ভাষা বিতর্কে ঘি ঢাললেন যোগীর মন্ত্রী
উত্তরপ্রদেশের মৎস্যমন্ত্রী সঞ্জয় নিশাদ (PTI)

Hindi Controversy: ‘হিন্দি না বলতে পারলে ছাড়তে হবে দেশ’, ভাষা বিতর্কে ঘি ঢাললেন যোগীর মন্ত্রী

  • Hindi Controversy: যোগী আদিত্যনাথের মন্ত্রিসভার সদস্য সঞ্জয় নিশাদ বলেন, ভারতের সংবিধান বলে যে ভারত হল 'হিন্দুস্তান', যার অর্থ হিন্দি ভাষাভাষীদের জায়গা। যারা হিন্দি বলতে পারে না তাদের জন্য হিন্দুস্তানে জায়গা নেই। তাদের উচিত এই দেশ ছেড়ে অন্য কোথাও চলে যাওয়া।

হিন্দি ভালোবাসে না তাদের বিদেশি বলে ধরে নেওয়া হবে এবং যারা হিন্দি বলতে পারে না তাদের দেশ ছেড়ে চলে যেতে হবে। এমনই মন্তব্য করে এবার ভাষা বিতর্কে ঘি ঢাললেন উত্তরপ্রদেশের মৎস্যমন্ত্রী সঞ্জয় নিশাদ। উল্লেখ্য, মন্ত্রী সঞ্জয় নিষাদ নির্বল ভারতীয় শোষিত হামারা আম দলের প্রধান। সাধারণত তাঁর দলকে নিশাদ দল বলে ডাকা হয়। উত্তরপ্রদেশের ক্ষমতাসীন ভারতীয় জনতা পার্টির জোটসঙ্গী এই নিশাদ। সেই সুবাদে তিনি যোগীর মন্ত্রিসভার সদস্য। (আরও পড়ুন: ‘‌মহিলাদের উপরে কেন বিজেপি অত্যাচার করবে?’‌, ছাত্রীর প্রশ্নে অস্বস্তিতে বিপ্লব)

সঞ্জয় নিশাদ এই প্রসঙ্গে বলেন, ‘যাঁরা ভারতে থাকতে চান তাঁদের হিন্দি ভালোবাসতে হবে। আপনি যদি হিন্দি না ভালোবাসেন, তাহলে ধরে নেওয়া হবে আপনি একজন বিদেশি বা বিদেশি শক্তির সঙ্গে যুক্ত। আমরা আঞ্চলিক ভাষাগুলিকে সম্মান করি, কিন্তু এই দেশটি এক, এবং ভারতের সংবিধান বলে যে ভারত হল 'হিন্দুস্তান', যার অর্থ হিন্দি ভাষাভাষীদের জায়গা। যারা হিন্দি বলতে পারে না তাদের জন্য হিন্দুস্তানে জায়গা নেই। তাদের উচিত এই দেশ ছেড়ে অন্য কোথাও চলে যাওয়া।’

উল্লেখ্য, সম্প্রতি অভিনেতা কিচ্চা সুদীপ ও অজয় দেবগণের মধ্যে হিন্দি ভাষা নিয়ে টুইট বিনিময় হয়। সেই নিয়ে প্রশ্ন করা হলে যোগীর মন্ত্রী এহেন বিতর্কিত মন্তব্য করেন। এর আগে সুদীপ এক অনুষ্ঠানে বলেছিলেন, ‘হিন্দি আর রাষ্ট্রভাষা নেই। ওরা (বলিউড) আজকাল সর্বভারতীয় ছবি বানাচ্ছে। ওরা সাফল্য। পাওয়ার জন্যে তেলুগু, তামিলে ছবির ডাবিং করাচ্ছে। কিন্তু তাও লাভ হচ্ছে না।’ এর জবাবে অজয় দেবগণ টুইট করে লিখেছিলেন, ‘হিন্দি আমাদের রাষ্ট্রীয় ভাষা না হয়, তাহলে তুমি কেন তোমার মাতৃভাষায় তৈরি ছবি হিন্দিতে ডাবিং করে রিলিজ করো? হিন্দি আমার মাতৃভাষা, এবং আমাদের রাষ্ট্রীয় ভাষা এবং সেটা থাকবেই।’ এই ভাষা বিতর্কে অবশ্য সুদীপের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রী তথা বিজেপি নেতা বাসবরাজ বোম্মাই। তাঁর স্পষ্ট কথা, ‘সুদীপের মন্তব্য এক্কেবারে সঠিক, সেই মন্তব্যকে সম্মান জানানো উচিত। কর্ণাটক তৈরি হয়েছিল ভাষার উপর নির্ভর করে। আঞ্চলিক ভাষাগুলিকে গুরুত্ব দেওয়া উচিত।’

বন্ধ করুন