বাড়ি > ঘরে বাইরে > 'ইসলাম-সম্পর্কিত' সন্ত্রাস ঘটনা, লন্ডন হামলার ঘটনায় জানাল পুলিশ
হামলার পর পুলিশের তল্লাশি (ছবি সৌজন্য এপি)
হামলার পর পুলিশের তল্লাশি (ছবি সৌজন্য এপি)

'ইসলাম-সম্পর্কিত' সন্ত্রাস ঘটনা, লন্ডন হামলার ঘটনায় জানাল পুলিশ

গত বছর নভেম্বরেও একই ধাঁচে লন্ডন ব্রিজে হামলা চালানো হয়। সেই ঘটনার আততায়ীর সঙ্গে রবিবারের আততায়ীর সাদৃশ্য রয়েছে।

সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপের জন্য ২০১৮ সালে দণ্ডিত হয়েছিল। সাজা কাটিয়ে সদ্য জেল থেকে ছাড়া পায়। তারপরই রবিবার দক্ষিণ লন্ডনে হামলা চালায় ২০ বছরের সুদেশ আম্মান।

আরও পড়ুন : লন্ডনে ফের জঙ্গি হামলা, এক আততায়ীকে গুলি করল পুলিশ

রবিরার দুপুরে দক্ষিণ লন্ডন শহরতলির স্ট্রেট্যাম হাই রোডে হামলার ঘটনায় আততায়ীর নাম প্রকাশ করে এমন তথ্য জানাল পুলিশ। এটি 'ইসলাম-সম্পর্কিত' সন্ত্রাসবাদী ঘটনা বলে আগেই চিহ্নিত করেছিল পুলিশ।

আরও পড়ুন : জম্মু-কাশ্মীরে সন্ত্রাসবাদের অভিজ্ঞতা সঞ্চয়, লক্ষ্য ছিল লন্ডন ব্রিজে হামলাকারীর

এবাবের ছুরি হামলার সঙ্গে গত ২৯ নভেম্বর লন্ডন ব্রিজে হামলার সাদৃশ্য আছে বলে জানিয়েছেন গোয়েন্দারা। সেই হামলার ঘটনায় অভিযুক্ত উসমান খানের মতো সুদেশও জেলে ছিল। পুলিশ সূত্রে খবর, চরমপন্থী সামগ্রী রাখা ও বণ্টনের অভিযোগে সুদেশকে গ্রেফতার করা হয়েছিল। সেজন্য তাকে জেলে খাটতে হয়েছে। সপ্তাহখানেক আগেই জেল থেকে ছাড়া পেলেও চরমপন্থী ভাবধারার লেশমাত্র কমেনি। তার উপর নজরদারিও চালাচ্ছিল পুলিশ।

আরও পড়ুন : লন্ডন ব্রিজে ছুরি নিয়ে জঙ্গি হানায় হত ৩, অতীতেও সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপে লিপ্ত ছিলেন আততায়ী

এখানেই প্রশ্ন তুলছেন লন্ডনবাসীর একাংশ। তাঁদের বক্তব্য, সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপে জড়িত থাকার জন্য উসমানের সাজা হয়েছিল। জেল থেকে ছাড়া পেয়ে হামলা চালায় সে। সেই ঘটনার পরও কেন শিক্ষা নেয়নি পুলিশ? কার্যত একই ধাঁচে হামলা চালানো হল তো! আর কত এরকম ধাঁচে হামলা হলে ব্যবস্থা নেবে সরকার?

চাপের মুখে পড়ে ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন জানিয়েছেন, সন্ত্রাসবাদী ঘটনায় যারা দোষী সাব্যস্ত, তাদের মোকাবিলা করার যে প্রক্রিয়া আছে তাতে মৌলিক পরিবর্তন করা হবে। সোমবার এই সংক্রান্ত ঘোষণা করবে সরকার বলে জানিয়েছেন তিনি।

বন্ধ করুন