বাড়ি > ঘরে বাইরে > আগে যারা অবলীলায় ঘুরে বেড়াত, তাদের আটকাচ্ছে ভারতীয় সেনা, বাড়ছে উত্তেজনা- মোদী
বীরভূমের রাজেশকে শেষ বিদায়, গালওয়ানে মারা গিয়েছেন তিনি।  (PTI)
বীরভূমের রাজেশকে শেষ বিদায়, গালওয়ানে মারা গিয়েছেন তিনি।  (PTI)

আগে যারা অবলীলায় ঘুরে বেড়াত, তাদের আটকাচ্ছে ভারতীয় সেনা, বাড়ছে উত্তেজনা- মোদী

দেশের এক ইঞ্চি জমিও নিতে কেউ সক্ষম নয়, বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। 

গালওয়ানে চিনের সংঘর্ষ নিয়ে সর্বদলীয় বৈঠকে কড়া বার্তা দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। কোনওভাবেই যে ভারতীয় সেনা আগ্রাসনের সামনে চুপ থাকবে না, সেটা সাফ করে দেন প্রধানমন্ত্রী। 

গালওয়ান ঘটনা সম্বন্ধে মোদী বলে, আমাদের সীমান্তে কেউ প্রবেশ করেনি, কেউ ঢুকে বসে নেই, কোনও পোস্টও কারও দখলে নেই। যারা ভারতকে টার্গেট করেছিল, তাদের সমুচিত শিক্ষা দিয়েছেন শহিদ হওয়া জওয়ানরা বলে জানান মোদী। 

সেনাকে যে দেশের অখণ্ডতা রক্ষা করার জন্য পূর্ণ স্বাধীনতা দেওয়া আছে, সেটাও সাফ করেন তিনি। মোদী বলেন এখন ভারত, যেরকম সক্ষম, কেউ দেশের এক ইঞ্চি জমি নিতে পারবে না। প্রয়োজনে যে বিভিন্ন অঞ্চলে লড়াই করার জন্য সেনা প্রস্তুত, সেটাও বলেন মোদী। 

তিনি বলেন গত কয়েক বছরে সামরিক ক্ষমতা বাড়ানোর ওপর জোর দেওয়া হয়েছে। এতে আরও ভালো ভাবে সীমান্ত রক্ষা করা যাচ্ছে। ফাইটার প্লেন, আধুনিক হেলিকপ্টার, ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ইত্যাদির উল্লেখ করেন মোদী। 

আগে যে সব দুর্গম অঞ্চলে সেনার তেমন নজর ছিল না, এখন সেখানেও টহল বাড়ানো হয়েছে বলে জানান মোদী। সবশেষে কংগ্রেসকে একটু ঠুকে প্রধানমন্ত্রী বলেন আগে তো অনেক জায়গায় বিপক্ষকে জিজ্ঞেস করার, বাধা দেওয়ার কেউ থাকত না। এখন ভারতীয় সেনা প্রতি পদে বিপক্ষকে চ্যালেঞ্জ করছে, তাদের প্রশ্ন করছে বলেই উত্তেজনা বাড়ছে বলে জানান প্রধানমন্ত্রী। 

সোমবার রাতে পূর্ব লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় চিনের হাতে ভারতের কুড়িজন সেনা মারা যায়। দশজনকে আটক করেছিল চিন সেনা, যাদের পরে ছেড়ে দেওয়া হয়। চিনের দিকেও প্রায় ৩৫ জন মারা গিয়েছেন বলে বেসরকারি সূত্রে খবর, যদিও সরকারি ভাবে এই তথ্য দিতে অস্বীকার করেছে বেজিং। 

 

বন্ধ করুন