বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > জ্বালানির দামে নাজেহাল! পেট্রল ছাড়াই বাইক চালালেন এক মেকানিক
"পেট্রোলচালিত মোটরসাইকেল আনুন। আর ব্যাটারিচালিত মোটরসাইকেল নিয়ে যান।" ছবি: টুইটার

জ্বালানির দামে নাজেহাল! পেট্রল ছাড়াই বাইক চালালেন এক মেকানিক

  • তবে তারিফের পাশাপাশি অনেকে এভাবে পেট্রল মোটরবাইককে ব্যাটারিতে মডিফাই করার বিপদ নিয়েও সতর্ক করে দিয়েছেন।

পেট্রলের দাম আকাশছোঁয়া। মোটরসাইকেলের জ্বালানি ভরতে গিয়ে হিমশিম খাচ্ছেন অনেকেই। আর তারই সুরাহা করতে বিনা পেট্রলে বাইক চালানোর সুরাহা করছেন এক মেকানিক।

হরিয়ানার হিসারের মেকানিক রবীন্দ্র তোমারের অফারটা অভিনব। তাঁর কথায়, "আপনার পেট্রলচালিত মোটরসাইকেল আনুন। ১০,০০০ টাকা দিন। চাইলে নিজে ব্যাটারি কিনে দিন। আর ব্যাটারিচালিত মোটরসাইকেল নিয়ে যান।"

টুইটারে বিজ্ঞাপন হিসাবে নিজের মডিফাই করা একটি হিরো হন্ডা স্প্লেন্ডরের ছবি দিয়েছেন রবীন্দ্র। সেখানে দেখা যাচ্ছে ইঞ্জিনের হাউজিং-এর জায়গায় ফ্রেমের মধ্যে একটি ব্যাটারি ও মোটর বসানো।

মুহূ্র্তে টুইটারে ভাইরাল হয়ে যায় ছবিটি। অনেকেই মেকানিকের বুদ্ধি ও সৃষ্টিশীলতার তারিফ করেছেন। অনেকে বলছেন, "যে হারে দাম বাড়ছে, এটাই একমাত্র উপায়।" এখনও পর্যন্ত প্রায় সাড়ে নয় হাজার লাইক করা হয়েছে টুইটটিতে।
 

রবীন্দ্রর দাবি ৬৫-৭০ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টা বেগে চলবে তাঁর এই মডিফাই করা মোটরসাইকেল। রেঞ্জ ব্যাটারির উপর নির্ভরশীল। 

তবে তারিফের পাশাপাশি অনেকে এভাবে পেট্রল মোটরবাইককে ব্যাটারিতে মডিফাই করার বিপদ নিয়েও সতর্ক করে দিয়েছেন।কারণও রয়েছে। এভাবে ব্যাটারি সংযুক্ত করা প্রথমত বেআইনি। দ্বিতীয়ত, এতে গাড়ির ব্যালেন্স বিঘ্নিত হবে। বর্ষায় ব্যাটারি ক্ষতিগ্রস্তও হতে পারে।
 

রবীন্দ্র অবশ্য তার উত্তরে জানিয়েছেন যে, ডিজাইন আরও সুন্দর ও কভার তৈরী করার প্রচেষ্টা চলছে। আশা করছেন নতুন এই বুদ্ধি দিয়ে অনেককে সাহায্য করতে পারবেন।

তবে রবীন্দ্রই যে প্রথম এমনটা করলেন, তা কিন্তু একেবারেই নয়।
 

বন্ধ করুন