বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > জম্মু-কাশ্মীরে ডিডিসি ভোটে বেশি আসন পেল গুপকার জোট, একক বৃহত্তম দল হল বিজেপি
শ্রীনগরেও জিতেছে বিজেপি, জয় কর্মীদের মধ্যে 
শ্রীনগরেও জিতেছে বিজেপি, জয় কর্মীদের মধ্যে 

জম্মু-কাশ্মীরে ডিডিসি ভোটে বেশি আসন পেল গুপকার জোট, একক বৃহত্তম দল হল বিজেপি

দুই পক্ষেরই দাবি যে তারা জিতেছে নির্বাচন! 

৩৭০ ধারা অবলুপ্ত হওয়ার পর প্রথম নির্বাচন জম্মু-কাশ্মীরে। গুপকার জোট প্রত্যাশা মতোই বিজেপির চেয়ে বেশি আসন পেয়েছে। তবে বৃহত্তম দল হয়েছে বিজেপি। ফলে দুই পক্ষই নিজের মতো করে এটিকে নিজেদের জয় বলে মনে করছে। একই সঙ্গে এই ভোটের ফল ৩৭০ ধারা অবলুপ্তির বিষয় কী বার্তা দেয়, সেই নিয়েও বিভিন্ন রকমের ব্যাখ্যা দিচ্ছে দলগুলি। 

জেলা উন্নয়ন পর্ষদ (District Development Council (DDC)) ভোটে মোট ২৮০ আসনের মধ্যে ২৭৮টি তে ফলাফল ঘোষিত হয়েছে। পাক অধিকৃত কাশ্মীরের প্রার্থীরা মনোনয়নপত্র ভরায় দুটি আসনে ফলাফল স্থগিত আছে। এর মধ্যে চিরবিরোধী ন্যাশনাল কনফারেন্স ও পিপলস ডেমোক্র্যাটিক পার্টি ও অন্যান্য ছোটো দলদের নিয়ে গঠিত জোট People's Alliance for Gupkar Declaration (PAGD) জিতেছে ১১০টি আসন। বিজেপি জিতেছে ৭৫টি আসন। এছাড়াও নির্দলরা জিতেছে ৫০ আসন, কংগ্রেস ২৬, আপনি পার্টি ১২, পিডিএফ ও ন্য়াশনাল প্যান্থার্স পার্টি জিতেছে দুটি করে আসন ও বিএসপি একটি জিতেছে। 

গুপকার গোষ্ঠীর মধ্যে ন্যাশনাল কনফারেন্স জিতেছে ৬৭ আসন, পিডিপি ২৭, পিপলস কনফারেন্স আট, সিপিএম পাঁচ ও জম্মু-কাশ্মীর পিপলস মুভমেন্ট তিনটি আসন পেয়েছেন। সব মিলিয়ে ৩.৯৪ লক্ষ ভোট পেয়েছে তারা। 

অন্যদিকে বিজেপি পেয়েছে ৪.৮৭ লক্ষ ভোট। তবে কুড়িটির মধ্যে শুধু পাঁচটি জেলা জম্মু, কাঠুয়া, উধমপুর, সাম্বা, ডোডা ও রিয়েসিতে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়েছে বিজেপি। গেরুয়া দলকে ঠেকাতে কংগ্রেস জানিয়ে দিয়েছে যে তারা পিএজিডি-কে সমর্থন করবে। অন্যদিকে মেহবুবা মুফতি অভিযোগ করেছেন যে বিজেপি নির্দলদের অপহরণ করে নিয়ে চলে যাচ্ছে! 

জম্মুতে ১৪০টি আসনের মধ্যে গুপকাররা ৩৫টি জিতেছে। সেই নিয়ে বিজেপিকে কটাক্ষ করতে ছাড়েননি ন্যাশনাল কনফারেন্সের ওমর আবদুল্লা। তাঁর মতে, এতে প্রমাণিত যে শুধু কাশ্মীর নয় জম্মুতেও জোর আছে তাদের। জম্মুতে বিজেপির সভাপতি রবিন্দর রায়নার জেলাতে হেরেছে বিজেপি। হেরেছেন দুই মন্ত্রীও। অন্যদিকে কাশ্মীরে প্রথমবারের জন্য তিনটি আসনে জিতেছে বিজেপি। তবে ওমর আবদুল্লার দাবি, মানুষ যে ৩৭০ ধারা অবলুপ্তির বিপক্ষে, এই ম্যান্ডেট সেটাই বোঝাচ্ছে। পিডিপিকে ভেঙে অনেক নতুন দল তৈরি করেও বিজেপি সুবিধা করতে পারেনি বলে মনে করছেন তিনি। 

অন্যদিকে বিজেপির কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুর বলেছেন যে তাঁর দল ও নির্দলরা মিলে ৫২ শতাংশ ভোট পেয়েছে। এর থেকেই স্পষ্ট যে গুপকারকে প্রত্যাহার করেছে মানুষ। বিজেপি একক বৃহত্তম দল হওয়ায় অভিনন্দন জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। তাঁর মতে মানুষ এই ভোটে অংশগ্রহণ করে গণতন্ত্রের প্রতি আস্থা জ্ঞাপন করেছেন। মোদীর নেতৃত্বে জম্মু-কাশ্মীরের উন্নতিতে বিজেপি সচেষ্ট থাকবে বলে তিনি জানান। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রবি শংকর প্রসাদ বলেন যে সন্ত্রাসবাদী ও চরমপন্থীদের গালে সজোরে চড় এই ভোট ও তার ফলাফল। এবারের ভোটে ৫১ শতাংশ মানুষ অংশগ্রহণ করেছেন, যেটা আগের বারের চেয়ে বেশি। সেটিকেই বড় সাফল্য বলে মনে করছে কেন্দ্রীয় সরকার। 

বন্ধ করুন