বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Manik Saha: ত্রিপুরায় শুরু মানিক রাজ, BJP-র ‘দাঁতের ব্যথা’ সারাতে পারবেন প্রফেসর সাহা?
ত্রিপুরার নয়া মুখ্যমন্ত্রী মানিক সাহা (ছবি - টুইটার)
ত্রিপুরার নয়া মুখ্যমন্ত্রী মানিক সাহা (ছবি - টুইটার)

Manik Saha: ত্রিপুরায় শুরু মানিক রাজ, BJP-র ‘দাঁতের ব্যথা’ সারাতে পারবেন প্রফেসর সাহা?

  • Tripura New CM: কংগ্রেসি ঘরানার রাজনীতি ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন মানিকবাবু। এখন সেই মানিকবাবুর কাঁধেই বিজেপি সরকারের বৈতরণী পারের গুরু দায়িত্ব।

বিপ্লব কুমার দেব গতকাল মুখ্যমন্ত্রী পদ থেকে সরে দাঁড়ানোর কিছুক্ষণ পরই ঘোষণা হয়ে গিয়েছিল যে ত্রিপুরার পরবর্তী মুখ্যমন্ত্রী হবেন মানিক সাহা। এই আবহে রবিবার আগরতলার রাজভবনে রাজ্যের নতুন মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন মানিক সাহা। তিনি ত্রিপুরার বিজেপি প্রধান এবং রাজ্যসভার সাংসদ।

মানিক সাহা ডেন্টাল সার্জারির একজন অধ্যাপক। কংগ্রেসি ঘরানার রাজনীতি ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন মানিকবাবু। এখন সেই মানিকবাবুর কাঁধেই বিজেপি সরকারের বৈতরণী পারের গুরু দায়িত্ব। বিগত দিনে ত্রিপুরায় অন্তর্দ্বন্দ্বে জর্জরিত বিজেপি। দলে ধরেছে ভাঙন। বিধায়করা গেরুয়া শিবির ছেড়ে অন্য দলে যোগ দিয়েছেন। এই আবহে উত্তর-পূর্ব রাজ্যে একটি বহুমুখী প্রতিদ্বন্দ্বিতা দেখা যেতে পারে আগামী বছরের নির্বাচনে। সেখানে বিজেপিকে একাধারে সিপিএম, কংগ্রেস ও তৃণমূলকে টপকাতে হবে গদিতে ফিরতে গেলে। এই আবহে বিজেপি ‘সিগনেচার স্টাইলে’ নির্বাচনের প্রাক্কালে মুখ্যমন্ত্রী বদলে নয়া চমক দিল এই রাজ্যে।

এর আগে শনিবার বিপ্লব দেবের পদত্যাগের কয়েক ঘণ্টা পরেই ৬৯ বছর বয়সি মানিক সাহাকে বিজেপি বিধায়ক দলের নেতা হিসাবে বেছে নেওয়া হয়েছিল। ২০১৬ সালে মানিকবাবু কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন। ২০২০ সালে তাঁকে রাজ্যসভায় পাঠিয়েছিল বিজেপি। পেশায় দাঁতের সার্জারির প্রফেসর মানিকবাবু পটনার সরকারি ডেন্টাল কলেজ ও লখনউয়ের কিং জর্জ মেডিকেল কলেজ থেকে তিনি ডেন্টাল সার্জারিতে মাস্টার ডিগ্রি পেয়েছিলেন। বিগত দিনে ত্রিপুরা মেডিক্যাল কলেজে ডেন্টাল সার্জারির প্রফেসর ছিলেন। আগরতলায় ডাঃ বিআরএএম টিচিং হাসপাতালেও শিক্ষকতা করতেন তিনি। তিনি ত্রিপুরা ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনেরও সভাপতি। এহেন উচ্চশিক্ষিত প্রফেসর ত্রিপুরার ১১তম মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন আজকে।

বন্ধ করুন