বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > কেরলের শৌচাগারের চেম্বারে ভাসছে কষ্টের টাকা, তুলতে গিয়ে মৃত্যু বাংলার ২ ভাইয়ের
কেরলে মৃত্যু বাংলার দুই শ্রমিকের। প্রতীকী ছবি।

কেরলের শৌচাগারের চেম্বারে ভাসছে কষ্টের টাকা, তুলতে গিয়ে মৃত্যু বাংলার ২ ভাইয়ের

  • জীবিত ভাই সঞ্জীব জানিয়েছেন, অন্তর্বাসের পকেটে ১৪ হাজার ৮০০ টাকা ছিল। শৌচকর্ম করতে গিয়ে তা পড়ে যায়। এরপর দুই ভাইকে জানান তিনি। তিনজন মিলে এরপর শাবল দিয়ে চেম্বারের ঢাকনা খুলে পড়েন

ভিনরাজ্যে কাজ করতে গিয়ে ফের ভয়াবহ পরিণতি বাংলার দুই শ্রমিকের। তারা সম্পর্কে দুই ভাই। দুজনে কাজ করতে গিয়েছিলেন কেরলে। শৌচাগারে গিয়ে একজনের পকেট থেকে টাকার বান্ডিল পড়ে যায়। জলের তোড়ে তা একেবারে চেম্বারে চলে যায়। এদিকে টাকা উপায় করে সংসারের মুখে হাসি ফোটানোর জন্যই তো এই ভিনরাজ্যে এসেছেন দুই ভাই। সেই টাকাই শৌচাগারের চেম্বারে। আর কিছু না ভেবে সেই চেম্বারে নেমে পড়েন এক ভাই। ফের অপর ভাই নেমে পড়েন চেম্বারে। মৃত্যু হয়েছে দুজনেরই। মৃতদের নাম আলকাস শেখ (৩২) ও আসরাফুল শেখ (২৯)।। বর্ধমানের ভাতার থানার এরুয়ার গ্রামে তার বাড়ি।

আসলে চেম্বারে নামাটাই কাল হল তাদের। বিষাক্ত গ্যাসে মৃত্যু হয়েছে তাদের। কেরলে রাজমিস্ত্রির কাজ করতেন তারা। মাস চারেক আগে বাড়ি ফিরেছিলেন। কথা ছিল শীঘ্রই বাড়ি ফিরবেন। কিন্তু আর ফেরা হল না। তিন ভাই কেরলে গিয়েছিলেন। তার মধ্যে মৃত্যু হল দুজনের।

জীবিত ভাই সঞ্জীব জানিয়েছেন, অন্তর্বাসের পকেটে ১৪ হাজার ৮০০ টাকা ছিল। শৌচকর্ম করতে গিয়ে তা পড়ে যায়। দুই ভাইকে জানান তিনি। তিনজন মিলে এরপর শাবল দিয়ে চেম্বারের ঢাকনা খুলে পড়েন। দেখেন প্লাস্টিকে মোড়া টাকা ভাসছে। মই দিয়ে নেমে টাকা তুলেও ফেলেছিলেন। কিন্তু ওঠার সময় পড়ে যায় এক ভাই। তাকে বাঁচাতে গিয়ে অপর ভাইও নীচে পড়ে যান। পরে সঞ্জীবও নামতে গিয়েছিলেন। কিন্তু অন্যান্যরা আটকে দেন তাকে। পরে তাদের দেহ উদ্ধার করে দমকল।

বন্ধ করুন