বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > চিনকে চেপে না ধরলে পাকাপাকি ভাবে অর্থ সাহায্য বন্ধ, WHO-কে ‘হুমকি চিঠি’ ট্রাম্পের
করোনা অতিমারি নিয়ে তথ্য গোপন করতে চিনকে সাহায্যের অভিযোগে WHO-কে আর্থিক সাহায্য বন্ধ করবে আমেরিকা, জানালেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ছবি: রয়টার্স। (REUTERS)
করোনা অতিমারি নিয়ে তথ্য গোপন করতে চিনকে সাহায্যের অভিযোগে WHO-কে আর্থিক সাহায্য বন্ধ করবে আমেরিকা, জানালেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ছবি: রয়টার্স। (REUTERS)

চিনকে চেপে না ধরলে পাকাপাকি ভাবে অর্থ সাহায্য বন্ধ, WHO-কে ‘হুমকি চিঠি’ ট্রাম্পের

  • চিনকে আড়াল করার অভিযোগে WHO-কে আর্থিক সাহায্য করা বন্ধ করবে আমেরিকা, সাফ জানালেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

করোনা সংক্রমণ সম্পর্কে সব জেনেও চিনকে আড়াল করার অভিযোগে WHO-কে আর্থিক সাহায্য করা বন্ধ করবে আমেরিকা, সাফ জানিয়ে দিলেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

সোমবার WHO-এর ডিরেক্টর জেনারেল তেদ্রোস আধানোম ঘেব্রেইয়েসাসকে একগুচ্ছ অভিযোগ জানিয়ে আর্থিক সহায়তা বন্ধ এবং সংগঠন থেকে আমেরিকার নাম প্রত্যাহারের হুমকি দিয়েছেন ট্রাম্প। টুইটারে সেই চিঠি পোস্ট করে মার্কিন প্রেসিডেন্ট দাবি করেছেন, ২০১৯ সালের ডিসেম্বর মাসে চিনের উহাল শহরে প্রথম করোনাভাইরাস সংক্রমণ শুরু হওয়ার পরে প্রত্যক্ষ প্রমাণ-সহ একাধিক তথ্য হাতে এলেও তা জনসমক্ষে আনার কোনও চেষ্টা করেননি ঘেব্রেইয়েসাস। উলটে চিনকে আড়াল করতে বার বার অতিমারিকে লঘু করে দেখানোর চেষ্টায় বিশ্ববাসীকে বোকা বানিয়েছেন WHO প্রধান। 

চিঠিতে ট্রাম্প অভিযোগ করেছেন, ‘চিন সরকারের দেওয়া রিপোর্টের সঙ্গে অন্যান্য সূত্রে পাওয়া তথ্যের সংঘাত ঘটলেও পরিস্থিতি যাচাই করতে কোনও অনুসন্ধান করেনি WHO। উলটে তাইওয়ান সরকারের থেকে পাওয়া তথ্য গোপন করে সম্ভবত রাজনৈতিক ফায়দা লোটার উদ্দেশে বিশ্বের নজর থেকে চিনকে আড়াল করার নিরন্তর চেষ্টা করে গিয়েছেন।’

শুধু তাই নয়, পরিস্থিতি সরেজমিনে খতিয়ে দেখতে চিনে আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞ দলকে ঢুকতে দেওয়ার বিষয়েও বেজিংয়ের উপরে চাপ তৈরি করতে ব্যর্থ হয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। এই অভিযোগ জানিয়ে ট্রাম্প স্পষ্ট হুমকি দিয়েছেন, ‘যদি WHO আগামী ৩০ দিনের মধ্যে এই বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ না করে, সে ক্ষেত্রে সংস্থাকে আমেরিকার আর্থিক সাহায্য আমি সাম.য়িক ভাবে বন্ধ করে দেব। পাশাপাশি সংস্থায় আমেরিকার অন্তর্ভুক্তি বজায় থাকবে কি না, তাই নিয়েও ভাবনাচিন্তা 

এর আগে বেশ কয়েক বার WHO-এর বিরুদ্ধে চিনকে আড়াল করার অভিযোগ জানিয়েছেন আমেরিকার প্রেসিডেন্ট। হোয়াইট হাউসের সাংবাদিক বৈঠকে তিনি সংস্থাকে সরাসরি ‘চিনের হাতের পুতুল’ বলে উল্লেখও করেছেন। ট্রাম্পের দাবি, ঠিক সময়ে বিশ্বকে সতর্ক করার দায়িত্ব পালনে করব।’চূড়ান্ত ব্যর্থ হয়েছে WHO। তাদের গাফিলতির কারণে বিশ্বজুড়ে কয়েক লাখ মানুষের প্রাণ গিয়েছে বলেও অভিযোগ করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। 

উল্লেখ্য, সম্প্রতি করোনাভাইরাস সংক্রমণের উৎস খুঁজতে চিনে নিরপেক্ষ তদন্তের আর্জি জানিয়েছে ভারত-সহ বিশ্বের ১২০টি দেশ। প্রথমে বিরোধিতা করলেও সোমবার সেই আর্জি মেনে নিয়েছেন চিনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। যদিও তিনি জানিয়েছেন, এই মুহূর্তে মানুষের প্রাণরক্ষা করাই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কাজ। বিশ্বে করোনাপরিস্থিতি কিছুটা আয়ত্তে এলে তদন্ত শুরুর প্রস্তাব দিয়েছেন তিনি। 

অতিমারি নিয়ন্ত্রণে তাঁর সংস্থার ব্যর্থতার কথা আংশিক স্বীকার করেছেন WHO-এর ডিরেক্টর জেনারেলও। গতকাল রাষ্ট্রপুঞ্জের নিয়ন্ত্রণাধীন আন্তর্জাতিক স্বাস্থ্য অ্যাসেমব্লির সামনে সংস্থার ভূমিকা পর্যালোচনার প্রস্তাবকে তিনি স্বাগত জানিয়েছেন।  

বন্ধ করুন