বাংলা নিউজ > ময়দান > অ্যাশেজের প্রস্তুতির মাঝেই ওষুধ খেতে গিয়ে প্রায় মরতে বসেছিলেন বেন স্টোকস
প্রায় মরতেই বসেছিলেন বেন স্টোকস (ছবি:রয়টার্স)

অ্যাশেজের প্রস্তুতির মাঝেই ওষুধ খেতে গিয়ে প্রায় মরতে বসেছিলেন বেন স্টোকস

  • গলায় ওষুধ আটকে প্রাণ যেতে বসেছিল বেন স্টোকসের! নিজেই জানালেন সেই ঘটনার কথা।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ সহ বেশ কয়েকটি সিরিজ থেকে নিজের নাম তুলে নিয়েছিলেন ইংলিশ তারকা অল-রাউন্ডার বেন স্টোকস। কারণ হিসাবে সেই সময় তিনি বলেছিলেন, তিনি নাকি মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন। স্টোকস বলেছিলেন পরিবারের সঙ্গে সময় কাটাতে চান তিনি। আসলে করোনাকালে জৈব সুরক্ষা বলয়ে থাকতে থাকতে মানসিক অবসাদে আক্রান্ত হয়েছিলেন বেন স্টোকস। তবে এখন শেষ পর্যন্ত বিশ্বের অন্যতম সেরা এই অল-রাউন্ডারের অবসাদ কেটেছে, তিনি এখন সুস্থ। আসন্ন অ্যাশেজ দিয়েই মাঠে ফিরতে পারেন তিনি। তবে জানেন কি অ্যাশেজের প্রস্তুতির মাঝেই ওষুধ খেতে গিয়ে প্রায় মরতেই বসেছিলেন স্টোকস।

ডেইলি মেইলে নিজের কলামে সেই ঘটনা জানিয়েছে ইংলিশ তারকা অল-রাউন্ডার বেন স্টোকস। তিনি লিখেছেন, 'তখন নিজের ঘরে একা ছিলাম। ওষুধটা গলায় আটকে গিয়েছিল। যতক্ষণ পর্যন্ত ওষুধটা বের হয়নি, তার আগে পর্যন্ত মনে হচ্ছিল আমি শেষ! পরে গলাতেই সেটা আস্তে আস্তে গলতে শুরু করে। নিশ্বাসই নিতে পারছিলাম না। মনে হচ্ছিল, আমার মুখে আগুন লেগেছে। বিস্তারিত ঘটনা বলব না। শুধু এটুকুই জানিয়ে রাখি যে, গত রবিবার আমার মুখে যত লালা দেখেছি, এমনটা জীবনে আর কখনো দেখিনি। সত্যিই অনেক ভয় পেয়ে গিয়েছিলাম।'

সেই ট্যাবলেট ঘটনা থেকে বেঁচে আবার অনুশীলনে গিয়ে হাতে বল লেগে চোট পেয়েছেন স্টোকস। ৩০ বছর বয়সী অল-রাউন্ডার লিখেছেন, 'অনুশীলনে ফিরতে পেরে ভালো লাগছিল। কিন্তু এরপর আসে ভয়ের মুহূর্ত। আমাদের ব্যাটিং কোচ জোনাথন ট্রটের ছোড়া বল যখন আমার হাতের সামনের দিকে লাগে, ব্যথায় কাতরাচ্ছিলাম। হাত নাড়াতেই পারছিলাম না। আমি তো ভেবেছিলাম হাত বুঝি ভেঙেই গেছে। সৌভাগ্য, ড্রেসিংরুমে ফেরার পর ব্যথা আর এর প্রভাব কমে এসেছে। ফিজিওরাও নিশ্চিত করেছেন যে হাত ভাঙেনি।'

বন্ধ করুন